11

যুদ্ধ পরিস্থিতি রিপোর্টঃ বয়রা সাব সেক্টর

Posted
শিরনাম উৎস তারিখ
১৮। যুদ্ধ পরিস্থিতি রিপোর্ট বয়রা সাব সেক্টর ৮ নং সেক্টরের দলিলপত্র ১৯৭১

 

 

ট্রান্সলেটেড বাইঃ Razibul Bari Palash

<১১, ১৮, ৩৪৪-৩৬২>

 

ক্রমিক নং

 

সূত্র নম্বর ও তারিখ

 

তথ্য অন্তর্ভুক্তির তারিখ ঘটনা
১       জি ০০৬০ ২৩-৬-৭১ আমাদের বাহিনী ২১/২২ তারিখ রাতে বর্নিতে আক্রমণ করে। শত্রু হতাহত জানা যায়নি। এ টিকে মাইন সেট করা হয় যাদবপুর-বর্নি রাস্তায়। শত্রুরা সাবধানে গরুর গাড়ি নিয়ে যাচ্ছিল। আমাদের লক্ষ্য সামান্য পুরন হয়। পাকসেনা ও দোসরদের অনেক অত্যাচার কমানো হয়।

 

২      জি ০০৬১

২৩০৯০০

২৩-৬-৭১ আমাদের বাহিনী ২২/২৩ তারিখ রাতে সামানটা দখল করে। এস কিউ ৬৪৬৮ এম এস ৭৯এ/১৫। পালানিপুর এস কিউ ৫৮৬৯ এম এস ৭৯এ / ১১ মুক্ত হয়। আমাদের বাহিনী মহেশপুর-বর্নিতে মাইন পুতে। ২ pi str পাকসেনা যাদবপুরে আসে। এস কিউ ৭৫৬৮ এম এস ৭৯এ/১5 তারিখ-২৩০৭৩০। শত্রু হতাহত জানা যায়নি।

 

 

৩      জি ০০৬৫

২৪২০১৫

২৬-৬-৭১ ২৪১২০০ টায় ১০/১২ জন পাকসেনা নিয়ে ২ টি শত্রু জীপ চৌগাছা থেকে খালিসা বাজারে আসে। সেখানে একটি ব্রিজ দেখতে আসে যা আগে নিজেরা ধ্বংস করেছিল। তারা স্থানীয় লোকদের ২ দিনের মধ্যে সেটা সারতে বলে। এর পর তারা চৌগাছা চলে যায়।

 

জি ০০৬৬

২৬১১০০

২৬-৬-৭১ গত রাতে সামানটা পালিয়ানপুর মুক্ত হয় ও জয় বাঙলার সাথে বাংলাদেশের পতাকা ওড়ানো হয়। প্রচুর মৌসুমি বায়ুর কারণে শত্রুদের বিমান সেখানে আসতে পারেনি। ২৫২২০০ টায় ৮৭৫৬৫৩ এম এস ৭৯ এ/ ১৬তে ব্রিজ উড়িয়ে দেয়া হয়।

 

জি ০০৭১

২৭১৯০০

২৭-৬-৭১ প্রচুর গোলাগুলি চলতে থাকে। এস পি আর্মস ও এমও পাঠানো হয়। ২ টি লাশ আসে অস্ত্রসহ।

 

জি ০০৭২

২৮১০০০

২৮-৬-৭১ ২৭১৪০০ টায় ১০০ পাক আর্মি ও রেঞ্জার কাশীপুর ব্রিজে আসে। আমাদের সৈন্যদের পাঠানো হয়। প্রচুর গোলাগুলি চলে। শত্রুরা এদিক সেদিক পালাতে থাকে। গঙ্গানন্দপুর পর্যন্ত আমাদের বাহিনী শত্রুদের তাড়িয়ে দেয়। এস কিউ ৯১৫৭ এম এস ৭৯ ই/৪। হতাহত কমপক্ষে ১২ জন। ৩ টি লাশ পাওয়া যায়। এখন পর্যন্ত ১ টি এস এম জি ২ ইঞ্চি মর্টার ১ টি এস বি বি এল বন্দুক জব্দ করা হয়। পরে আরও অস্ত্র ও লাশ পাওয়া যায়। ১ টি ৩ টোনার নম্বর বি এ ০৩০৭৩৩ ২২ এফ এফ পাওয়া যায়। আমাদের বাহিনী একটি বেডফোর্ড ট্রাক ধ্বংস করে। কিছু জিনিস আমাদের হাতে আসে। ১ জন লেফটেনেন্ট এর লাশ পাই। ঝিকর গাছায় আইনুদ্দিন নামে বাঙ্গালী গাইডকে আটক করা হয়। এখন তাকে ইন্টারোগেট করা হচ্ছে।

