আইয়ুব সরকারের বিরুদ্ধে মাওলানা ভাসানীঃ “প্রয়োজনে খাজনা বন্ধ করা হবে”

Posted on Posted in 2

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ: দলিলপত্রের ২য় খণ্ডের ৪০৮ নং পৃষ্ঠায় মুদ্রিত ৭৮ নং দলিল থেকে বলছি…

শিরোনামসূত্রতারিখ
আইয়ুব সরকারের বিরুদ্ধে মওলানা ভাসানী:

‘প্রয়োজনে খাজনা বন্ধ করা হবে’

দৈনিক আজাদ১৫ই জানুয়ারী ১৯৬৯

 

হাতিরদিয়াতে মওলানা ভাসানী বলেনঃ

অধিকার আদায়ের জন্য প্রয়োজনবোধে খাজনা-ট্যাক্স বন্ধ করা হইবে

 

হাতিরদিয়া (ঢাকা), ১৪ই জানুয়ারী:- পূর্ব পাকিস্তান ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির সভাপতি মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী গতকাল সোমবার এখানে বলেন যে, জনসাধারণের ভোটাধিকার, লাহোর প্রস্তাবে উল্লিখিত পূর্ণ আঞ্চলিক স্বায়ত্তশাসন ও অর্থনৈতিক অধিকার আদায়ের জন্য প্রয়োজন হইলে আমরা খাজনা-ট্যাক্স দেওয়া বন্ধ করিব।

 

তিনি পূর্ব পাকিস্তানের সাড়ে ছয় কোটি মানুষের প্রাণের দাবী পূর্ণ আঞ্চলিক স্বায়ত্তশাসন প্রদান ও বন্যানিয়ন্ত্রণের জন্য গণচীন সরকারের সহযোগিতা গ্রহণের দাবী জানান।

 

মওলানা ভাসানী স্বাধীনতার একুশ বৎসরে কৃষকসমাজের উপর খাজনা, ট্যাক্স ও দুর্নীতিপরায়ণ আমলাদের সীমাহীন জুলুমের কথা উল্লেখ করিয়া বলেন যে, অত্যাচার আর শোষণের বিরুদ্ধে কৃষকসমাজের পুঞ্জীভূত বিক্ষোভই আজ দেশে এক বিস্ফোরণমূলক পরিস্থিতির সৃষ্টি করিয়াছে।

 

মওলানা ভাসানী বলেন, কৃষকের হাতে বন্দুক নাই, কিন্তু কৃষকের বিক্ষোভ প্রদর্শন ও হরতাল পালনের ক্ষমতা রহিয়াছে। তাহারা যদি হাটবাজারে তাহাদের পরিশ্রমের ফসল ও অন্যান্য জিনিসপত্র বিক্রয় বন্ধ করেন, তাহা হইলে হাজার হাজার টাকার মাহিনার উজির-আমলা হইতে শুরু করিয়া থানার দারোগা পর্যন্ত সকলকেই কারেন্সি নোট চিবাইয়া খাইতে হইবে।