বাংলাদেশের পাঁচটি রাজনৈতিক দল সমবায়ে ৮ সদস্যের উপদেষ্টা কমিটি গঠন সংক্রান্ত তথ্য-৯ সেপটম্বর

Posted on Posted in 3
শিরোনামসুত্রতারিখ
বাংলাদেশের পাঁচটি রাজনৈতিক দল সমন্বয়ে ৮ সদস্যের উপদেষ্টা কমিটি গঠন সংক্রান্ত তথ্য-৯ সেপ্টেম্বর . .এশিয়ান রেকর্ডার অক্টোবর ১-৭, ১৯৭১ . .৯ সেপ্টেম্বর, ১৯৭১ . .

 

বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ পর্ষদ গঠিত হয়েছে: স্বাধীনতা সংগ্রাম পরিচালনা করার জন্য ৯ সেপ্টেম্বর পাঁচটি প্রধান রাজনৈতিক দলের সমন্বয়ে গঠন করা হয়েছিলো একটি গণতান্ত্রিক পর্ষদ। মুক্তিবাহিনীকে দিকনির্দেশনা প্রদান করতে এবং বাংলাদেশ সরকারকে পরামর্শ দান করতে পরামর্শক হিসেবে আট সদস্য বিশিষ্ট একটি উপদেষ্টা কমিটি গঠিত হয়েছে। দল সমূহের নেতৃবর্গের দুই-দিনের সভা শেষে ঘোষণা করা হয়েছিলো মুক্তিযুদ্ধ-পর্ষদ, সে সভাটি পরিচালিত হয়েছিলো প্রধানমন্ত্রী জনাব তাজউদ্দীন আহমেদ কর্তৃক। যে সকল দল নিয়ে মুক্তিযুদ্ধ-পর্ষদ গঠিত হয়েছিলো, সে দল সমূহ ছিলো:- আওয়ামী লীগ, ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ভাসানী গ্রুপ), ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (মোজাফফর গ্রুপ), বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি ও বাংলাদেশ ন্যাশনাল কংগ্রেস। বাংলাদেশ সরকারের মুখপাত্র জানান, যে কমিটির গঠনটি অবশ্যই নিশ্চিত করবে “বাংলাদেশের ঔপনিবেশিক এবং সাম্রাজ্যবাদী শোষকদের” বিনাশে সক্রিয়ভাবে যুদ্ধ করে সকল সম্প্রদায়ের জনগনের মধ্যে স্বাধীনতা সংগ্রামে যোগদানের। এতে আরো যোগকরা হয় যে:- “কমিটির গঠনের দ্বারা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার, আওয়ামীলীগ এবং শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে আস্থাবান মুক্তিকামী জনসাধারণের মধ্যে একতার প্রতিফলন ঘটানো। সভায় বাংলাদেশ সরকারকে তাৎক্ষণিকভাবে স্বীকৃতি প্রদানের জন্য ভারত সহ বিশ্বের সকল দেশের প্রতি আহবান জানানোর সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এছাড়াও সভায় যুদ্ধোপকরণাদি আকারে অস্ত্রশস্ত্র প্রদান করে মুক্তিবাহিনী ও বাংলাদেশ সরকারের প্রতি “সক্রিয় সহযোগিতা” প্রদান করতে তাদের প্রতি আকুল-আবেদনও জানানো হয়।