প্রবাসী বাঙালিদের তৎপরতার উপর ভিত্তি করে “আমরা” গোষ্ঠী কর্তৃক প্রেরিত একটি প্রতিবেদন

Posted on Posted in 4

<৪,১৭৭,৩৫৪-৩৫৫>

অনুবাদকঃ মুশাররাত আলম মৌ

শিরোনামসূত্রতারিখ
১৭৭। প্রবাসী বাঙালিদের তৎপরতার উপর ভিত্তি করে “আমরা” গোষ্ঠী কর্তৃক প্রেরিত একটি প্রতিবেদন“আমরা”১৩ জুন, ১৯৭১

জাকার্তা 

১৩-৬-৭১

১। শরনার্থী সমস্যা নিয়ে ইউ থ এর মতামত এবং তার সহায়তার আবেদন গণমাধ্যমে ব্যাপক ভাবে প্রচারিত হয়েছে।রেডিও এবং টিভি এই কর্মসুচিতে যুক্ত আছে। শরনার্থীদের সঙ্কটাপন্ন অবস্থা টিভিতে প্রচারিত হয়েছে। এটি পাকিস্তানীদের যথেষ্ট বিব্রতকর অবস্থায় ফেলেছিল এবং পাকিস্তানীদের উদ্দেশ্য সফল করার যে প্রচেষ্টা তার বিপক্ষে ছিল।

২। শরনার্থী সমস্যা মুক্তিসেনাদের যুদ্ধের প্রতিবেদনকে অনেকটা আড়াল করে দিয়েছে। তবুও ৩০০ পাকিস্তানী সৈন্যকে হত্যার প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। পুর্ব পাকিস্তানের যে কোন জায়গায় অবস্থিত বাংলাদেশ সদর দপ্তর থেকে এই সংবাদ আনিয়ারা প্রতিবেদক কর্তৃক প্রেরিত হয়েছে যাতে উদ্ধৃত করা হয়েছে।

৩। আইপিইসিসি এর ভবিষ্যৎ ধূসর মনে হচ্ছে। গত সভায় পাকিস্তানের আগ্রহ এটিকে জিইয়ে রেখেছিল। পাকিস্তান এই শাখা চালানোর সকল খরচ বহনের প্রতিজ্ঞা করেছে। জনাব সানাউল্লা এর সাথে যিনি ১ মার্চ বদলি হয়েছেন এবং আরেকজন রঙ এলাহি খুব অল্প সময়ের মধ্যেই বদলি হওয়ায় ধারণা করা হচ্ছে যে  এসও পদে পরবর্তী সময়ে বিকল্প কিছুর কোন সম্ভাবনা নেই। সানাউল্লাহ চিঠি পেয়েছেন। তিনি পরবর্তী কার্যাবলি কি হবে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন। আইপিসিসি তার গুরুত্ব ও উদ্দেশ্য হারিয়ে ফেলেছে। এ আজিজ একজন সার্বজনীন অতিথি যিনি পাঞ্জাবিদের যে কোন সভা ও মিলাদে উপস্থিত থাকেন।

৪। পাকিস্তানে উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনার জন্য  সহায়তা ও ঋণ দেয়ার জন্য ব্রিটিশদের অভিপ্রায়ের প্রতিবেদন আন্তারা, জাকার্তা ও স্ট্রেইটস টাইমস, সিঙ্গাপুরে প্রকাশিত হয়েছে।এই সহায়তা ও ঋনের ব্যাপারে প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছিলযুদ্ধের পুর্বেই।

৫। ইসলামাবাদে তথ্য মন্ত্রনালয়ের দুইজন তথ্য সহকারীকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। এই সংবাদ অন্যান্য বাঙালিদের মনে ভয়ের সৃষ্টি করেছে। অন্যান্য মন্ত্রণালয়গুলো থেকেও আরও অব্যাহতির বিশ্বাসযোগ্য গুজব শোনা গেছে। যতক্ষণ নাপি আই এ এর অধিকর্তারা সততা ও বিশ্বাসযোগ্যতার সনদপত্র না দিচ্ছেনততক্ষণ পর্যন্ত বাঙালিরা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলতে পারবে না। কিছু ক্ষেত্রে টি এ ব্যাতিত ছুটি মঞ্জুর করা হচ্ছে । যদিও অনেক ক্ষেত্রে ছুটির আবেদন প্রত্যাখান করা হচ্ছে। এটা করা হচ্ছে তাদেরকে বন্দী করা রাখতে এবং বাংলাদেশে তাদের প্রবেশ ঠেকাতে।

৬। ভারতের দিক থেকে সম্ভাব্য আক্রমনের জন্যপাকিস্তান সৈন্যবাহিনীর সদর দপ্তর সতর্কতা জারি করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে।তারা এই ধরনের কোন কিছুর আশঙ্কা করছে এবং এই পথে তাদের প্রচারনা চালিত করছে।

৭। ধরা পড়া শত্রুদের ছবি এখানের সংবাদমাধ্যমে পাঠানো হয়ে থাকতে পারে।

৮।সরকার বৈদেশিক ঋণের বোঝাকে লাঘব করার জন্য পাকিস্তানে আয়ের ২০ শতাংশ প্রদানের সিদ্ধান্ত জুন থেকে কার্যকর করেছে।

