ঈদের ফেতরাসহ মুক্তিযোদ্ধাদের অন্যান্য সাহায্যের জন্য বাংলাদেশ মহিলা সমিতির আবেদন

Posted on Posted in 4

<৪,২৯০,৬৫৮-৬৫৯>

অনুবাদকঃ জেসিকা গুলশান তোড়া

শিরোনামসূত্রতারিখ
২৯০। ঈদের ফেতরাসহ মুক্তিযোদ্ধাদের অন্যান্য সাহায্যের জন্য বাংলাদেশ মহিলা সমিতির আবেদন

 

বৃটেনে বাংলাদেশ মহিলা সমিতির প্রচারপত্র১৬ ডিসেম্বর, ১৯৭১

 

বাংলাদেশ মহিলা সমিতি, বৃটেন

১০৩ লেডবুরি রোড, লন্ডন, ডব্লিউ ১১

ফোনঃ ০১-৭২৭৬৫৭৮

তারিখঃ ১৬ নভেম্বর, ১৯৭১

সুধী,

পবিত্র ঈদ সমাগমে প্রতিটি দেশপ্রাণ বাঙ্গালীর মন স্বভাবতই ভারাক্রান্ত। দেশ ও জাতি আজ ঘোরতর দুর্যোগের সম্মুখীন। ইয়াহিয়ার নীতি ও ধর্মজ্ঞান বিবর্তিত নৃশংস সেনাবাহিনীর অত্যাচারে জর্জরিত। অত্যাচারী এজিদ বাহিনী বাঙ্গালী জাতির নাম পৃথিবী থেকে মুছে ফেলতে বদ্ধপরিকর। দেশের এই সংকটে আমাদের একমাত্র ভরসাস্থল মরণজয়ী জেহাদেরত মুক্তিবাহিনীর ভাইরা। বাংলা ও বাঙ্গালীকে তারা বাঁচাবেই-প্রয়োজন হলে তাঁদের জীবনের বিনিময়ে। আমাদের ঈদ ব্যর্থ হবে যদি পবিত্র দিনে তাদের প্রতি আমাদের কর্তব্য ভুলে যাই।

তাই,যুক্তরাজ্যস্থ বাংলাদেশ মহিলা সমিতি সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবারের ফেতরার পয়সা সংগ্রহ করে মুক্তিবাহিনীর কাপড়-চোপড় ও প্রয়োজনীয় অন্যান্য জিনিস খরিদ করার জন্য পাঠিয়ে দেবে। এ ব্যাপারে আমরা অনুরোধ করছি আপনাদের আন্তরিক সহযোগিতা।

আসুন ভাই-বোনেরা,এইবারের ফেতরার পয়সা মুক্তিবাহিনীর নামে বাংলাদেশ মহিলা সমিতির কাছে পাঠিয়ে দিয়ে জেহাদে শরিক হোন। দানের দ্বারা দেশের প্রতি আপনার গুরুদায়িত্বের ভার কিছুটা লাঘব করুন। আপনার ঈদ সার্থক ও পবিত্র হোক।

জয় বাংলা।

 

নিবেদিকা

মিসেস বকশ

(কনভেনর)

 

একটি জরুরী আবেদন

সোনার বাংলায় মানুষ আজ হানাদার বাহিনীর নৃশংস হত্যালীলার শিকার। তারা আজ অন্নহীন, বস্ত্রহীন। এখন শীতকাল। মুক্তিবাহিনীরা খোলা জায়গায় কাজে ব্যস্ত। শরণার্থীরা শীতবস্ত্রের প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করে এগিয়ে আসুন। দেশ স্বাধীন যারা করছেন তাদের সাহায্য করাই দেশের কাজ করা। যে যা পারেন নতুন বা পুরানো কিন্তু পরিষ্কার জাম্পার, সোয়েটার, কার্ডিগান, পুলওভার, প্যান্ট ও গলাবন্ধ দিয়ে সাহায্য করুন। এর আগে মে মাসে আমরা ‘ওয়ার অন ওয়ান্ট’ এর মাধ্যমে মুক্তিবাহিনীদের জন্য ৪০০ শার্ট ও প্যান্ট পাঠিয়েছি। আপনাদের সাহায্য পেলে এবারও পারব ইনশাআল্লাহ। আপনার সংগ্রহ করা কাপড়গুলি নীচের ঠিকানায় আগামী ১৩ ও ২০শে নভেম্বর শনিবার বেলা ২-৪টার মধ্যে পৌঁছে দিন।

১.    ওয়াল্ড সার্ভিস ট্রাস্ট,                                ২.    ৫৮ বার উইক স্ট্রীট,

২৭ ডেলানসি স্ট্রিট                                         লন্ডন ডাব্লিউ. আই,

লন্ডন এন. ডাব্লিউ. আই                                   অক্সফোর্ড সার্কুলার।

(ক্যামডেন হাই স্ট্রিটের বিপরীতে,

ক্যামডেন টাউন)

 

বাংলাদেশের মহিলা সমিতি সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবারের ফেতরার পয়সা সংগ্রহ করে সেটা মুক্তিবাহিনীর জন্য খরচ করবে। এই সংকল্প রূপায়নের জন্য চাই আপনাদের সক্রিয় সহযোগিতা।

দেশ আজ ইয়াহিয়া- সৈন্যের অত্যাচারে ধ্বংস কবলিত। বাংলাদেশে আজ জীবন ধারণ করাই দুর্বিষহ। জাতি আজ জীবন-মরণ সমস্যার সম্মুখীন। আপনার-আমার ভাই বোনেরা জীবন পণ করে ঝাঁপিয়ে পড়েছে দেশকে শত্রুমুক্ত করতে। আপনারা কি মনে করেন না যে যারা মানুষ বাঁচানোর ব্রতে নেমেছেন তাঁদের সাহায্য করাই ধর্মের কাজ ও বাংলার মানুষকে বাঁচানোই আজ বাংলার মানুষের মহান কর্তব্য ও দায়িত্ব?

আপনার বন্ধু-বান্ধব ও আত্মীয়-স্বজনকে বলুন এবারের ফেতরার পয়সা মুক্তিবাহিনীর জন্য খরচ করতে এবং নিজেরাও ফেতরার পয়সা মুক্তিবাহিনীর নামে বাংলাদেশ মহিলা সমিতিতে জমা দিন।

জয় বাংলা

বাংলাদেশ মহিলা সমিতি, ১০৩ লেডবেরী রোড, লন্ডন পশ্চিম ১১