শরণার্থীদের ফিরে আসার জন্য জেনারেল ইয়াহিয়ার আবেদন।

Posted on Posted in 7

৭.২৮.৬৪

শিরোনামসূত্রতারিখ
২৮। শরণার্থীদের ফিরে আসার জন্য জেনারেল ইয়াহিয়ার আবেদন।  

 

ওয়াশিংটনস্থ পাক- দূতাবাসের প্রেসরিলিজ।তারিখ: ২১মে,১৯৭১

 

 

PRESS RELEASE     

ISSUED BY THE

EMBASSY OF PAKISTAN

Washington D.C. 20008

Karachi, May 21, 1971

 

“শরণার্থীদের ফিরে আসার আহ্ববান”

      প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া খান আজ পাকিস্তানি নাগরিক যারা পূর্ব পাকিস্তানের বিভক্তি সংক্রান্ত কারনে তাদের বাড়ি-ঘর ছেড়েছে, তাদের ফিরে যাওয়ার জন্য জরুরী নির্দেশ দিয়েছেন।  

প্রেসিডেন্টের সম্পূর্ণ বিবৃতি নিম্নে প্রদান করা হল:

    চলমান রাষ্ট্র বিরোধী সহিংসতায় গত মার্চে পূর্ব পাকিস্তানের সাধারণ জনগণের একটি অংশ নিকটবর্তী এলাকায় আশ্রয় নেয়ার জন্য তাদের বাড়িঘর ছেড়ে চলে যেতে বাধ্য হয়। এছাড়াও অনেক দুর্বৃত্ত ও অনুপ্রবেশকারী ভারতে পালিয়ে গিয়ে তাদের কৃতকর্মের পরিণামের অব্যাহতি দিয়েছে । সেখানে আরও অনেকে আছে যারা ভারত কর্তৃক উৎসাহিত হয়েছিল পূর্ব পাকিস্তানের অর্থনৈতিক জীবন ব্যবস্থায় অব্যাহতি দিয়ে তাদের বাস্তুভিটা ছেড়ে চলে যেতে।

    ভারত সরকার ঘটনা অতিরঞ্জিত ও বিকৃত করে প্রচার করছে যা কিনা তাদের সীমান্ত পারাপারে নেতৃত্ব দিচ্ছে। একটি নির্দিষ্ট সংখ্যক জনগণ যারা পূর্ব পাকিস্তান থেকে ভারতে যাচ্ছে, পশ্চিমবঙ্গের বেকার ও গৃহহীন জনসংখ্যার সাথে যুক্ত হয়ে স্ফীত হচ্ছে।

সবচেয়ে পরিতাপের বিষয় এই যে, একটি মানবিক শাখার ভিত্তিতে প্রকৃত শরণার্থী প্রশ্নে প্রয়োজনীয় সেবার পরিবর্তে ভারত এই বিষয়টি নিয়ে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে প্রচারণা চালু করেছে। ভারতের এই অবস্থান শুধু মাত্র পাকিস্তানের জন্য হুমকিস্বরূপই নয়, পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ ব্যাপারে তার অব্যাহত হস্তক্ষেপের ন্যায্যতার প্রশ্নও আছে। ভারত সরকার কখনও লক্ষাধিক মুসলমানকে নিয়ে কোন উদ্বেগ দেখায়নি যারা কিনা তাদের বাস্তুভিটা থেকে বিতারিত হয়েছে এবং পাকিস্তানে আশ্রয় গ্রহণ করতে বাধ্য করা হয়েছে। ১৯৫৪ সাল থেকে আরও অর্ধ মিলিয়ন মুসলিমকে পশ্চিমবঙ্গ, আসাম ও ত্রিপুরা থেকে উচ্ছেদ করা হয়েছে।  আশ্বাস সত্ত্বেও ভারত সরকার তাদের কোন না কোন অজুহারে ফিরিয়ে নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। পাকিস্তান সরকার এখনও আশা করে যে, ভারত এ ব্যাপারে তাদের দায়িত্ব পূরণ করবে।

     সাধারণ পাকিস্তানি নাগরিক যারা এই বিভক্তি অবস্থা এবং অন্যান্য  কারনে বাড়িঘর ছেড়ে গিয়েছিল তাদের স্বাগত জানানো হচ্ছে নিজ নিজ বাড়িতে ফিরে আসার জন্য। আইনশৃঙ্খলা পুনরুদ্ধার করা হয়েছে এবং জনজীবন দ্রুতই স্বাভাবিক হচ্ছে। আমি তাদের অনুরোধ করব রাষ্ট্রবিরোধী কোন উপাদান দ্বারা, মিথ্যা অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য এবং তাদের স্বাভাবিক জীবন গ্রহণে ফিরে আসার জন্য। যেসব নাগরিক তাদের নিজ নিজ বাড়িতে ফিরে এসে পাকিস্তানের আইন মেনে চলবে, তাদের প্রতি সহিংসতার কোন প্রশ্নই আসে না।