 

৭      জি ০০৭৩

২৮১০০০

২৮-৬-৭১ ২৭১৭০০ টায় সুবেদার মনুরুজ্জামান নিহত হন। একটি ঝপের ভিতর থেকে আক্রমণ করতে গিয়ে ধরা পড়েন। তাকে সাথে সাথে হত্যা করা হয়। ২০৩০টায় তাঁর লাশ পাই। বাংলাদেশের অভ্যন্তরে কাশীপুরে ধর্মিয়ভাবে তাকে দাফন করা হয়।

 

৮      জি ০০৭৪

২৮১০৩০

২৯-৬-৭১ আমাদের বাহিনী ২৬/২৭ তারিখ রাতে রাজাপুরে আক্রমণ করে। ১২০০-২৭০৯০০ টায় বর্নি বিলে আক্রমণ করে। ৩ ইঞ্চি মর্টার ইউজ করে। শত্রুরাও মর্টার দিয়ে জবাব দেয়। ৩ জন নিহত ও ২ জন আহত হয়।

 

৯      জি ০০৭৯

২৯১১০০

২৯-৬-৭১ প্রায় ১৫০ পাকসেনা ও রেঞ্জার রা ২৮০৯৩০ টায় বেলতায় আসে। এস কিউ ৮৮৫৯ এম/এস ৭৯ ই/এ। আমাদের সৈন্য তাদের আক্রমণ করতে যায়। প্রচুর গোলাগুলি হয়। পরে গঙ্গানন্দপুরে ফিরে আসে। এস কিউ ৯১৫৭ এম এস ৭৯ ই / ৪। কমপক্ষে ১৭ জন আহত হয়। ২২ এফ এফ এর একজন এল/এনকে ও ১ জন বাঙ্গালী গাইডকে আটক করা হয়। আমাদের বাহিনী কাবিল্পুরে আক্রমণ করে। তারা কাবাদাক নদী পার হবার চেষ্টা করছিল। এস কিউ ৮৯৬২ এম এস ৭৯ই / ৪ তারিখ-২৮১৪০০। শত্রু হতাহত ৪ জন। তারা মাস্লিয়াতে ফিরে যায় এস কিউ ৮৫৫৬ এম/ এস ৭৯/ এ /১ ৬

 

১০ জি ০০৮০

২৯১৭০০

৩০-৬-৭১ ২৮১৭০০ টায় পাক ব্রিগেড কপটারে করে নাভারন আসে। আমাদের যেভাবে হোক কাশীপুরে মুক্ত করতে হবে। ছুটিপুর থেকে আমরা আক্রমণ আশা করছিলাম। এস কিউ ৯১৫৮ এম এস ৭৯ই / ৪। কাবিল্পুর ঢুলিয়ার এস কিউ৯১৬২ এম এস ৭৯ ই / ৪, টাংরাইল এস কিউ ৮৫৪৯ এম এস ৭৯এ/১৬। বেনাপোলে ইন্ডিয়াকে আক্রমণ করতে অনুরোধ করা হয়।

 

১১ জি ০০৮২

৩০১০৩০

৩০-৬-৭১ ২৯১২৩০ টায় শত্রুদের ২ টি যান গঙ্গানন্দপুর আসে। অ্যামবুশ করা হয়। এস কিউ ৯১৫৭ এম এস ৭৯ই /৪। তারা ঝিকরগাচজা ফিরে যায়। ব্রিজ এস কিউ ৯১৫৩ এম এস ৭৯ই/৪ ধ্বংস করা হয় ২৯/৩০ রাতে।

 

