জোন প্রশাসনের অর্থব্যবস্থা সম্পর্কে অর্থ মন্ত্রণালয়ের একটি চিঠি

Posted on Posted in 3
শিরোনামসূত্রতারিখ
জোন প্রশাসনের অর্থ ব্যবস্থা সম্পর্কে অর্থ মন্ত্রনালয় এর একটি চিঠিবাংলাদেশ সরকার অর্থ মন্ত্রনালয়১৮ সেপ্টেম্বর, ১৯৭১

 

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার অর্থ মন্ত্রণালয়

 

মেমো নং… ……………১৮ সেপ্টেম্বর, ১৯৭১

 

প্রেরক :    এম কে চৌধুরী

উপসচিব

অর্থ মন্ত্রণালয়

 

প্রাপক:     সকল আঞ্চলিক প্রশাসন অফিসার

 

মেমো নং Fin/2/71/183/(7) তাং:১৩/৯/৭১

 

এর প্রতি আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হচ্ছে।উক্ত মেমোতে উল্লেখিত অফিসার দের ভিন্ন ভিন্ন অঞ্চলে নিয়োজিত করা হয়েছে যা নিম্নে তাদের নামের বিপরীতে উল্লিখিত।

 

অফিসারদের নাম                                                                                      অপারেশন অঞ্চল

১.জনাম মো: মতিউর রহমান                                                                     অর্থ বিভাগ কুচবিহার এর অন্তর্গত

স্টাফ অফিসার                                                                                          সকল স্বাধীন এলাকা,তুরা এবং ডওকি জোন

 

২.জনাব সামসুদ্দিন হায়দার,কর অফিসার,                                                   অর্থ বিভাগ বারাসাত এর অন্তর্গত

সকল স্বাধীন এলাকা,কৃষ্ণনগর এবং বালুরঘাট জোন।

৩.জনাব মো ইদ্রিস আলী,স্টাফ অফিসার, ব্যবসা এবং বাণিজ্য                      সাব্রাম অন্তর্গত সকল স্বাধীন এলাকা,

ধর্মনগর এবং আগরতলা জোন।

 

যেহেতু সাধারণ প্রশাসন বিভাগ স্বাধীন অঞ্চল গুলোর প্রশাসন এর জন্য আদর্শ গঠন চূড়ান্ত করেনি,কর এবং কর সংগ্রহ সম্পর্কিত আনুষ্ঠানিক নিয়মকানুন তাই সরবরাহ করা যাচ্ছেনা।বাংলাদেশ হতে ভারতে রপ্তানিকৃত পাটসহ সকল পণ্যের জন্য কর সংগ্রহ করা হবে।পাট এবং তামাক এর প্রতি মণ এর জন্য রপ্তানি কর ২ রুপি। পাঠের মূল্য এবং তার উপর কর এর অনুপাত বিবেচনায়,মাছের মত পচনশীল পণ্যের জন্য প্রতি মণ মাছ এর উপর কর হবে ৬ রুপি।অন্য সকল পণ্যের জন্য সাবেক পূর্ব পাকিস্তান এর অনুরূপ কর ধার্জ হবে।

 

আরও দৃষ্টি আকর্ষণ করা যাচ্ছে যে,স্বাধীন এলাকাসমূহে বিদ্যমান সায়রাত মহলগুলো যেমন মাছের ঘের,হাট,বাজার ইত্যাদি সম্ভব হলে নিলামের মাধ্যমে লিজ দেয়া হবে অথবা মধ্যস্থতার মাধ্যমে বোঝাপড়া করা হবে,যদি নিলাম সম্ভবপর না হয়।গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ হতে লিজ এর আনুষ্ঠানিক চুক্তির একটি করে কপি অর্থসচিব কে প্রেরণ করা হবে যাতে প্রয়োজনীয় তথ্য প্রাপ্ত হন এবং যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সক্ষম হন।এ প্রসঙ্গে আরও উল্লেখ্য,গোদাগারী, পশ্চিম অঞ্চলের স্বাধীন এলাকাজুড়ে মৎস্য ঘের যোগাযোগ ব্যবস্থার সমস্যা জনিত কারণে ইতিমধ্যে লিজ দেয়া হয়েছে এখানে অবস্থিত কেন্দ্রীয় সদরদপ্তর হতে ।

এটি সুনির্দিষ্টভাবে পশ্চিম অঞ্চলের আঞ্চলিক প্রশাসন অফিসার এর জ্ঞাতার্থে প্রেরিত। যদি এই অঞ্চলের মৎস্য ঘের হতে নিলামে মৎস্য রপ্তানি করা হয়,তবে উপরে উল্লেখিত হারে যথাবিহিত মাশুল পরিশোধ করতে হবে।

 

(এম. কে. চৌধুরী)

মেমো নং… ………… সেপ্টেম্বর ১৮,১৯৭১

 

কপি প্রেরণ করা হয়েছে-

১.সচিব, সাধারণ প্রশাসন বিভাগ,অনুরোধ করা হচ্ছে যে,আমাদের

মেমো নং অর্থ/১৪/৭১/১৭২/১/(৫) তাং-৯/৯/৭১ অনুসারে অতিসত্বর

প্রশাসনিক কাঠামো চূড়ান্তকরণে যেন আন্তরিক পদক্ষেপ নেয়া হয়।

২.সচিব, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, জ্ঞাতার্থে

৩.সচিব, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়

৪.আই জি,পুলিশ

৫.পি এস,অর্থ মন্ত্রণালয়

৬.ট্রেজারি অফিসার,অর্থ