বাংলাদেশ স্টিয়ারিং কমিটির আহ্বায়কের কাছে লিখিত বৃটিশ পরিবেশ নিয়ন্ত্রন বিভাগের একটি চিঠি

Posted on Posted in 4

<৪,৯৮,১৭১>

অনুবাদকঃ তানভীর আহমেদ রিশাত

শিরোনামসূত্রতারিখ
৯৮। বাংলাদেশ স্টিয়ারিং কমিটির আহ্বায়কের কাছে লিখিত বৃটিশ পরিবেশ নিয়ন্ত্রন বিভাগের একটি চিঠিবাংলাদেশ স্টিয়ারিং কমিটি, লন্ডুন২৯ অক্টোবর, ১৯৭১

 

 

পরিবেশ অধিদপ্তর

রয়্যাল পার্ক ডিভিশন

              গেউড হাউস (৬ষ্ঠ তলা), ২৯ গ্রেট পিটার স্ট্রিট লন্ডন এস অব্লিউ ১ পি/৩এল ডব্লিউ

                           টেলিফোনঃ ০১-৭৯৯ ৭৫৩৩ এক্সঃ ৩৯৮

এ এইচ ভুঁইয়া আইনজীবী                                                     আপনার রেফারেন্স –

আহ্বায়ক                                                             আমাদের রেফারেন্স: এএল ১০৩/৩

বাংলাদেশ পরিচালনা সংসদ                                            

১১,  গোরিং স্ট্রিট

লন্ডন ইসি ৩                                                                তাং- ২৯ অক্টোবর, ১৯৭১

 

জনাব,

১. আমি আপনাকে আমাদের ২৮ অক্টোবর, ১৯৭১, বৃহস্পতিবার টেলিফোনে কথোপকথনের কথা স্মরণ করিয়ে দিতে চাই এবং জানাতে চাই যে, আগামী রবিবার, ৩১ অক্টোবর, ১৯৭১ দুপুর ১.৩০ হতে ২.৩০ পর্যন্ত হাইড পার্কের কোমার এরিয়াতে ক্ল্যারিজেস অভিমুখী আপনার সংস্থাটির মার্চ করার অনুমতি মিলেছে। এ ব্যবস্থা বিশেষভাবে আগেই নেয়া হয়েছে লরিতে করে অস্ত্রসামগ্রী পাঠিয়ে দেয়ার মাধ্যমে, যাতে করে বিপুল পরিমাণ জনতাকে সামলে রাখতে কোন অসুবিধা না হয়। 

শব্দের ভলিউম অবশ্যই কঠোরভাবে কিন্তু এমনভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে, যেন বক্তার কথা শুনতে উপস্থিত জনতার কোন সমস্যা না হয় এবং যখন আপনাদের বাহনটি র‍্যালির অভ্যন্তরে থাকবে তখন সকলপ্রকার চিহ্ন বা বিজ্ঞাপন ঢেকে রাখা হবে এবং আপনাদের কাজে যেসব যন্ত্রপাতি লাগছে তার উতপাদকের কোন প্রকার রেফারেন্স রাখা হবে না।

২. এই অনুমতি নিম্নলিখিত শর্তাবলীর উপর ভিত্তি করে দেয়া হয়েছে:

ক) লরি প্রবেশের সকল ব্যবস্থা, মিটিং এর প্রস্তাবিত স্থান, প্রবেশ ও প্রস্থানের পথের বিষয়ে আগেই হাইড পার্ক পুলিশ ইন্সপেক্টর (টেলিফোন – ৭২৩ ৮২৭৪)-এর অনুমতি নিয়ে রাখতে হবে। 

খ) পার্কে বেড়াতে আসা দর্শনার্থীদের যেন কোনরকম বিরক্তি বা প্রতিবন্ধকতা ভোগ করতে না হয় এবং যাবার সময় পার্ককে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন অবস্থায় রেখে যেতে হবে এবং পার্কের ব্যবহারের কারণে ডিপার্টমেন্টের কোন সম্পত্তির ক্ষতিসাধন হলে উপযুক্ত (কিংবা ডিপার্টমেন্টের দাবি অনুযায়ী) ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

গ) পার্ক ব্যবহারের কারণে কারও ব্যক্তিগত আঘাতপ্রাপ্তি (মৃত্যুসহ) বা সম্পত্তির ক্ষতি সাধিত হলে আপনাকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। 

ঘ) পুলিশ কিংবা পার্ক কর্তৃপক্ষের যেকোন নির্দেশ মেনে চলতে হবে।

ঙ) যেকোন ধরণের অর্থ, দান কিংবা চাঁদা গ্রহণ, প্রচারণাপত্র, লিফলেট, প্রোগ্রামার, সংবাদপত্র বা ওই ধরণের নিবন্ধের বেচাকেনা বা বিতরণ, ব্যানার কিংবা যেকোন ধরণের নোটিশ প্রদর্শন, অন্য যেকোন লিখিত বা আঁকা বিষয়াদির বিজ্ঞাপন ও যেকোন ধরণের বাদ্যযন্ত্র বাজানোর ক্ষেত্রে পার্কে নিষেধাজ্ঞা মানতে হবে। 

২। আপনার সদস্যদেরকে পার্কে ময়লা না ফেলার বিষয়ে অনুরোধ করলে আমরা কৃতজ্ঞ হব। মিটিং এ আসা লোকজনের ফেলা ময়লা পার্কের কর্মীদের সাধারণ ডিউটি ফেলে পরিষ্কার করতে আসার প্রয়োজন হলে আয়োজকদেরকে তার জন্য অর্থ পরিশোধ করতে হবে।

৩। এসব শর্তে আপনারা রাজি থাকলে আমরা খুশি হব।

৪। মেট্রোপোলিস পুলিশ কমিশনার ও হাইড পার্ক পুলিশ ইন্সপেক্টরকে এই চিঠির কপি পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

আপনার বিশ্বস্ত

স্বাক্ষরিত

 

জি আর হারট