১২ জি ০০৮২

০৪১২০০

০৫-৭-৭১ আমাদের বাহিনী ৩/৪ তারিখ রাতে মাসলিয়াতে আক্রমণ করে। এস কিউ ৮৬৬৬ এম এস ৭৯এ/১৬। ৪ জন আহত। কাশীপুর ও বেলাতে ২৭/২৮ জুন ৭১ আক্রমণ করা হয়। নির্ভরযোগ্য সূত্র থেকে জানা যায় ২২ এফ এফ এর একটি কয় এর সৈন্যদের তাড়িয়ে দেয়া হয়েছে। ব্রিগেড কমান্ডার ২২ এফ এফকে সম্মুখে এবইউজ করেছে নাভারনের ব্যর্থতার জন্য।

 

১৩ জি ০০৯৬

০৭০৭০০

৭-৭-৭১ আমাদের বাহিনী ৫/৬ তারিখ মাসুম্পুর এলাকা এস কিউ ৯২৬৬ এম এস ৭৯এ/৪ ধ্বংস করে। এছাড়া আর একটি প্লাটুন নিয়োজিত করা হয়। ২ টি গুরুত্তপূর্ণ মিশন হল।

 

১৪ জি ০১০১

০৮১০১৫

৮-৭-৭১ আমাদের বাহিনী ধেংকিপোতায় আক্রমণ করে। এসতারিখ-৭-৭-৭১ ০২০০ টা। আমাদের বাহিনী আক্রমণ করে। ১৫/১৬ তারিখ ১০০০ টায় একজন শত্রু অফিসার ধেংকিপোতায় আসে। এস কিউ ৮৭৬৫ এম এস ৭৯এ/১৬। আমাদের সৈন্য তাদের এম্বুশ করে। মাচালিয়া ও চৌগাছাতে ৩ ইঞ্চি মর্টার ও হেভি মেশিন গান ইউজ করে শত্রুরা। তাদের প্রতিহত করা অনেক কঠিন ছিল। তবুও ১ অফিসারসহ তাদের ৮ জন হতাহত হয়। ০৭১২০০ থেকে ০৭১৭৩০ এঁর মধ্যে বাংলাদেশের ভিতরে ৫ টি সফল আক্রমণে কাশীপুর ও এর পাশের বিশাল এলাকা মুক্ত করা হয়। শত্রুদের ২ টি কয় আমাদের কাছে আসতে পারেনি। ১৭০০ টায় তারা বিধ্বস্ত হয়ে পরে। ১৩ জন নিহত হয়। সম্প্রতি জানতে পারি ছুটি পুরে তারা ডিফেন্স পজিশন খনন করছে।

 

 

১৫ জি ০১০২

০৯০৬০০

৯-৭-৭১ কাশীপুরে ৬ টি সফল আক্রমণ হয়। ০৮০৯০০ টা থেকে ১৬৩০ পর্যন্ত আক্রমণ চলে। ৮১ মিমি মর্টার ও হেভি মেশিণ গান ইউজ হয়। শত্রুদের ৩ জন হতাহত।

 

১৬ জি ০১০৫

০৯২০০০

১০-৭-৭১ আমাদের মাইনে এক পাকসেনা আক্রান্ত হয় ও নিহত হয়। এস কিউ ৮৯৫৩ এম এস ৭৯এ/৪ তারিখ-।

 

১৭ জি ০১০৭ ১১-৭-৭১ ছুটিপুর-ঝিকরগাছাতে টেলি যোগাযোগ বিছিন্ন করা হয়। এস কিউ ৯১৫৮ থেকে এস কিউ ৯২৫৭ এম এস ৭৯এ/৪

 

১৮ জি ০১০৪

০৯০৯০০

৯-৭-৭১ ০৯০৫৫০ থেকে ০৯০৭০০ টার মধ্যে শত্রু মুক্ত করা হয়। বাংলাদেশ আর্মড ফোর্সের নতুন পাওয়া কিছু অস্ত্রের গর্জন আমরা শুনতে পাই ছুটি পুর এলাকায়। এস কিউ এ৯১৫৮ ম এস ৭৯এ/৪ শত্রু হতাহত ৩ জন। আমাদের ২ জন আহত।

 

১৯ জি ০১০৮

১২০৭৩০

১২-৭-৭১ ১১১৭৩০ থেকে ১১১৮০০ এর মধ্যে শত্রুদের উপর শেল নিক্ষপ করা হয়। এস কিউ ৮৬৬৬ এম এস ৭৯এ/১৬-। শত্রু হতাহত যানা যায়নি। ০৫০০ থেকে ০৫১৫ এর মধ্যে শত্রুদের উপর শেল নিক্ষপ করা হয়। এস কিউ ৯১৫৮, ৯১৫৭, ৯২৫৭ এম এস ৭৯ই/৪। শত্রু হতাহত যানা যায়নি।

