শাসনতন্ত্র সম্পর্কে আলোচনার জন্য প্রেসিডেন্ট আইউব কর্তৃক পূর্ব পাকিস্তান থেকে ৩০ টি নাম চেয়ে পাঠানোর প্রেক্ষিতে একটি চিঠি

Posted on Posted in 2

<2.21.142>

 

প্রিয় জনাব হাশিম রাজা,

আমি রাওয়ালপিন্ডি থেকে একটি টেলিফোনে বার্তায় ৩০টি নামের জন্য অনুরোধ পেয়েছি যারা সংবিধান সংক্রান্ত ব্যাপারে রাস্ট্রপতি দ্বারা প্রস্তাবিত। আমি ৩০ জনের নামের একটি তালিকা প্রনয়ন করছি যা মূখ্যসচিব,কমিশনার ও জেলা প্রশাসকদের সাথে পরামর্শ ক্রমে গৃহীত। কমিশনার ও জেলাপ্রশাসকদের দৃষ্টিতে যোগ্য লোক খুঁজে পাওয়া অত্যন্ত কঠিন ছিল।তারা ভেবেছিল এটি আরো কার্যকরী হবে যদি প্রতি মহকূমা থেকে একজন নাগরিক নির্বাচন করা যায়। আমি উপজেলা থেকে একটি নামের তালিকা ‘পরিশিষ্ট খ’তে প্রনয়ন করছি।

 

আমি ব্যক্তিগতভাবে নিন্মলিখিত কারনে এই ধারনার পক্ষে নই।

(ক)রাষ্ট্রপ্রধান বা সকল প্রদেশের গুরুত্বপূর্ণ ব্যাক্তিবর্গের লেখা উচিত। পূর্ব-পাকিস্তানে পাঁচ বা ছয় জনের অধিক এমন ব্যাক্তি আছে বলে আমি মনে করি না। রাস্ট্রপতি নিজে তাদের লিখলে খুব ভালো হয়।

(খ)তালিকায় উল্লিখিত ব্যক্তিদের অধিকাংশই সম্পূর্ন পাকিস্তান থেকে নয় বরং তারা পূর্ব-পাকিস্তান থেকে এবং তারা ভবিষ্যত নির্বাচনে আগ্রহী হতে পারে যেমন রাস্ট্রপতির চিঠি। আমার আশংকা হচ্ছে যে, রাস্ট্রপতির ইঙ্গিত হিসেবে ব্যবহার করা হবে।

(গ)তালিকায় উল্লিখিত ব্যক্তিবর্গকে অসামান্য ব্যক্তি হিসেবে মনে করা হয়। প্রতিটি মহকূমা বা জেলায় আরো দুই বা তিনজন ব্যক্তি থাকবে। এই ব্যক্তিদের রাস্ট্রপতির লেখা চিঠি অবশ্যই পাঠানো হবে না যা তাদের কাছে অপমানজনক মনে হয় এবং তাদের অকারণে উপেক্ষা করা হচ্ছে বলে মনে হয়।

 এছাড়াও এই ধারনায় আরেকটি গুরুতর আপত্তি রয়েছে। বিশেষ গনতন্ত্রের বিভিন্ন স্তরের বেসরকারি সদস্যগন অত্যন্ত আঘাত পাবে যদি রাস্ট্রপতির পাঠানো চিঠি তারা না পায় এবং সেটা মহকূমা/জেলা পর্যায়ের অন্য কেউ পায়। এর সঙ্গে পাঠানো তালিকায় প্রাদেশিক উপদেষ্টা পরিষদের সকল সদস্যের নাম অন্তর্ভূক্ত করা হয়নি। বিভাগীয় কাউন্সিল ও জেলা পরিষদের বেসরকারী সদস্যদের অবশ্যই এই রকম একটি তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করা হবে বলে আসা করি। সুস্পষ্ট কারনে তাদের অন্তর্ভুক্ত করা হলো না কেননা তাদের সংখ্যা ত্রিশের চাইতে বেশি হয়ে গেছে।

