দিল্লীতে আয়োজিত বাংলাদেশ প্রশ্নে আন্তর্জাতিক সেমিনার উপলক্ষে বাংলাদেশ মিশনে অনুষ্ঠিত সভার বিবরণী

Posted on Posted in 4

<৪,২২৩,৪৯৩-৪৯৫>

অনুবাদকঃ মাহীন বারী

শিরোনামসুত্রতারিখ
২২৩। দিল্লীতে আয়োজিত বাংলাদেশ প্রশ্নে আন্তর্জাতিক সেমিনার উপলক্ষে বাংলাদেশ মিশনে অনুষ্ঠিত সভার বিবরণীসরকারী দলিল২০ জুলাই, ১৯৭১

 

বাংলাদেশ মিশনের হলরুমে আয়োজিত ২০ জুলাই, ১৯৭১ এর মিটিং এর সাথে সম্পর্কিত ১৪-১৬ আগস্ট, ১৯৭১ এ নয়া দিল্লীতে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক সেমিনার এর মুহূর্ত সমূহ

 

নিম্ন উল্লেখিত সম্মানিত ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেনঃ

১/ প্রফেসর সৈয়দ আলী আহসান

২/ ডঃ আনিসুজ্জামান

৩/ জনাব মতিলাল পল

৪/ ডঃ কে এস মুরশেদ

৫/ ডঃ বেলায়েত হোসেন

৬/ জনাব আলী আনোয়ার

৭/ জনাব মউদুদ আহমদ

৮/ জনাব আর আই চৌধুরী , ফার্স্ট সেক্রেটারি, বাংলাদেশ মিশন ইন চেয়ার

 

সেমিনার সম্পর্কিত সকল প্রাসঙ্গিগ বিষয় নিরীক্ষা করাবার পর এই মর্মে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে যে নিম্নোক্ত বিষয় সম্পর্কে আমাদের পক্ষ হতে যাকে যে বিষয় দেয়া হয়েছে তাদের দ্বারা কাগজপত্র তৈরি করতে হবে

(ক) “বাংলাদেশ এর বর্তমান অবস্থার ক্রমানুযায়ী বিশেষ বিশেষ ঘটনা”: এই বিষয়ে কাগজ পত্র ইতোমধ্যে তৈরি হয়ে গেছে এবং লিপিবদ্ধকরন ও চূড়ান্ত করণের জন্য প্রফেসর সৈয়দ আহসান আলী কর্তৃক জনাব মউদুদ আহমদকে দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে।

(খ) “বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সক্ষমতা”ঃ অর্থনীতিবিদ জনাব মতিলাল পল এই বিষয়ে কাগজ পত্র তৈরি করে ফেলেছেন।

(গ) “বাংলাদেশে গণহত্যা”ঃ জনাব সাদেক খান ইতোমধ্যে এই বিষয়ে কাজ আরম্ভ করেছেন। তাঁকে এই বিষয়ে কাগজ পত্র প্রস্তুত করবার জন্যে অনুরোধ জ্ঞাপন করা যেতে পারে।

(ঘ) “বাংলাদেশ হতে ভারতে শরণার্থী গমন এবং তার জনহিতকর সমস্যা” ঃ ডঃ স্বদেশ বস অন্যথায় ডঃ মশারফ হোসেন এই ব্যাপারে কাগজ পত্র তৈরি করবেন।

(ঙ) “আন্তর্জাতিক আইন ও রাজনীতির দিক হতে স্বাধীন বাংলাদেশ ও আওয়ামী লীগ সরকারের বৈধতা” ঃ কলকাতা হাইকোর্ট এর বিশিষ্ট ব্যারিস্টার জনাব সুব্রত রায় চৌধুরী ইতোমধ্যে এই বিষয়ে কাজ করছেন। তাঁকে এই ব্যাপারে কাগজ পত্র তৈরি করতে অনুরোধ জানানো হবে।

(চ) “বাংলাদেশের রাজনৈতিক পটভূমি” (অর্থনৈতিক নৈরাজ্য, সাংস্কৃতিক আক্রমণ প্রভৃতি হতে আরম্ভ করে অতীত হতে বর্তমান পর্যন্ত সকল পটভূমি আলোচিত হবে) ঃ ডঃ এ আর মল্লিক ইতোমধ্যে এই বিষয়ে কাগজ পত্র তৈরি করবার দায়িত্ব নিয়েছেন।

(ছ) “বর্তমান আন্তর্জাতিক আইন কানুন অনুযায়ী বাংলাদেশের স্বীকৃতিলাভ” ঃ জনাব মউদুদ আহমদ এই বিষয়ে কাগজ পত্র তৈরি করবেন।

(জ) “বাঙ্গালী জাতীয়তাবাদের ধর্ম” ঃ ডঃ কে এস মুরশেদ এই বিষয়ে কাগজ পত্র তৈরি করবেন।

(ঝ) “স্বাধীনতা দাবী বিষয়ক সকল তাৎক্ষণিক তথ্যাবলী সম্বলিত প্রমাণাদি” ঃ মার্চ ১৯৬৯ হতে এপ্রিল ১৯৭১ পর্যন্ত প্রাপ্ত তথাবলী দিয়ে ইতোমধ্যে একটি ভালো সংগ্রহ তৈরি করা হয়েছে। সংগ্রহটি ইতোমধ্যে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক অনুমোদিত হয়েছে এবং তা ছাপানোর জন্য ছাপাখানায় প্রেরণ করা হয়েছে। সুতরাং, এটিকে এই বিষয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।