 

২০ জি ০১০৯

১২০৭৩০

১২-৭-৭১ ছুটিপুর থেকে গঙ্গানন্দপুর পর্যন্ত শত্রুদের আক্রমণ করা হয়। এস কিউ ৯১৫৮/৯১৫৭/৯২৫৭ এম এস ৭৯ ই/৪। এরা ছিল ২২ এফ এফ এর ১ টি কয় ও রেঞ্জার।

 

২১ জি ০১১১

১৪০৮৩০

১৪-৭-৭১ আমাদের বাহিনী ১২/১৩ তারিখ রাতে জি আর ৯৪৪৪৬৯ এম এস ৭৯এ/৪ ধ্বংস করে। ছুটিপুর ও গঙ্গাধরপুর এলাকা ১৩০৮০০ টায় শেল নিক্ষেপ করা হয়। হতাহত জানা যায়নি।

 

২২ জি ০১১০

১৩১০১৫

১৪-৭-৭১ ছুটিপুর ও গঙ্গাধরপুর এলাকায় ১৩০৭০০ টায় শেল নিক্ষেপ করা হয়। মাসিলাতেও শেল নিক্ষেপ করা হয় ১৩০৬০০ টায়। হতাহত যানা যায়নি।

 

২৩ জি ০১১২

১৪০৮৩০

১৫-৭-৭১ ১৩ জুলাই ০৮১৫ টায় মিশন শেষে আসার পথে মুক্তিবাহিনী ওপর একটি দলের সাথে গারপারায় মিলিত হয়। এস কিউ ৮৪৫৩ এম/এস ৭৯আ/১৬ থেকে তারা আসছিল। কিন্তু তারা আক্রমণ করে বসে। এতে লুতফর রহমান ও আব্দুল কাদের মারা যায়। অন্য একজন লুতফর রহমান ও মাহবুবুর রহমান আহত হয়। ২ টি স্টেন, ১ টি রাইফেল, ১০০ বল ৩০৩ এমও, ৭২ টি ৯ মি মিসহ ৪ টি ম্যাগাজিন বেদখল হয়।

 

২৪ জি ০১১৪

১৫০৭৩০

১৬-৭-৭১ আমাদের বাহিনী ১৪/১৫ তারিখ রাতে মাস্লিয়াতে ও ছুটিপুরে আক্রমণ করে। এস কিউ ৩৬৬৬ ও ৯১৫৮ এম এস ৭৯এ/১৬ ও এ/৪ তারিখ-। প্রচুর গোলাগুলি হয়।

 

২৫ জি ০১১৫

১৬০৮৩০

১৬-৭-৭১ ছুটিপুর, গঙ্গাধরপুর, মাসালাতে শত্রু অবস্থানে শেল আক্রমণ করা হয়। ১৭৩০ থেকে ১৮০০ টা পর্যন্ত। হতাহত জানা যায়নি।

 

২৬ জি ০১১৬

১৭০৯০০

১৭-৭-৭১ আমাদের বাহিনী গঙ্গাধরপুর, মাসালাতে অ্যামবুশ করে। সময়-১৬০২০০ টা। ৬৩০ টায় শত্রুদের মাসালাতে যেতে দেখে। গুলি বিনিময়ে ৩ জন আহত হয়। ছুটিপুর-ঝিকরগাছাতে মাইনে ৭ জন আহত হয়।

 

২৭ জি ০১১৮

১৮০৭৩০

১৮-৭-৭১ ১৭/১৮ তারিখ রাতে এল এম গই ও মর্মরটারে ছুটিপুরে আক্রমণ করা হয়। হতাহত জানা যায়নি।

 

২৮ জি ০১১৯

২০০৯৩০

 

২০-৭-৭১ ১৯১৯০০ টায় ছুটিপুর ডিফেন্স থেকে বিশাখালি ও গোয়ালহাটি যাবার সময় ৪০/৫০ জন শত্রুসেনাকে আক্রমণ করা হয়। ৩ জন আহত হয়। নাভারনের ১ জন শান্তি বাহিনীর সদস্য আটক করা হয়। তার নাম আব্দুল জলিল। অনেক গুরুত্তপুর্ণ তথ্য পাওয়া যায়। আমাদের বাহিনী এস কিউ ৮০৬৮ এম এস ৭৯এ/১৫ আক্রমণ করে শেল দিয়ে। সময় ১৯১৬৩০টা। প্রচুর হতাহত হয়।