সদয় শুভেচ্ছার সঙ্গে,

আপনার বাধ্যগত,

এ. এম. এস আহমেদ

পরিচালক

২৭-২-১৯৬২

এস. এইচ. রাজা, ইএসকিউ, সি এস পি

পাকিস্তান সরকারের সচিব

জাতীয় মন্ত্রণালয়

পুনর্গঠন ও তথ্য

ক্যাম্প, ঢাকা।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

<2.21.143>

পরিশিষ্ট খ

বরিশাল জেলা

১। জনাব আসাদুল হক, বিএল, চেয়ারম্যান, পটুয়াখালি পৌরসভা, বরিশাল।

২। সৈয়দ মো. আফজাল, পিতা: মৃত আব্দুর রহিম, পিরোজপুর(সভাপতি, বাকেরগঞ্জ জেলা মুসলিম লীগ)।

 

ময়মনসিংহ জেলা

৩। খান বাহাদূর ফজলুর রহমান, জামালপুর, ময়মনসিংহ।

৪। সৈয়দ মোজামউদ্দিন হোসেন(এন আই), সাবেক মন্ত্রী, এমএলএ পুত্র, পিতাঃ মৃত ফয়েজউদ্দিন, অষ্টগ্রাম, ময়মনসিংহ।

৫। ডঃ লুতফুর রহমান, চাকসিওরার আব্দুল হাকিমের পুত্র, ময়মনসিংহ শহর।

৬। জনাব এ কে এম ফজলুল  হক, নেত্রকোনা, ময়মনসিংহ।

 

চট্টগ্রাম

৭। জনাব ফরিদ আহমেদ চৌধুরী, এম এ, এল এল বি, প্রাক্তন এমএলএ, এমপি, দেলিরচরের নাদিরুজ্জামানের পুত্র, রামু, কক্সবাজার, চট্টগ্রাম।

 

পাবনা

৮। জনাব তরীকুল আলম, বার্তা সম্পাদক, দৈনিক আজাদ, ঢাকা, সিরাজগঞ্জ মহকুমা, পাবনা।

 

খুলনা

 

৯। ডাঃ মোজাম্মেল হোসেন, চেয়ারম্যান, টাউন কমিটি, বাগেরহাট মহকুমা।

১০। জনাব এম এ গফুর, চেয়ারম্যান, টাউন কমিটি, সাতক্ষীরা।

১১। খান সাহেব কামারুদ্দিন আহমেদ, চেয়ারম্যান, জায়গির মহল ইউনিয়ন পরিষদ, পাইকগাছা।

 

রংপুর

১২। জনাব সাইদুর রহমান, গাইবান্ধা, রংপুর।

১৩। জনাব পনিরউদ্দিব আহমেদ(এমএল), প্রাক্তন এম পি এ, কুড়িগ্রাম, রংপুর।

১৪। জনাব মতিউর রহমান চৌধুরী(কে এস পি), নীলফামারী টাউন, রংপুর।

 

ঢাকা

১৫। জনাব আব্দুল হাকিম, প্রাক্তন এমএলএ, বিক্রমপুর, ঢাকা।

১৬। জনাব মশিউদ্দিন আহমেদ, ওরফে রাজা মিয়া, মানিকগঞ্জ, ঢাকা।

 

কুষ্টিয়া

১৭। জনাব রেজওয়ানুল হক, এল এল বি(এমএল), কুষ্টিয়া সদর মহকুমা।

১৮। জনাব আজগর আলী মোল্লা, বি এল, সদস্য, জেলা পরিষদ, কুষ্টিয়া।

১৯। জনাব আব্দুর রহিম মুক্তিয়ার, চেয়ারম্যান, মেহেরপুর, টাউন কমিটি, সদস্য, বিভাগিয় পরিষদ।

 

 

 

 

<2.21.144>

 

ফরিদপুর

২০। জনাব আদিলউদ্দিন আহমেদ (এ এম এল), ফরিদপুর সদর।

২১। ডাঃ আসজাদ, এম বি, রাজবাড়ি, ফরিদপুর।

২২। জনাব আহমদ আলী, রাজবাড়ী, ফরিদপুর।

২৩। জনাব ফারুকুজ্জামান, বি এল (এম এল), গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর।

২৪। লাই মিয়া ওরফে মুজিবুর রহমান, গোপালগঞ্জ টাউন।

২৫। জনাব ইসকান্দার আলী, বি এল(এম এল), পিতাঃ জনাব আলী খান, ধাগি, মাদারীপুর, ফরিদপুর।

