দিল্লীর প্রতি পাকিস্তানের বিনা উস্কানিতে সশস্ত্র সংঘর্ষের হুমকির প্রতিবাদ

Posted on Posted in 7

৭.৩১.৭৩

শিরোনামসূত্রতারিখ
৩১। দিল্লীর প্রতি পাকিস্তানের বিনা উস্কানিতে সশস্ত্র সংঘর্ষের হুমকীর প্রতিবাদপাকিস্তান ওয়াশিংটনের পাকিস্তান দূতাবাস প্রকাশিত সংবাদ বুলেটিনঃ ১ জুন, ১৯৭১২৫ মে, ১৯৭১

 

দিল্লীর প্রতি তীব্র প্রতিবাদ

 

ইসলামাবাদ, মে ২৫: ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী শ্রীমতী ইন্দিরা গান্ধীর দেয়া এইদেশের সাথে অস্ত্র যুদ্ধের “বিনা উস্কানিতে হুমকি” এর জন্যে পাকিস্তান কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে  এবং নতুন দিল্লিকে এই ধরনের ভয়ানক পদক্ষেপ থেকে বিরত থাকতে বলেছে।

 

গতকাল ভারতীয় হাই কমিশনকে উদ্দেশ্য করে একটি স্মারকলিপিতে বলা হয়েছে যে ভারতের লক্ষ্য ছিল পাকিস্তানের সাথে সংঘর্ষমূলক একটি অবস্থার সৃষ্টি করা যাতে সে নিজের অশুভ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারে।

 

আজকের প্রেসে যে স্মারকলিপি প্রকাশিত হয়েছে তাতে বলা হয়েছে: পাকিস্তান রাষ্ট্রের মানচিত্রগত সংহতি নষ্ট করার পরিষ্কার উদ্দেশ্য নিয়ে কিছুদিন ধরে ভারত সুকৌশলে পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করে যাচ্ছে । পূর্ব পাকিস্তানে উত্তেজনা সৃষ্টি এবং রাষ্ট্র বিরুদ্ধ কার্যক্রমে সাহায্য জোগাতে ভারত অস্ত্রধারী অনুপ্রবেশকারী পাঠিয়েছে। এটি রাষ্ট্রীয় বেতার এবং খবরের কাগজের মাধ্যমে পূর্ব পাকিস্তানের মিথ্যা ও অতিশয়  বিকৃত ও উদ্দেশ্যমূলক নানান ঘটনা প্রচার করছে। সে তার মাটিতে শুধুমাত্র রাষ্ট্র বিরোধী উপাদানেরই স্থান দেয়নি, তথাকথিত “বাংলাদেশ সরকার” এর সদস্যদের অবিরত তার বেতার এবং অন্যান্য গণমাধ্যমগুলো ব্যবহার করার অনুমতি দিয়েছে যাতে দেশের বৈধ সরকারের বিরুদ্ধে বিদ্রোহের আলোড়ন জাগাতে পারে। এই সকল ঘটনা পাকিস্তান সরকারের দ্বারা ভারতীয় সরকারের নজরে আনা হয়েছে বিভিন্ন সময়ে বারবার। দুর্ভাগ্যবশত, এই সকল কর্মকান্ড বন্ধ না করে বরং ভারত সরকার তার ভয়ানক নীতি অব্যাহত রেখেছে।

 

ভারতীয় লক্ষ্য

 

এটি খুবই স্পষ্ট যে ভারতীয় লক্ষ্য পাকিস্তানের সাথে সংঘর্ষ অবস্থা সৃষ্টি করা যাতে সে তার অশুভ রূপরেখা বাস্তবায়ন করতে পারে। এই প্রেক্ষাপটে, মে ১৯, ১৯৭১ এ রানী-ক্ষেতে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী একরকম পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হুমকি দিয়েছেন। তিনি বলেছেন যে ভারত “লড়াইয়ের জন্য সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত (পাকিস্তানের বিপক্ষে), যা বিশেষ গুরুত্ব ধারণ করে।

 

পাকিস্তান সরকার ভারতীয় প্রধানমমন্ত্রীর পাকিস্তানের সাথে অস্ত্রযুদ্ধের এই অনর্থক হুমকির তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছে। পাকিস্তান সরকার আশা করছে যে ভারতীয় সরকার এরকম নীতির ফলাফল উপলব্ধি করবে। উপমহাদেশের শান্তি ও স্থিরতার স্বার্থে এবং দুই দেশের মানুষের কল্যাণে ভারত সরকারকে এরকম ভয়ংকর  কার্যধারা থেকে বিরতি ঘোষণা করা উচিৎ।

 

নিবেদক

পাকিস্তান দূতাবাস

ওয়াশিংটন ডি. সি.  ২০০০৮