সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের শরণার্থীদের উদ্দেশ্যে নিরাপত্তার আশ্বাস

Posted on Posted in 7

৭.৩৭.৮৩

শিরোনামসূত্রতারিখ
৩৭। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের শরণার্থীদের উদ্দেশ্যে নিরাপত্তা আশ্বাসঃ একটি সরকারী প্রেস রিলিজপাক দূতাবাসের দলিলপত্র১৯ জুন, ১৯৭১

 

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি(প্রেস রিলিজ)

জুন ১৯, ১৯৭১

পাকিস্তান দূতাবাস কর্তৃক জারিকৃত

ওয়াশিংটন, ডি সি ২০০০৮

 

১৮ই জুন পাকিস্তান রেডিওতে প্রচারিত এক বক্তব্যে, প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া বলেন, “সংখ্যলঘু সম্প্রদায়ের সদস্যদের বিন্দুমাত্রদ্বিধা না করে, পূর্ব পাকিস্তানে তাদের ঘরে ফিরে আসা উচিৎ। কোনরূপ বৈষম্য ছাড়া পাকিস্তানের যোগ্য নাগরিক হিসেবে তাদের পূর্ণ নিরাপত্তা এবং সুবিধাদি প্রদান করা হবে।”

 

২১মে প্রচারিত তার আবেদনের বিষয় উল্ল্যেখ করে, তিনি সকল গৃহচ্যুত ব্যক্তিকে, ঘরে ফিরে আসার আহবান জানান। তিনি বলেন, “জাত-ধর্ম-বর্ন নির্বিশেষে সকল পাকিস্তানির জন্যই আমার এই অনুরোধ।“

 

প্রেসিডেন্টের পূর্ণ বক্তব্যের লেখ্য নিম্নে উল্ল্যেখিত হলঃ

“২১শে মে এক ব্যক্তিগত বার্তায় আমি সকল পাকিস্তানি নাগরিকদের, যারা নানা কারনে ভারতে গিয়েছেন, পূর্ব-পাকিস্তানে তাদের ঘরে ফিরে এসে দৈন্দদিন কার্যক্রম শুরু করা আহবান জানিয়েছিলাম। ২৪শে মে করাচীতে আমার প্রেস ব্রিফিংএ, আমি আমার বক্তব্য পুর্নব্যক্ত করি এবং নিশ্চিত করি গৃহচ্যুত ব্যক্তিদের প্রত্যাবর্তন ও পুর্নবাসন প্রয়োজনীয় সুবিধাদি প্রদান করা হবে। আনন্দের বিষয়, সুযোগ-সন্ধানী পক্ষের বাধা স্বত্বেও, অনেক পাকিস্তানি ফিরে আসছেন এবং বর্তমানে তাদের ঘরে ফিরে যাচ্ছেন। আমি নিশ্চিত আরো অনেকেই ফিরে আসবেন। আমি আগেই উল্ল্যেখ করেছি, আমাদের নাগরিদের ফিরে আসার ক্ষেত্রে স্থগিত-অনুমতির প্রশ্নই আসে না।পূর্ব-পাকিস্তান সরকার ইতিমধ্যে তাদের অভ্যর্থনা এবং পুর্নবাসনের জন্য সম্পূর্ন সহয়তা প্রদানে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। আমার অনুরোধ জাতি-ধর্ম-বর্ন নির্বিশেষে সকল পাকিস্তানির জন্যই। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সদস্যদের বিন্দুমাত্র দ্বিধা না করে, পূর্ব পাকিস্তানে তাদের ঘরে ফিরে আসা উচিৎ। কোনরূপ বৈষম্য ছাড়া পাকিস্তানের যোগ্য নাগরিক হিসেবে তাদের পূর্ণ নিরাপত্তা এবং সুবিধাদি প্রদান করা হবে। আমি তাদের অনুরোধ জানাবো, যেনো তারা পাকিস্তানের বাইরে থেকে পরিচালিত কোন অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হোন।