বৃটিশ পররাষ্ট্র সচিব ডগলাস হিউম-এর মন্তব্য ও বাংলাদেশ পরিস্থিতি সম্পর্কে বিতর্ক

Posted on Posted in 13
শিরোনামসূত্রতারিখ
বৃটিশ পররাষ্ট্র ও কমনওয়েলথ বিষয়ক সচিব ডগলাস হিউম এর মন্তব্য এবং বাংলাদেশ পরিস্থিতি সম্পর্কে বিতর্ককমনস সভার কার্যবিবরনী২৩ মার্চ, ১৯৭১

 

বৈদেশিক ও কমনওয়েলথ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব (স্যার অ্যালেক ডগলাস হিউম) : Mr. Speaker, আপনার এবং house এর অনুমতিক্রমে, পাকিস্তানের অবস্থা নিয়ে একটা বিবৃতি দিতে চাই।

পাকিস্তানের ক্ষয়ক্ষতির জন্য আমরা শোকাহত। আশা করি অবস্থা স্বাভাবিক হবে। আমরা বুঝতে পারছি এটা পাকিস্তানের নিজস্ব ব্যাপার, তাই কোন রাজনৈতিক পক্ষ নেয়া হবে না। আপাতত নিরপেক্ষ থাকলেও পরিস্থিতিটা কড়া নজরে রাখা হবে এবং পাকিস্তান কর্তৃপক্ষের সাথে নিয়মিত তথ্য আদান প্রদান করে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখার চেষ্টা করছি আমরা।

একপক্ষ আগে, ঢাকার ডেপুটি হাই কমিশনারের আদেশে ২০০ জন ইউনাইটেড কিংডম এবং কমনওয়েলথ নারী এবং শিশুকে অপসরণ করা হয়েছিল পূর্ব পাকিস্তান থেকে। পাকিস্তানে বিশৃঙ্খলা চলাকালীন সময়ে কোন ব্রিটিশ নাগরিকের আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। ভাষণ দেয়ার সময় পূর্ব পাকিস্তানে নাগরিক ছিল ৭০০ জন। ২৫ শে মার্চে ঢাকার ব্রিটিশ কাউন্সিলের অফিস এবং লাইব্রেরী আক্রমণ করা হয়েছিল। কাউন্সিলের স্টাফ মেম্বার কেউ আহত হয়নি জানা গেলেও, ক্ষতির পরিমাণ এখনো জানা যায়নি। যেহেতু পাকিস্তানের সাথে আমাদের যোগাযোগ সীমিত, যথেষ্ট পরিমাণে তথ্য নেই। এ বিষয়ে আমি হাউজকে অবহিত করতে থাকব।

Mr. Healey: রিপোর্টটির জন্য ধন্যবাদ। আমরা সবাই শোকাহত। পরিস্থিতি বিবেচনা করলে পর্যাপ্ত তথ্য না থাকার জন্য কাউকে দোষ দেয়া যাবে না। আমরা বিশ্বাস করি যথেষ্ট পরিমাণে তথ্য গ্রহণসাধ্য হবার পর সে আরেকটি বিবৃতি দেবে।

House পূর্ব পাকিস্তানে অবস্থানরত ব্রিটিশ নাগরিকদের নিরাপত্তার ব্যাপারে চিন্তিত। একারণে Right. hon gentleman এর কাছে দুটো প্রশ্নের উত্তর আশা করবো। প্রথমত, সে কি জানে ব্রিটিশ কাউন্সিল অফিসের হামলার জন্য কারা দায়ী? এবং এই ক্ষতির ক্ষতিপূরণের কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে কি? দ্বিতীয়ত, তাকে পূর্ব পাকিস্তান কি সহায়তা করবে যদি আরো ব্রিটিশ নাগরিককে পূর্ব পাকিস্তান থেকে সরিয়ে আনতে হয়?

Sir Alec Doglus-Home: দ্বিতীয় প্রশ্নের উত্তর, হ্যা। কিন্তু ডেপুটী হাই কমিশনারের মতে আপাতত কোন নাগরিককে আনা উচিৎ হবে না। আক্রমণের জন্য দায়ী ছিল আর্মী। আমরা এটা পাকিস্তানের অথরিটির নজরে এনেছি এবং তাদের কাছে ক্ষতিপূরণ চেয়েছি।

Mr. Thorpe: আমরাও এই শোকটা অনুভব করি। কিন্তু পাকিস্তানের এই দুঃসময়ে একসাথে পাশে দাড়ানোই কমনওয়েলথের কর্তব্য যেমনটা বন্যার সময়ে করেছিল।

নাইজেরিয়া নামক আরেকটি দেশের গৃহযুদ্ধে এই দেশের সম্পৃক্ততার তিক্ত অভিজ্ঞতা থেকে পররাষ্ট্র সচিবের কাছে নিশ্চয়তা চাই; তাদের কোন পক্ষকেই আমদের সামরিক সহায়তা দেয়ার প্রশ্নও যেন না ওঠে। 