৯। খবর পাওয়া গেছে যে দিল্লিতে বাংলাদেশের পক্ষে সমর্থনের দাবীতে ইন্দোনেশিয়া ও ব্রিটিশ দুতাবাসের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করা হয়েছে।

১০। রেডিও পাকিস্তান ইন্দোনেশিয়ান ভাষায় সংবাদ ও প্রচারণা চালানোর জন্য আরও সময় বরাদ্দ করেছে। এটি বৈকালিক পর্যবেক্ষন সময়কে কমিয়ে দিয়েছে।

১১। প্রতিবেদন অনুযায়ী মাওলানা মউদুদি সকল মুসলিম রাষ্ট্র প্রধানদের কাছে চিঠি লিখেছেন। তার ভাষ্যমতে, পুর্ব পাকিস্তানের অধিকাংশ শিক্ষক এবং অধ্যাপক হলেন হিন্দু এবং ছাত্রদের হিন্দুদের দ্বারা লিখিত বই পড়ানো হচ্ছে এবং তারা হিন্দুনীতি ও ভাবনা দ্বারা প্রভাবিতহচ্ছে। বাস্তবিকভাবে সেখানেমুসলিমতারা শুধুনা মে,কর্মে নয়।

১২।জনাব স্বরনসিং এর মস্কো, প্যারিস এবং জার্মানি ভ্রমণ স্থানীয় ও বৈদেশিক ভাষার সংবাদপত্র গুলোতে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। প্রতিবেদন অনুসারে, সংবাদমাধ্যম ও নেতাদের সাথে তার সাক্ষাৎকার ও বক্তৃতাগুলো উৎসাহব্যঞ্জক ছিল।

১৩। কসিজিং এর ইসলামাবাদ ও দিল্লি ভ্রমণ এবং দুতাবাসের জনবলের পুনঃবিভক্তির ব্যাপারে আলাপ এর গুজব ছড়ানো হয়েছিল যা এখানে প্রকাশিত হয়েছে।

১৪। আসন্ন সাধারণ নির্বাচনে তাদের নিজস্ব রাজনৈতিক স্বার্থ হারানোর ভয়ে, সহানুভূতিশীল নেতারা বাংলাদেশের ঘটনায় সরকারের ঔদাসিন্যের কোন গুরুতর সমালোচনা করছেন না।

১৫। সম্পাদক ও অন্যান্যদের কাছে প্রেরিত ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপক পত্র আমাদের স্বার্থ প্রচারে সহায়তা করবে। তারা ইতোমধ্যেই অমুল্য সেবা প্রদান করেছেন। তাদের কাছে নিয়মিত প্রকাশের জন্য উপাদান প্রদান করা যেতে পারে।

১৬। এই সরকার  বাংলাদেশের ব্যাপারে কোন হস্তক্ষেপ করছে না কিন্তু তারা এখনও সংবাদমাধ্যমের উপর কোন বিধিনিষেধ প্রয়োগ করে নি। এটিকে বলা যেতে পারে আমাদের অবস্থানের আংশিক স্বীকৃতি।

১৭। আমাদের কাছে উপাদান ও নির্দেশনার সীমাবদ্ধতা আছে। এর পুর্বে আমারা আবেদন করেছিলাম।

১৮। নিবন্ধিত চিঠিপত্র বেসরকারি ঠিকানাগুলোতে পাঠানো হয়নি। অনুগ্রহপুর্বক সাধারণ ডাকে যোগাযোগ রক্ষা করুন।

১৯। আন্তারায় প্রকাশিত একটি খবরে বলা হয়েছে যে, বাকি সকলের মধ্যে ইপিআর ও পুলিশের ২০০০ বিদ্রোহী টিক্কা খানের ডাকে আত্মসমর্পন করেছে এবং ৫০০০ শরনার্থী পুর্ব পাকিস্তানে ফিরে গেছে। কলকাতার আন্তারা প্রতিনিধি এই প্রতিবেদন তৈরি করেছেন।

২০। লন্ডনটাইমস একটি খবর প্রকাশ করেছে যে,  ৫০টি ভারতীয় ক্যাম্পে মুক্তিসেনাদের প্রশিক্ষন দেয়া হচ্ছে।

২১। পশ্চিম বাংলায় স্থানীয় ও শরনার্থীদের মধ্যে গভীর অসন্তোষের খবর প্রকাশিত হয়েছে। প্রায় আসন্নএকটি দাঙ্গার পরিস্থিতি স্থানীয় কর্তৃপক্ষ সামলে নিয়েছেন।

২২। জনাব শার্প এবং ইসমত কিত্তানির পাকিস্তান সরকারের সাথে আলোচনার খবর প্রকাশিত হয়েছে। তারা বলেছেন যে, আলোচনা ফলপ্রসূ ছিল। পাকিস্তান সহায়ক ভুমিকায় আছে এবং পুর্ব পাকিস্তানে ত্রাণ দ্রব্য বিতরণ স্থানীয় প্রশাসন করবে যা জাতিসংঘ প্রতিনিধিদল তত্ত্বাবধান করবে। ত্রান বিতরনের জন্যজাতিসংঘ বৃহত্তর জনশক্তির বাহিনী সরবরাহ করতে পারবে না।