ভারতে জহীর রায়হান পরিচালিত একটি প্রামাণ্য চলচ্চিত্র প্রদশনের প্রতিবাদে অস্থায়ী রাষ্ট্রপতির কাছে লিখিত বাংলাদেশের চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিচালক ফজলুল হকের চিঠি

Posted on Posted in 3
শিরোনামসুত্রতারিখ
ভারতে জহির রায়হান পরিচালিত একটি প্রামাণ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে অস্থায়ী রাষ্ট্রপতির কাছে লিখিত বাংলাদেশের চলচ্চিত্র প্রযোজক-পরিচালক জনাব ফজলুল হক–এর চিঠিবাংলাদেশ সরকার

রাষ্ট্রপতির দফতর

১০ সেপ্টেম্বর ১৯৭১

 

জয় বাংলা                                                                                                                                                 বাংলাদেশ সরকার

                                                                                                                                                রাষ্ট্রপতির কার্যালয় ।

 

নথি নং পিএস/এসইসি/III/১১০, তারিখ ১০ ই সেপ্টেম্বর, ১৯৭১

 

বরাবর,

প্রধানমন্ত্রী,

বাংলাদেশ সরকার.

 

বিষয়: জনাব ফজলুল হক এর পত্র, জনাব জহির রায়হান প্রযোজিত একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী সংক্রান্ত.

 

অনুগ্রহ করে জনাব ফজলুল হক বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক ও পরিচালক এর পত্র গ্রহণ করবেন। ব্যাখ্যামূলক পত্রটি। জনাব ফজলুল হক কর্তৃক আরোপিত অভিযোগ সমূহে আপনি দৃষ্টিপাত করবেন এবং বিষয় যাচাই করে আমাদের স্বদেশের জন্য কল্যাণকামী সিদ্ধান্ত নিতে আমি আপনাকে অনুরোধ জানাচ্ছি। এই প্রেক্ষিতে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ পূর্বক যথাসময়ে আমার সমীপে পাঠাতে অনুরোধ করা হলো।

 

(সৈয়দ নজরুল ইসলাম)

ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রপতি.

 

সংযুক্তি: পত্রের অনুলিপি (১টি)

………………………………………………………..

 

জনাব,

একটি গুরুতর ব্যাপারের অবতারণা করছি, আমার বিশ্বাস এটি জাতীয় ক্ষেত্রেও অতীব গুরুত্বপূর্ণ, জনাব জহির রায়হান পরিচালিত একটি প্রামাণ্যচিত্র যা আজ একটি বেসরকারি প্রেক্ষাগৃহের প্রদর্শনীতে দেখেছি সে প্রসঙ্গ আপনার সম্মানে পেশ করছি। . এই প্রামাণ্যচিত্রটির অর্থায়ন করেছে পূর্বভারতীয় চলচিত্র সংস্থা এবং প্রযোজিত করেছে স্বাধীনবাংলা বিপ্লবী বুদ্ধিজীবী পরিষদের সাহায্য সমন্বয়ে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী ও কলাকুশলী সমিতি। এই প্রামাণ্যচিত্রটি ভারত সরকারের কাছে বিক্রি করা হবে ভারতের আভ্যন্তরীণ ও অন্যান্য বহিঃদেশ সমূহে প্রদর্শনীর জন্য। . তথ্যচিত্রটির প্রারাম্ভে ভ. ই. লেনিনের ছবি ও বাণীর সাথে ভারতে শরণার্থী আর আমাদের মুক্তিবাহিনীর ট্রেনিং ক্যাম্পের সামান্য অংশ দেখানো ছাড়া আর কিছু নেই। কিন্তু আমার মতে গুরুতর বিপত্তির বিষয় হচ্ছে যে, এতে একটিও বাণী বা ছবির উল্লেখ নেই আমাদের .

প্রাণপ্রিয় নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বা আওয়ামী লীগ এর কিংবা, ছয় দফার। . আমার বিশ্বাস যে যদি এই ছবিটি ভারতে বা বিদেশে দেখানো হয়, দর্শকদের বিশ্বাস জন্মাবে যে আমাদের স্বাধীনতা অন্য কিছুর নির্দেশ দ্বারা পরিচালিত এবং ৬দফায় নয় যা আমরা বিশ্বাস করি। . এই চলচ্চিত্রটি যদি কোনো ভারতীয় পরিচালক দ্বারা প্রযোজিত হতো আমরা আমাদের মতামত দিতাম না, কিন্তু যখন এটা বাংলাদেশের পরিচালক দ্বারা তৈরি তখন আর আমাদের চুপকরে বসে থাকার সুযোগ নেই। . আমি ব্যক্তিগতভাবে , এই চলচ্চিত্রটির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করছি এবং আমি অবিলম্বে ব্যবস্থা নিতে আপনার মাধ্যমে অনুরোধ করছি ভারত সরকারের দ্বারা সাধারণ জনগণের কাছে যাতে এই চলচ্চিত্র প্রদর্শনী থামানো হয়। . যদি তা না করা হয় , আমি একাই, একটি আন্দোলন শুরু করার জন্য প্রস্তুত আছি। . গভীরতম শুভেচ্ছা জানিয়ে,

 

স্বাঃ / ফজলুল হক

বাংলাদেশ এর চলচ্চিত্র প্রযোজক-পরিচালক .

C/o, মি. বিনয় রয় , ১১৪/এ , পার্ক স্ট্রীট,

কলকাতা ১৭ . .

 

রাষ্ট্রপতি ,

বাংলাদেশ সরকার

মুজিবনগর