শেখ মুজিবের বিচার হবেঃ টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে জেনারেল ইয়াহিয়া

Posted on Posted in 7

৭.৪৫.১০১

শিরোনামসূত্রতারিখ
৪৫। শেখ মুজিবের বিচার করা হবেঃ ৩আগস্ট পাকিস্তান টেলিভিশন সাক্ষাতকারে জেনারেল ইয়াহিয়াদি ডন, করাচী৫ আগস্ট, ১৯৭১

 

মুজিবকে বিচারের আওতায় আনা হবে

রাষ্ট্রপতি আগা মোহাম্মদ ইয়াহিয়া খান বলেন যে বিলুপ্তপ্রায় আওয়ামী লীগের দলপ্রধান শেখ মুজিবুর রহমান কে বিচারের আওতায় আনা হবে।
তিনি বলেন যে শেখ মুজিবকে রাষ্ট্রদ্রোহিতার দায়ে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং দেশের আইন অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে।

গতরাতে  পাকিস্তান টেলিভিশন করপোরেশনের সকল স্টেশন হতে প্রচারিত এক সাক্ষাৎকারে রাষ্ট্রপতি বলেন যে তিনি যেহেতু পাকিস্তানের নাগরিক সুতরাং পাকিস্তানের আইন অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেয়া উচিত।

যখন রাষ্ট্রপতিকে শেখ মুজিবের ভবিষ্যৎ সম্পর্কে প্রশ্ন করা হয় তখন তিনি বলেন, বিলুপ্তপ্রায় আওয়ামী লীগ নেতা শেখ মুজিব তার নির্বাচনী প্রচারণা থেকে বিচ্যুত হয়ে পূর্ব পাকিস্তানের স্বায়ত্তশাসন দাবি করেছেন।
 
রাষ্ট্রপতি ইয়াহিয়া বলেছেন যে নির্বাচিত হবার পর শেখ মুজিব এবং তার দলের কিছু লোকজন তাদের লক্ষ্য থেকে বিচ্যুত হয় এবং নিজেদের অপসারণ দাবি করে। অর্থাৎ তার মতে শেখ মুজিব বিশ্বাসঘাতকতার কাজ করেছেন, সরাসরি বিদ্রোহের পক্ষে কাজ করেছেন এবং তিনি রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে সশস্ত্র বিদ্রোহ উসকে দিয়েছেন।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন শেখ মুজিবুর রহমান কোনভাবেই তার প্রতিপক্ষ নন। রাষ্ট্রপতি বলেন তিনি শুধু মাত্র তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে তার দায়িত্বপালন করছেন এবং রাজনীতিবিদ হিসেবে শেখ মুজিবুর রহমানের সাথে তার কোনো বিরোধিতা নেই।

রাষ্ট্রপতি পরিষ্কার করে বলেন যে তার কোন রাজনৈতিক উচ্চাকাঙ্ক্ষা নেই। তিনি বলেন একজন সেনাসদস্য হিসেবে তিনি কেবল জনগণের ক্ষমতা পুনরুদ্ধারের সাময়িক দায়িত্ব পালন করছেন।

রাষ্ট্রপতি  বলেন যে শেখ মুজিবুর রহমান যা করেছেন তার জন্য তিনি অত্যন্ত দুঃখ বোধ করছেন এবং দেশের বিরুদ্ধে কোনো অপরাধ করলে অন্যরা যেই শাস্তি পায় তিনিও ঠিক একই শাস্তি পাবেন। সাক্ষাৎকারে উপস্থিত বিদেশী সংবাদমাধ্যম কর্মীদের কাছে তিনি একটি প্রশ্ন রাখেন, “আপনারা কিভাবে আপনাদের দেশের শত্রুদের সাথে আচরণ করতেন?” 

(দ্য ডন, করাচী- আগস্ট ৫, ১৯৭১)