২৫ জানুয়ারি থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ঘটনাবলীর সংক্ষিপ্তসার

Posted on Posted in 2

<2.087.426-428>

 

 

শিরনামসূত্র                  তারিখ
২৫ জানুয়ারী থেকে ৪ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত ঘটনাবলীর সংক্ষিপ্তসারদৈনিক পাকিস্থান৭ ফেব্রুয়ার‍্য,১৯৬৯

 

 

                                      ঘটনাবলীর সংকিপ্তসার

                           ২৫শে জানুয়ারী থেকে ৪ঠা ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত

 

সর্বদলীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের আহবানে গতকাল শুক্রবার ঢাকাসহ পূর্ব পাকিস্তানের সর্বত্র হরতাল পালিত হয়। সর্বত্র সভা ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয় এবং বিভিন্ন স্থানে ছাত্র-জনতার সাথে পুলিশ ও ইপিআর বাহিনীর সংঘর্ষ হয়।

 

গত রাতে পূর্ব পাকিস্তান সরকারের এক প্রেস নোটে বলা হয়, বেসামরিক কর্তৃপক্ষের সাহায্যের জন্য সামরিক বাহিনীকে তলব করা হয়েছে। শুক্রুবার রাত ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টাব্যাপী সন্ধ্যা আইন জারি করা হয়। প্রেসনোটে বলা হয় শুক্রুবার পুলিশের গুলিতে ঢাকায় ৩ জন, ময়মনসিংহে ২ জন এবং চট্টগ্রামে একজনের প্রাণহানি ঘটে। ে ছাড়া পুলিশের গুলিতে ঢাকায় ১০ জন,ময়মনসিংহে ২০ জন ও চট্টগ্রামে কয়েকজন আহত হয়। প্রেস নোটের অপর এক স্থানে বলা হয়, শুক্রুবার ঢাকায় দশ হাজার লোকের এক জনতা মর্নিং নিউজ দৈনিক পাকিস্তান অপর দিকে পুলিশ য় পূর্ব পাকিস্থান রাইফেল বাহিনী তাদের বাধা দিল প্রবলভাবে।তারপর নিক্ষিপ্ত হল কাঁদুনে বোমা। তারপর ৬ রাউন্ড গুলি বর্ষিত হল। ঘটনাস্থলেই মারা গেল ৪ জন। বিক্ষোভকারীরা ২ জনের লাশ নিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছিল।

সাংবাদিকরা তথায় ঝুঁকি নিয়ে উপস্থিত হয়ে দেখতে পেল আর একটি লাশ শায়িত রয়েছে সেক্রেটারিয়েট গেটের অভ্যন্তরে একটি কামরার সম্মুখে।

 

গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হওয়ার পর তাকে পা ধরে টেনে আনা হয়েছিল সেখানে।সাংবাদিকেরা তথায় উপস্থিত হওয়ামাত্র তাদের তাড়িয়ে দেয়া হল ঊর্ধ্বতন অফিসারদের কড়া নির্দেশে। তারপর লাশটি টেনে নেয়া হয়েছিল কামড়ায়।

 

এখানে গুলিবর্ষণের পরই শহরের রূপ পালটে গেল। এতক্ষনের শান্তিপূর্ণ মিছিল ফেটে পড়ল উত্তেজনায়। জনতা সেখানে ভিড় করে এগিয়ে এল। আগুন ধরাতে চেষ্টা করলো সেক্রেটারিয়েট গেটে। তোপখানা রোডের গেটেও তখন ক্ষিপ্ত জনতা ভিড় করলো। সেখানে কাঁদুনে গ্যাস নিক্ষিপ্ত হল। এরপর বেপরোয়া হয়ে বিক্ষুব্দ জনতা পুরানা পল্টন মোড়ের পেট্রোল পাম্প ভেঙ্গে ফেলে।

 

                                             

 

নারায়ণগঞ্জ

 

 

 

সর্বদলীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ কমিটির আহবানে আসাদুজ্জামানের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ উপলক্ষ গতকাল শুক্রুবার নারায়ণগঞ্জে পূর্ণ হরতাল পালিত হয়।

 

২৬শে জানুয়ারী

 

 গতকাল শনিবার ঢাকায় সন্ধ্যা আইন জারী থাকাকালে পুলিশের গুলিবর্ষণে ২ জন নিহত হয়। শহরে সন্ধ্যা আইনের মেয়াদ আরও ২৪ ঘণ্টা বর্ধিত করা হয়।

 

 নারায়ণগঞ্জ শহর, তৎপার্শ্ববর্তী শিল্পাঞ্চল, ডেমরা, সিদ্ধিগঞ্জ এবং ফতুল্লা থানা এলাকায় গতকাল শনিবার সন্ধ্যা ৫টা থেকে ২৪ ঘণ্টাব্যাপী সন্ধ্যা আইন জারি করা হয়।

 

নারায়ণগঞ্জে ৪ জন অধ্যাপকসহ ৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়। সৎ শুক্রুবার ১টা থেকে ২১ ঘণ্টার জন্য খুলনায় সন্ধ্যা আইন জারি করা হয়। একটি ছাত্র মিছিলকে কেন্দ্র করে দু‘দলের মধ্যে সংঘর্ষে ২৩ জন আহত হওয়ার ফলে উদ্ভূত পরিস্থিতির পরিপেক্ষিতে এই বাবস্থা গৃহীত হয়।

