যুদ্ধ পরিস্থিতি রিপোর্টঃ হিংগলগঞ্জ সাব সেক্টর

Posted on Posted in 11
শিরনামউৎসতারিখ
৩৬। যুদ্ধ পরিস্থিতি  রিপোর্ট

হিঙ্গলগঞ্জ সাব সেক্টর

৯ নং সেক্টরের দলিলপত্র১৯৭১

 

ট্রান্সলেটেড বাই: Razibul Bari Palash

<১১, ৩৬, ৪৭৮ – ৪৭৯>

 

ক্রমিক নং

 

তারিখ

সূত্র নম্বর 

তথ্য অন্তর্ভুক্তির তারিখ

 

ঘটনা
৭-৫-৭১৭-৫-৭১কালীগঞ্জ থানা সহ আমাদের বাহিনী  ৫ টি স্থান পরিবর্তন করে। এতে শত্রুদের অনেক হতাহত হয়। আমাদের কেউ হতাহত হয় নাই।
জি ১৩০৯০০

০০০৭

১৫-৫-৭১১। ১২১০৩০ টায় ৭০/৭৫ জন কালীগঞ্জ পৌঁছায়। কাকশিয়ালি নদী থেকে কালিগঞ্জ গ্রাম্য হাসপাতাল পর্যন্ত একটি বড় ও ১ টি ছোট লঞ্চ তাদের বহন করে। ছোটো টি ১২৩০ টায় ছাড়ে। একটি জীপ ও ২ টি ডজ সাতক্ষীরা কালিগঞ্জ রাস্তা দিয়ে সেখানে আসে।

২। ২ টি হেভি মেশিনগান লঞ্চে ছিল। ২ টি আর আর পাওয়া যায়। পারুলিয়া ব্রিজে ২ টি ডজ পাওয়া যায়। অকালাত মিয়া, মিলিশিয়া নেতা, ও সি কালীগঞ্জ থানা ও আব্দুল গাফফার সি ইউ সি কালীগঞ্জ শত্রুদের সাহায্য করে। কালীগঞ্জ বাজারে শত্রুরা কিছু হিন্দুদের দোকান লুট করে। সেখানে সাধারণের চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। সন্ধ্যা থেকে সকাল পর্যন্ত কারফিউ জারি করে।

জি ০০০৮

১৪০৯০০

১৫-৫-৭১১। ১৩১১৩০ টায় আরও শত্রু সৈন্য কালীগঞ্জে আসে। ৬ টি ট্রাক ৩ টি ডজ ও ৩ টি জীপে করে তারা আসে। স্থানীয়দের ভাষ্য মতে তাদের লোকবল প্রায় ৩০০ জন। সাধারণের চলাচল পুরো বন্ধ করে দেয়া হয়। কালীগঞ্জ ওয়াপদা অফিসে একটি গান বোট পাওয়া যায়। নদীর পাশ দিয়ে পাকা ডিফেন্স আছে।

২। উজিরপুর ও বন্তলা বাজার আগুনে পুড়িয়ে দেয়া হয় ও লুট করা হয়। নাকিপুর গ্রামের হিন্দু বাড়ি জ্বালিয়ে দেয়া হয়।

৩। পারুলিয়া বাজার আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয় ও লুট করা হয়। সেখানে শক্ত পাহারা  আছে।

৪। উজিরপুর আশাশুনি ও বরিগোয়ালিনিতে ৬ টি গান বোট আছে।

৫। ১৩১৩৩০ টায় পাকবাহিনী একটি শান্তি মিটিং এর ডাক দেয় এবং মুক্তিদের সহায়তাকারীদের সনাক্ত করতে বলে ও হিন্দুদের ভারতে চলে যেতে বাধ্য করে।

১৪-৫-৭১১৫-৫-৭১পাক আর্মি কালীগঞ্জ আসার পর থেকে এ সি বি এস এফ এর নির্দেশ মোতাবেক নিম্নোক্ত ব্যাবস্থা নেয়া হয়।

ক) উকশা এলাকার উল্টা দিকে হিঙ্গলগঞ্জ  থেকে বাকরা পর্যন্ত ২ টি বাহিনীকে কালিন্দী নদীর পাড় পাহারা দিতে পাঠানো হয়। 

খ) বসন্তপুরের উল্টা পাশে ৭ টি শত্রু অবস্থান বানানো হয়। 

গ) সাথে আর্মস ও এমও ছিল।

ঘ) দ্রুতগামী নৌযান ছাড়া বাংলাদেশের ভিতরে পেট্রোল করা সম্ভব না। এখানে কোন স্পিড বোট ছিলোনা। 

জি ০০০৯

১৫০৯০০

১৫-৫-৭১১৪-৫-৭১ তারিখে পরানপুর বি ও পি রিপেয়ার করা হয়। সকল বি ও পি ইস্ট পাকিস্তান সিভিল আর্ম ফোর্স কর্তৃক আয়ত্তে নেয়া হয়। বরিগোয়ালিনিতে গানবোটে মোবাইল পেট্রোল চালানো হয়। পাকা রাস্তা দিয়ে নাজিমগঞ্জ থেকে শ্যামনগর পর্যন্ত নিয়মিত পেট্রোল চলে। 
জি ৪০০১৪

১৯০৮০০

১৯-৫-৭১শত্রুরা সার্ভিস লঞ্চে গুলি করে ৩ জন সিভিলিয়ান হত্যা করে ও ৩ জন আহত হয়। তারা এল এম জি ও অন্য আটোমেটিক অস্ত্র নিয়ে উক্সা বি ও পি তে ১৪০০ থেকে ১৬০০ টার সময় যায়। তারিখ ১৮ মে। তারা একটি বাড়ি পুড়িয়ে দেয়। বেয়োনেট দিয়ে সেখানকার ১৫০০ রিফুজিকে অত্যাচার করে। দ্রুত  মুক্তিবাহিনী সেখানে আসে। উক্সার পাশে পাকসেনারা ৩ টি ভারতীয় মাঝিকে ধরে নিয়ে যায়। বি এস এফ এর সাহায্যে কড়া পেট্রোল চলছে।
জি ০০২১

২৯০৭০০

৩০-৫-৭১২৮ মে ৭১ ০৮৩০ টায় এহত্রুরা বসন্তপুর বি ও পি দখল করে। সেখানে বিহারি সহ ২০ জন ছিল। তারা স্থানীয়দের সাহায্যে সবগুলো বি ও পি বাঙ্কার মেরামত করে ও কিছু নতুন বাঙ্কার বানায়। কাজের সময় হেভি অস্ত্র সহ একটি লঞ্চ স্ট্যান্ড বাই ছিল দামদামা ঘাটে । ২০/২৭ মে ৭১ ০৮০০ টায় ও ১২০০ টায় রাইফেল  এস এম জি এল এম জি  এর র‍্যাঙ্ক ক্লাসিফিকেশন চালানো হয়। স্থান ছিল কালীগঞ্জ গ্রাম্য হাসপাতাল ভবন। সাথে ছিল নতুন ট্রেনিং প্রাপ্ত বিহারিরা।