৬৩। ১৬ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর জীবন রক্ষায় ২৪ টি রাষ্ট্রের প্রধানের কাছে ইন্দিরা গান্ধীর আবেদন

Posted on Posted in 6

কম্পাইলারঃ রিফাত বিন শরীফ

<৬,৬৩,১১০>

শিরোনামঃ বঙ্গবন্ধুর জীবন রক্ষায় ২৪টি রাষ্ট্রের প্রধানদের কাছে ইন্দিরা গান্ধীর আবেদন

সংবাদপত্রঃ বাংলাদেশ (১ম বর্ষঃ ১১শ সংখ্যা)

তারিখঃ ১৬ আগস্ট, ১৯৭১

.

বঙ্গবন্ধুর জীবন রক্ষায় ২৪টি রাষ্ট্রের প্রধানদের কাছে ইন্দিরা গান্ধীর আবেদন

মুজিবনগর ১১ ই আগস্ট – গতকাল ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রীমতি ইন্দিরা গান্ধী বিশ্বের ২৪টি রাষ্ট্রের প্রধানদের কাছে আবেদন জানিয়ে বানী পাঠিয়েছেন, যেন তারা শেখ মুজিবের জীবন রক্ষার জন্য পাক প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া খার উপর প্রভাব বিস্তার করেন।

.

শেখ মুজিবুর রহমানের গোপনে সামরিক আদালতে বিচার ব্যবস্থা এবং তাকে কোন রকম বিদেশী আইন বিশেষজ্ঞদের সাহায্য নিষিদ্ধ করার যে ঘোষণা প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া খা করেছেন তাতে ভারত সরকার, ভারতের জনগণ, প্রেস এবং সংসদ গভীরভাবে উদ্বিগ্ন।

.

“আমাদের আশঙ্কা হচ্ছে যে, এই তথাকথিত বিচার প্রহসনের আড়ালে শেখ মুজিবকে হত্যার চক্রান্ত করা হয়েছে। এই হত্যা সংঘটিত হলে পূর্ব বাংলার পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ হয়ে দাঁড়াবে এবং ভারতের সমস্ত রাজনৈতিক দল ও জনগণের মনোভাব কঠোর হওয়ার ফলে এদেশেও জটিলতর পরিস্থিতির উদ্ভব হবে। সেই কারণেই আমাদের উদ্বেগ এত গভীর। তাই আপনার কাছে আমরা আবেদন জানাচ্ছি যে, এই অঞ্চলের শান্তি বজায় রাখার স্বার্থে প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া যাতে এ ব্যাপারেও বাস্তব দৃষ্টিগোচর পরিচয় দেন, তার জন্য আপনি তার উপর আপনার প্রভাব কাজে লাগান।

.

শেখ মুজিব তার দেশের জনগণের কাছে এক অবিসম্বাদিত নেতা, বিপুলভাবে জনপ্রিয় এবং শ্রদ্ধেয়। ১৯৭০ সালের নির্বাচনে তার সাফল্য সাম্প্রতিক কালে বিশ্বে বিভিন্ন রাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত নির্বাচনগুলির মধ্যে হয়ত সবচেয়ে বেশি চমকপ্রদ। আমাদের দেশে জনমত, প্রেস সংবাদ এবং সরকার সবাই দৃঢ় বিশ্বাস পূর্ব বাংলায় পাকিস্থানী কার্যকলাপের ফলে আমাদের দেশ জটিল সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে; পাক সরকার শেখ মুজিবের প্রাণনাশ করলে বা তার কোন ক্ষতি করলে যে চরম অবস্থার সৃষ্টি হবে, তাতে এই সমস্যা দশগুণ বৃদ্ধি পাবে।

.

আমরা আপনার কাছে আবেদন জানাচ্ছি যে, আপনি পাকিস্তান সরকারকে অনুরোধ জানান, যেন তাঁরা তাদের এবং আমাদের দেশকে বিপদজনক পরিস্থিতিতে ফেলার মত কোন কাজ না করেন। পাক সরকার শেখ মুজিবের কোন ক্ষতি করলে তার ফল মারাত্মক হবে।

.

গতকাল শ্রীমতি গান্ধী এই আবেদনটি পাঠিয়েছেন নিম্নোক্ত দেশগুলোর রাষ্ট্র প্রধানদের কাছেঃ আরব সাধারণতন্ত্র, সিংহল, ইন্দোনেশিয়া, আফগানিস্তান, নেপাল, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, সোভিয়েত ইউনিয়ন, কানাডা, ফ্রান্স, ইতালী, সুইডেন, জাপান, যুক্তরাষ্ট্র, বৃটেন, পশ্চিম জার্মানী, যুগোস্লাভিয়া, হল্যাণ্ড এবং আরো কয়েকটি দেশ।