২৬। ডাঃ জি মাওলা ওরফে গোলাম মাওলা, এম, বি, বি, এস, পিতাঃ আব্দুল গফুর ঢালি, পাড়গাছা, মুক্তারচর, মাদারীপুর টাউন, ফরিদপুর।

 

রাজশাহী

২৭। ডাঃ এ আজিজ, সহ-সভাপতি, রাজশাহী সদর পৌরসভা।

২৮। জনাব এ মজিদ, নাটোর, জেলা কাউন্সিলর, রাজশাহী।

২৯। জনাব তাহুর আহমেদ চৌধুরী(এ এল), নওয়াবগঞ্জ, রাজশাহী।

৩০। জনাব মোজাফফর আহমেদ চৌধুরী(এম এল), পিতাঃ মফিজউদ্দিন চৌধুরী, নওগা, রাজশাহী বিভাগীয় পরিষদ। 

 

নোয়াখালী

৩১। রায় সাহেব নগেন্দ্র কুমার সুর, প্রাক্তন কংগ্রেস, নোয়াখলী।

৩১। জনাব রশীদ আহমেদ জায়াগী(এম এল), রামগঞ্জ নোয়াখালী।

৩৩। জনাব মাহমুদুল হক, বি এল, সদর, নোয়াখালী।

 

কুমিল্লা

৩৪। জনাব রেজাউর  রহমান, বি এল, পিতাঃ সিদ্দিক রহমান, দক্ষিন চারতা, কুমিল্লা টাউন, কুমিল্লা।

৩৫। জনাব ফরিদ উদ্দিন আহমেদ, বি এল(এম এল), পুত্রঃ গিয়াসউদ্দিন, কুমিল্লা টাউন।

৩৬। জনাব আব্দুস সালাম মুক্তিয়ার(এম এল), প্রাক্তন এম পি এ, মতলবগঞ্জ, চাঁদপুর টাউন।

যশোর

৩৭। জনাব মতলবুর রহমান(এম এল), চেয়ারম্যান, ঝিনাইদহ টাউন কমিটি।

 

পার্বত্য চট্টগ্রাম

৩৮। মং শোয়ে প্রু, বোমাং প্রধান, বান্দরবান, পার্বত্য চট্টগ্রাম।

৩৯। বাবু লাই বিহারী চাকমা, পার্বত্য চট্টগ্রাম।

দিনাজপুর

৪০। ডাঃ আব্দুল আজিজ, চেয়ারম্যান, পঞ্চগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ, ঠাকুরগাঁও মহকুমা, দিনাজপুর।

 

 

 

 

 

 

 

<2.21.145>

সিলেট

৪১। জনাব আজমল আলী চৌধূরী(এম এল), সিলেট টাউন।

৪২। জনাব মোঃ আব্দুল খালেক(এম এল)বি এল, সদস্য, জেলা পরিষদ, সুনামগঞ্জ, সিলেট।

৪৩। সৈয়দ সরফরাজ আহমেদ, চেয়ারম্যান, টাউন কমিটি, মৌলভিবাজার, সিলেট।

৪৪। সৈয়দ কামরুল আহসান, প্রাক্তন এম এল এ(এন আই), হবিগঞ্জ, সিলেট। ৫০, নাজিমউদ্দিন রোড, ঢাকা।

১। জনাব আব্দুর রব, বি এল(এম এল), পিতাঃ মৃত আব্দুল হামিদ, বরিশাল টাউন বাকেরগঞ্জ, ভাইস চেয়ারম্যান, বরিশাল মিউনিসিপ্যাল কমিটি ও সদস্য, প্রাদেশিক উপদেষ্টা পরিষদ।

২। অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খান(প্রাক্তন এম সি এ), পিতাঃ মৃত শাহবার খান, পিরামদি, গোপালপুর, ময়মনসিংহ।

৩। জনাব এ এ রেজাউল  করিম চৌধুরী, অধ্যক্ষ, নৈশ কলেজ, চট্টগ্রাম, পিতাঃ আলি আহমদ চৌধুরী, সরূপবাট্টা, রাঙ্গুনিয়া, চট্টগ্রাম।