যাদেরকে যে বিষয়ে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে তাদেরকে কাজের অগ্রগতি সম্বন্ধে জানাতে বলা হচ্ছে যাতে করে ৩১ জুলাই এর মধ্যে সকল কাগজপত্রের চূড়ান্তকরণ ও ছাপানোর প্রক্রিয়া শেষ করে আনা যায়।

এই সম্পর্কে বর্তমানে উপস্থিত সকলে একটি বিষয়ে একমত যে কাজগুলোর ফলে এমন কিছু সাহিত্যকর্ম উঠে আসবে যা ভবিষ্যতে অনেক কাজে লাগবে।

 

২/ সর্বশেষ মিটিং এর পরিপ্রেক্ষিতে ডঃ এ আর মল্লিক ২০ জনের একটি তালিকা দিয়েছেন। তালিকাটি বর্তমানে পুনর্বিবেচনা করা হয়েছে গ্রহণযোগ্যতা ও প্রয়োজনীয়তা অনুসারে। দেখা যাচ্ছে যে যারা অংশগ্রহণ করছে তারা হয় কাগজপত্র পরবেন না হয় সুচারুভাবে লবিং করবেন। ২০জনের মধ্যে ১০জন চূড়ান্তভাবে গৃহীত হয়েছেন।

ক) ডঃ এ আর মল্লিক

খ) প্রফেসর সৈয়দ আলী আহসান

গ) ডঃ কে এস মুরশেদ

ঘ) ডঃ স্বদেশ বোস, অর্থনীতিবিদ

ঙ) ডঃ এ এ জেড আহমদ, চিকিৎসক

চ) ডঃ মতিলাল পল, অর্থনীতিবিদ

ছ) জনাব ওসমান জামাল, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

জ) জনাব সাদেক খান, সাংবাদিক

ঝ) জনাব মউদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার ইন ল

ঞ) জনাব আলমগির কবীর, সাংবাদিক

 

৩/ মিটিং এ পার্লামেন্ট এর সদস্য নির্বাচনে সমস্যার সম্মুখীন হয় কেননা প্রবাসী অফিস কর্তৃক সঠিক কর্তৃপক্ষের সাথে বসে সঠিক তালিকা প্রস্তুত সম্ভব হয়নি। কিন্তু কিছু সদস্য কিছু নাম প্রস্তাব করেছে যা নিম্নে দেয়া হলঃ

ক) জনাব আব্দুল মুন্তাকিম চৌধুরী, এম এন এ

খ) জনাব আমিরুল ইসলাম, এম এন এ

গ) জনাব এম এ সুলতান, এম এন এ

ঘ) জনাব এম এ খায়ের, এম এন এ

ঙ) জনাব তাহেরুদ্দিন ঠাকুর, এম এন এ

 

৪/ যেহেতু কনফারেন্স কর্তৃপক্ষের কিছু শিল্পী প্রয়োজন তাই নিম্নোক্ত নামগুলো প্রস্তাব করা হলঃ

ক) মিসেস সানজিদা খাতুন

খ) মিস কল্যাণী ঘোষ

গ) জনাব সমর দাশ

ঘ) জনাব আব্দুল জব্বার

ঙ) জনাব আপেল মাহমুদ

সব মিলিয়ে ২০টি নাম প্রস্তাব করা হয়েছিল। এরমধ্যে এই ৫তি নাম আমরা প্রস্তাব করছি।

৫/ আরও প্রস্তাব করা হয়েছিল যে, কনফারেন্স কর্তৃপক্ষকে যথাযথ নিয়মতান্ত্রিক দাওয়াতপত্র পাঠাবার জন্য এবং যাতায়াত, বাসস্থান ও অন্যান্য খরচাপাতি সম্পর্কে অনুসন্ধান করবার জন্য।

যখন বাংলাদেশ মিশনের ফার্স্ট সেক্রেটারির নিকট সকল কাগজপত্র পৌঁছাবে, ছাপানো অঙ্কানুজায়ী একটি বাজেট প্রণয়ন করা হবে। তাছাড়া, এই সকল কাগজ পত্র অস্থায়ীভাবে ছাপানো হবে।

 

নং বি ৫/৮০/৭১, ডিটি ২১.৭.৭১                                 (আর আই চৌধুরী)

                                                         ফার্স্ট সেক্রেটারি

 

কপি পাঠানো হয়েছে প্রফেসর সৈয়দ আলী আহসান এর নিকট, ৪/১, পাম এভিনিউ, কলকাতা – ১৬

 

তাঁকে অনুরোধ করা হয়েছে যে “বাংলাদেশ এর বর্তমান অবস্থার ক্রমানুযায়ী বিশেষ বিশেষ ঘটনা” শীর্ষক রচনা যা তাঁর দ্বারা রচিত দয়া করে ৩১ আগস্ট, ১৯৭১ এর মধ্যে স্বাক্ষর করে পাঠিয়ে দিতে যেন তা যথাসময়ে ছাপানো সম্ভবপর হয়।

                                                      (আর আই চৌধুরী)

                                                        ফার্স্ট সেক্রেটারি