 

ঢাকা, ময়মনসিংহ ও চট্টগ্রামে পুলিশের গুলিবর্ষণের প্রতিবাদে পশ্চিম পাকিস্থানের বিভিন্ন স্থানে ছাত্রদের বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

 

২৪শে জানুয়ারি প্রদেশের বিভিন্ন স্থানে পুলিশের গুলিবর্ষণের প্রতিবাদে গতকাল শনিবার সিলেট শহরে পূর্ণ হরতাল পালিত হয়। ধর্মঘটী ছাত্র-ছাত্রীরা বিরাট মিছিল দের করে।

 

২৭শে জানুয়ারি

 

গতকাল রোববার ধাকা,নারায়ণগঞ্জ, আদমজী, ডেমরা প্রভৃতি শিল্পাঞ্চলে সন্ধ্যা আইন জারী থাকা অবস্থায় সেনাবাহিনীর গুলিবর্ষণে ৩ ব্যাক্তি নিহত ০ ১০ জন আহত হয়।

 

সকাল ১১টা হইতে ২টা পর্যন্ত এসব এলাকায় সন্ধ্যা আইন শিথিল করা হয়। ঢাকার সন্ধ্যা আইনের মেয়াদ ৩৬ ঘণ্টা, নারায়ণগঞ্জের শিল্পাঞ্চলে ৩৯ ঘণ্টা বৃদ্ধি করা হয়। ময়মনসিংহে জন্তা-পুলিশ সংঘর্ষে ৮৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়। এদিকে প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা জনাব ফিদা হাসান পূর্ব পাকিস্তান সফরের উদ্দেশ্যে ঢাকায় আসছেন।

 

গণতান্ত্রিক সংগ্রাম পরিষদের পূর্ব পাকিস্থান সমন্বয় কমিটি ঢাকা শহর য় প্রদেশের অন্যান্য স্থান থেকে অবিলম্বে সান্ধ্য আইন, ইপিআর য় সেনাবাহিনী প্রত্যাহারের দাবী জানায়।

 

 

 ২৯শে জানুয়ারি

 

পূর্ব পাকিস্থান ন্যাপের সভাপতি অধ্যাপক মোজাফফর আহম্মদ গ্রেফতার। ঢাকা হাইকোর্ট বার সমিতির জরুরী সভায় গুলিবর্ষণ য় সান্ধ্য আইন জারির তীব্র নিন্দা।

 

৩০শে জানুয়ারি

 

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকগণ কর্তৃক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মর্যাদা লঙ্ঘনের নিন্দা, প্রদেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ মিছিল য় সভা। গুলিবর্ষণের নিন্দা য় অবিলম্বে সান্ধ্য আইন প্রত্যাহারের দাবী।

 

৩১শে জানুয়ারি

 

সান্ধ্য আইন সম্পর্কিত জনাব ফরিদ আহমদের রীট নাকচ। বার ঘণ্টাব্যাপী সান্ধ্য আইন শিথিল থাকাকালে ঢাকায় কোন শান্তি ভঙ্গ হয়নি।

 

সরকারি প্রেসনোটে প্রকাশ, মাদারীপুরের জাজিরা থানায় ১ ব্যাক্তি নিহত য় ৩ জন আহত।

গত ২৭শে জানুয়ারি পিপলস পার্টির হায়দরাবাদ শাখা করাচী, ঢাকায় পুলিশের গুলিবর্ষণের প্রতিবাদে এক বিরাট মিছিল বের করে।

১লা ফেব্রুয়ারি

 

দেশ রক্ষা আইনে এনডিএফ নেতা জনাব ওলি আহমদ গ্রেফতার। ফরিদপুর জেলার মাদারীপুর মহকুমার ভেদরগঞ্জে বিক্ষভকারী ছাত্রদের উপর পুলিশের গুলিবর্ষণে একজন ছাত্র আহত। বগুড়ায় পূর্ণ হরতাল পালিত। বিশ্ববিদ্যালয়ে সায়ত্ত্বশাসনের দাবীতে ২৭ জন মুসলিম লিগ নেতার বিবৃতি।

 

ফরিদপুর জেলার গোপালগঞ্জ মহকুমার জলিরপাড়ে বিক্ষুব্ধ জনতার উপর পুলিশের এক ব্যাক্তি

নিহত। বাগেরহাটে ছাত্র মিছিলে পুলিশের গুলিবর্ষণে ২ ব্যাক্তি আহত।

 

২রা ফেব্রুয়ারি

 

গ্রেফতার য় নির্যাতনের প্রতিবাদে রংপুরে মহিলাদের সভা য় মিছিল।

বিরোধী দলের সমালচনার মুখে জাতীয় পরিষদে পৌর প্রশাসন বিল গ্রহীত।

 

৪ঠা ফেব্রুয়ারি

 

সরকারী মুখপাত্র কর্তৃক প্রাদেশিক গভর্নর পদে রদবদল সংক্রান্ত খবরের সত্যতা অস্বীকার। সংবাদপত্র য় পেশাদার সাংবাদিকের উপর পুলিশের বর্বরোচিত হামলা এবং প্রশাসন কর্তৃপক্ষের নিপীড়নমূলক নীতির প্রতিবাদে প্রদেশের সর্বত্র চব্বিশ ঘণ্টাব্যাপী ধর্মঘট পালন।