‘আমরা’ গোষ্ঠী কর্তৃক সাংকেতিক নাম ব্যবহার এবং আন্দোলনের বিভিন্ন সমস্যা সম্পর্কে বাংলাদেশ সরকারকে লিখিত চিঠি

Posted on Posted in 4

<৪,১৮৮,৩৭৩-৩৭৪>

অনুবাদকঃ ফাহমিদা আক্তার বৃষ্টি

শিরোনামসূত্রতারিখ
১৮৮। ‘আমরা’ গোষ্ঠী কর্তৃক সাংকেতিক নাম ব্যবহার এবং আন্দোলনের বিভিন্ন সমস্যা সম্পর্কে বাংলাদেশ সরকারকে লিখিত চিঠি‘আমরা’১৯ আগস্ট, ১৯৭১

গোপন

                                                 জাকার্তা-আগস্ট ১৯,১৯৭১

প্রিয় হোসাইন আলী সাহিব,

     বাংলাদেশের প্রতি আপনার আনুগত্যসূচক ঐতিহাসিক ঘোষণার আগে আমরা দেশের স্বার্থে কিভাবে নিজেদের কার্যকরি করতে পারি তা নিয়ে কিংকর্তব্যবিমূঢ়তার গভীর সাগরে ছিলাম। আপনার প্রক্রিয়া অন্যান্য অনেককেই দেশের বাইরে উদ্যোগ সংগঠিত করার জন্য যোগাযোগ প্রতিষ্ঠা করতে ও উপদেশ প্রার্থনা করতে পথ দেখিয়েছিলো এবং গতিপথ খুলে দিয়েছিলো। যোগাযোগ প্রতিষ্ঠার পর থেকে, শহরের প্রবণতা ও অগ্রগতির উপর আমরা নিয়মিত আপনাকে প্রতিবেদন পাঠাচ্ছি। আপনার মিশনের উপর কাজের বিশাল বোঝা ও ভয়াবহ চাপ সত্ত্বেও আমরা খুশি যে, গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের উপর আমাদের আইনগত অনুসন্ধানের উপর মনোনিবেশ করা হচ্ছে।

   আমাদের কিছু সংখ্যক সমস্যা ও সীমাবদ্ধতা আছে যেসব আমরা আপনার সাথে আলাদাভাবে উন্নতিসাধনের চেষ্টা করতে পারি। এই চিঠিটি আপনাকে সংক্ষেপে জানানোর জন্য যে, মারাত্মক বিরোধ ও বাধা, বিশেষ করে নীতি নির্ধারকদের কঠিন মনোভাব সত্ত্বেও আমাদের প্রচেষ্টা আংশিক সফলতার দেখা পেয়েছে। যাইহোক, আমরা আমাদের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

   আপনি আমাদের বিভিন্ন প্রতিবেদন ও সংবাদের বিভিন্ন কর্তন করা অংশ থেকে এখানকার সংবাদ মাধ্যমগুলোর হাওয়া বুঝতে পেরেছেন এবং আমরা যোগ করতে পারি যে, লাখ লাখ জনগণ আমাদের উদ্দেশ্য বুঝতে পেরেছে এবং আপনাদের দুর্দশার প্রতি সমব্যাথী।

   এই দেশে বাঙালি বসতি স্থাপনকারীরা খুবই কম এবং কদাচিৎ। জাকার্তায় শুধুমাত্র দুইটি পরিবার আছে এবং তারা আর্থিকভাবে খুবই অক্ষম ও সামাজিকভাবে অনগ্রসর। আমরা আপনার উপদেশ বিবেচনা করেছিলাম। তাদেরকে খোলামেলাভাবে কোনকিছু করতে বলার জন্য উৎসাহিত করা সম্ভব না। উপরন্তু কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপের ও আমাদের প্রকাশ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। যদি পরিস্থিতি অনুকূলে থাকে, তাহলে সঙ্ঘটি প্রশ্নের সাথে যথাযথভাবে গ্রহণ করা হবে। যাইহোক, আমরা আপনাকে জানাতে পারি যে, আপনার অফিসের সাথে যোগাযোগের শুরুতে আমরা নিম্নলিখিত তিনজন সদস্য নিয়ে “আমরা” দল গঠন করি যেন সীমিত সম্পদ নিয়ে ও বিভিন্ন অক্ষমতার বিরুদ্ধেও যা কিছু সম্ভব করা যায়:

নাম                               কোড-নেম                       কাজের বণ্টন 

১) আ. ফ. ম. শামসুজ্জামান     কামাল                       সমন্বয় ও গবেষণা

২) আ. ব. ম. সানাউল্লাহ         সুফি                       সংগঠন ও জনসংযোগ

৩) সিদ্দিক আহমেদ             রুমি                        সংবাদ ও প্রকাশনা

 

 

    নিরাপত্তার কারণে, আমরা এই চিঠিটি এখানকার ভারতীয় দূতাবাসের সৌজন্য মাধ্যমে পাঠাচ্ছি। আমাদের ঠিকানা যা ইতোমধ্যেই আপনাদের অফিসে আছে ( পামাডাঙ্গান ২/১০, সাহারী পর্বত, এ. আই. পি. ভবনের সম্মুখে, উত্তর জাকার্তা), সাধারণ বার্তা পাঠাতে ব্যবহৃত হতে পারে। অতি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে, যদি আপনি এটি যুক্তিযুক্ত মনে করেন, পরবর্তী ঠিকানাটি অনুগ্রহপূর্বক খামের উপরে ব্যবহৃত হতে পারে: দলনেতা এন. সিনহা রায়, ভারতীয় দূতাবাস, জাকার্তা, প্রাপক পররাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রী, নয়াদিল্লী। ভেতরের খামে শুধুমাত্র “আমরা” উল্লেখ করা যেতে পারে। যদি যোগাযোগের অন্য কোন নিরাপদ ও নিশ্চিন্ত উপায় থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের পরামর্শ দিতে পারেন।

   অন্যান্য দেশে আমাদের সংগঠনের সাথে প্রায়ই আমাদের তথ্য আদান-প্রদানের দরকার হতে পারে। আমরা কৃতজ্ঞ থাকবো আপনার কাছে যদি আশু একটি তারিখে আপনি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের নাম ও ঠিকানা আমাদের সরবরাহ করতে পারেন। আমাদের ঠিকানাও তাদের কাছে প্রচার করা যেতে পারে। তবুও নিরাপত্তার খাতিরে ভবিষ্যতে দয়া করে আমাদের সাংকেতিক নাম ব্যবহার করবেন।

  এই চিঠিটি আমাদের ক্ষমতাপ্রাপ্ত সদস্যদের সাংকেতিক স্বাক্ষরের মাধ্যমে প্রেরণ করা হচ্ছে। যদি কোন গুরুত্বপূর্ণ চিঠি এই স্বাক্ষর বহন না করে, এমন চিঠি উপেক্ষা করা যেতে পারে।

  আমাদের ব্যক্তিগত গভীর সম্মানের সাথে,

                                                                 জয় বাঙলা

                                                            আপনার অনুগত,

                                                                আমরা 

জনাব হোসাইন আলী

বাংলাদেশ মিশনের প্রধান

কলকাতা।