৪। জনাব তোরাব আলী পিপি(এম এল), পিতাঃ রফিক উদ্দিন, পাবনা টাউন।

৫। জনাব এস এম এ মজিদ, এল এল বি, খুলনা।

৬। জনাব মাহতাবউদ্দিন খান(পি এন সি), পিতাঃ নাহারউদ্দিন, কাআলকাশনা, রংপুর টাউন(চেয়ারম্যান, রংপুর মিউনিসিপ্যালিটি)।

৭। জনাব এইচ এন এস দোহা(প্রাক্তন আই জি পি), তেজগাঁও, ঢাকা।

৮। খাঁজা খাইরুদ্দিন, আহসান মঞ্জিল, ঢাকা মিউনিসিপ্যালিটি।

৯। খান বাহাদুর জসীমউদ্দিন, নারায়নগঞ্জ, ঢাকা।

১০। জনাব মাহবুউর রহমান চৌধুরী ওরফে পুটু, পিতাঃ হাফিজুর রহমান চৌধুরী, বগুরা টাউন।

১১। জনাব শামসুজ্জোহা(এম এল), আইনজীবি, পিতাঃ আব্দুর রহমান, থানা পাড়া, কুষ্টিয়া টাউন(সদস্য, বিভাগীয় পরিষদ)।

১২।খান বাহাদুর ইসমাইল, ফরিদপুর সদর।

১৩। জনাব এ সামাদ, জেলা কাউন্সিলর, রাজশাহী।

১৪। খান বাহাদুর রাজ্জাক হায়দার চোধুরী(কে এস পি এ এল), গোপালপুর, নোয়াখালী(প্রাক্তন মন্ত্রী)।

১৫। জনাব শহীদুল হক, বি এল(এম এল), প্রাক্তন এম সি এ, পিতাঃ কানা মিয়া, বিবাড়িয়া টাউন, কুমিল্লা।

১৬। জনাব সোহরাব হোসেন(এ এল), পিতাঃ গুলহাম তাহের চোকদার, ময়না, মাগুরা, যশোর।

১৭। ক্যাপ্টেন ত্রিদিব কুমার রায়, পিতাঃ মৃত রাজা নিলীনাক্ষ রায়, রাঙামাটি, রাঙামাটি চাকমা প্রধান, পার্বত্য চট্টগ্রাম।

১৮। হাফিজউদ্দিন চৌধুরী, দিনাজপুর সদর, সদস্য, দিনাজপুর জেলা পরিষদ।

১৯। দেওয়ান তালিমুর রেজা চৌধুরী(এম এল), পিতাঃ একলিমুর রেজা।

২০। খাজা নাজিমুদ্দিন, ২৭, ইস্কাটন রোড, রমনা, ঢাকা।

 

<2.21.146>

২১। ডঃ এম হুসাইন, উপাচার্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।

২২। ডঃ এম আহমেদ, উপাচার্য, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়।

২৩। ডঃ এম এ রশিদ, উপাচার্য, প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।

২৪। ডঃ এম ও গণি, উপাচার্য, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।

২৫। জনাব নুরুল আমিন, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী, ইস্কাটন রোড, রমনা, ঢাকা।

২৬। জনাব তমিজউদ্দিন খান, প্রাক্তন স্পিকার, গণপরিষদ, প্রযত্নে, ডঃ এম এন হুদা, বিভাগীয় প্রধান, অর্থনীতি, ঢাকা বিস্ববিদ্যালয়, ঢাকা।

২৭। জনাব জহিরউদ্দিন, আইনজীবি, ২৩, খালিশঘোষ লেন, ঢাকা।

২৮। ডঃ এম হক, প্রোভোস্ট, সলিমুল্লাহ মুসলিম হল,

২৯। ডঃ এফ রহমান, প্রভোস্ট, ঢাকা হল।

৩০। ডঃ সাজ্জাদ হোসেন, প্রভোস্ট, ইকবাল হল,

৩১। ডঃ সাইফুল্লাহ, প্রভোস্ট, ফজলুল হক হল।

৩২। ডঃ জি সি দেব, প্রভোস্ট, জগন্নাথ হল।

৩৩। জনাবা, আখতার ইসলাম, প্রভোস্ট, মহিলা হল।