Sir Alec Doglus-Home: আমাদের এই ঘটনায় জড়ানোর কোন উদ্দেশ্য নেই। কারণ এটি পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। যেহেতু পাকিস্তানের সাথে কোন চুক্তি করা হয় নি, আপাতত অস্ত্র সরবরাহ করার প্রয়োজন হবে না বলে মনে হয়।

Sir F. Bennett: পাকিস্তান সরকারের অভ্যন্তরীণ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করার ইচ্ছে নেই জানতে পেরে আমি আনন্দিত, যা ব্যাপারটাকে আরো খারাপ দিকে নিয়ে যেতো। কিন্তু অন্য কোন দেশ যে হস্তক্ষেপ করার চিন্তা করছে না, এর কোন গ্যারান্টি আছে? কারণ ব্রিটেন ছাড়া যদি অন্য কোন দেশ হস্তক্ষেপ করে তাহলে অবস্থা আরো খারাপ হয়ে যেতে পারে।

Sir Alec Doglus-Home: আমি যতটুক জানি বাহিরের কোন দেশের যুদ্ধে হস্তক্ষেপ করার ইচ্ছে নেই।

Mr. Shore: এসব খুবই দুঃখজনক ঘটনা। পররাষ্ট্র সচিব কি পাকিস্তান সরকারকে তাদের পূর্ব পাকিস্তানের জনগণের উপর নির্দয় দমনমূলক কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে আমাদের হয়ে তীব্র নিন্দা আরোপ করবে? এবং এটাও কি জানিয়ে দিবে যে আমরা বলছি তাদের সৈন্যবাহিনী সরিয়ে নেয়া উচিৎ, হত্যাকাণ্ড বন্ধ করা উচিৎ, শেখ মুজিব এবং তার অনুসারীদের উপর নিপীড়ন বন্ধ করা উচিৎ? এছাড়াও মাননীয় সচিব তার ক্ষমতার সবটুকু দিয়ে পাকিস্তান সরকারের উপর বলপ্রয়োগ করবে যেন বাংলাকে তাদের নিজেদের ভবিষ্যত গড়ার অধিকার দেয়?

Sir Alec Doglus-Home: আমার মনে হয় না এই ব্যাপারে আমি মন্তব্য করলে কোন লাভ হবে। সবাই হিংস্রতা এড়িয়ে চলতে চায়। আর প্রেসিডেন্ট এই কাজ গুলো করছে পাকিস্তান বিভক্ত হওয়া থামানোর জন্য। আমাদের এই ব্যাপারে জড়ানো বা হস্তক্ষেপ করা উচিৎ হবে না।

Mr. wilkinson: পাকিস্তানের দুঃখজক পরিস্থিতির জন্য আমিও ক্ষোভ প্রকাশ করছি যাদের সাথে আমাদের ঐতিহাসিক সম্পর্কও আছে। আমার Right hon. friend পাকিস্তানে অবস্থানরত ৭০০ জন ব্রিটিশ নাগরিকের কথা যখন বলছে তার মাঝে কি ব্রিটিশ নাগরিকত্ব পাওয়া পাকিস্তানিরাও আছে? নাকি শুধু ব্রিটিশ? তাছাড়াও এদেশের সাথে সম্পর্কিত পাকিস্তানী নাগরিকদের নিরাপত্তার খোজ নেয়া উচিৎ।

Sir Alec Doglus-Home: ৭০০ জনের মাঝে পাকিস্তানীরা নেই। যেসময় আমরা ২০০ জনকে অপসরণ করেছিলাম, ডেপুটি হাই কমিশনার তাদের সকলের পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছিল। এমুহূর্তে যোগাযোগ সম্ভব হচ্ছে না। তবে কেউ যদি পাকিস্তান ত্যাগ করতে চায় তাদেরকে আনার ব্যবস্থা করা হবে।

Mr. Alexander W. Lyon: পূর্ব পাকিস্তান এবং Biafran এর অবস্থার পার্থক্য আছে। এটা চিন্তা করে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে যে অস্ত্র পাঠাবো কি পাঠাবো না?

Sir Alec Doglus-Home: ব্যাপারটা একটা আনুমানিক পরিস্থিতি যা আমাদের এখন বাদ দেয়া উচিৎ।

Mr. Judd: আমি Right. Hon gentleman এর সাথে একমত। আমাদের পাকিস্তানের এরকম ব্যক্তিগত ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করা থেকে বিরত থাকা উচিৎ। কিন্তু সে কি মানবে না যে পাকিস্তানের পরাজয়ের কারণ গুলোর একটি হলো পূর্ব পাকিস্তানে তুলনায় পশ্চিম পাকিস্তানের অর্থনৈতিক প্রচার অনুপযুক্ত হওয়া। এই civil সমস্যার সমাধান হলে আমাদের কি উচিত নয় পাকিস্তানকে অর্থনৈতিক সাহায্যের জন্য সর্বোপরি চেষ্টা করা?

Sir Alec Doglus-Home: অদ্ভুত ব্যাপারপটা হলো, প্রথম বারের মতো কোন পূর্ব পাকিস্তানী পাকিস্তানের সরকার হতে পারার পরও সুযোগ হাতছাড়া হয়েছে।