 

২৯ জি ০১২১

২২১৮০০

২৩-৭-৭১ আমাদের বাহিনী জি ০১১৯ ২১ জুলাই আক্রমণ করে ২ জন শত্রুসেনা নিহত, ৪ জন আহত ও ৩ টি বাঙ্কার ধ্বংস করে। বি ও পি বিল্ডিং ও ১ টি জীপ ধ্বংস হয়। আমাদের বাহিনী আটলিয়া গ্রামে বুবি ট্র্যাপ ও মাইনে আক্রমণ করে। এস কিউ ৯১৬০ এম এস ৭৯ই/৪ তারিখ-২১ জুলাই। আমাদের বাহিনী ছুটিপুরে আক্রমণ করে। এস কিউ ৯২৫৭ এম এস ৭৯এ/৪ তারিখ-২১১৮০০ থেকে ২১৯০০ টা। এখন পর্যন্ত ৬ জন নিহত ও ৬ জন আহত হয়েছে। দালান কিছুটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আমাদের বাহিনী কাবিল্পুরে অ্যামবুশ করে। সেখানে ৬০ জন পাকসেনা ছিল। এস কিউ ৮৯৬৩ এম এস ৭৯ই /৪ তারিখ-২২০৮৩০টা। এখন পর্যন্ত ১৪ জন নিহত ও ৭ জন আহত হয়েছে শত্রুপক্ষের। শত্রুরা গুলি চালিয়ে তাদের লাশ গুলো নিয়ে যায়।
৩০ জি ০১২২

২৬০৭৩০

২৬-৭-৭১ ২৫ জুলাই রাত ১২ টায় ৪০/৫০ জন পাকসেনা ও রেঞ্জার রা চৌগাছা থেকে দেউল্লিপোতায় ডাকাতি করতে আসে। আমাদের বাহিনী তাদের অ্যামবুশ করে। হতাহত জানা যায়নি।

 

৩১ জী ০১২৩

২৭০০১০

২৭-৭-৭১ ২৫/২৬ তারিখ রাতে আমাদের বাহিনী ণাড়ায়াণপূড়ে আক্রমণ করে। এস কিউ ৮৫৪৬ এম এস ৭৯এ/১৬। আমাদের বাহিনী শ্রী চন্দ্রপুরে আক্রমণ করে। এস কিউ ৪৫৮৫ এম এস ৭৯এ/১৬। ১ পাঞ্জাবি, ২ রাজাকার ও ১ শান্তি বাহিনীর সদস্য নিহত হয়।

 

৩২ জি ০১২৪

২৯১১০০

৩০-৭-৭১ ছুটিপুরে শত্রুদের পজিশনে ১ জন অফিসার, ২ জে সি ওসহ ৭৫ জন বিভিন্ন র‍্যাঙ্কের সবাই ২ ভাগে বিভক্ত হয়ে আক্রমণ করা হয়। উভয়ে ২৮০৩৪৫ টায় পজিশন নেয়। ২৮০৪১৫ থেকে ২৮০৪৪৫ এর মধ্যে এম এফ সি ও আর্টিলারি দিয়ে আক্রমণ চলে। ২ ইঞ্চি মর্টার ও এল এম জি দিয়ে গুলি করতে করতে দুই গ্রুপ গ্যাপ কমাতে থাকে। শত্রুরা ২ টি এইচ এম জি, ৬ টি এল এম জি ৪ টি এস এম জি ওটো রাইফেল, রকেট লাঞ্চার, LIRAT দিয়ে জবাব দেয়। বাঙ্কার থেকে রকেট লাঞ্চার মিস ফায়ার করে। LIRAT সরাসরি বাঙ্কারের এইচ এম জিতে আঘাত করে। বাঙ্কার স্তব্ধ হয়ে যায়। পাশের দালানের উপরেও আঘাত হানে। ২০০ গজের মধ্যে তাদের সীমিত করে ফেলা হয়। শত্রুরা তখন ৩ ইঞ্চি ৮১ মি মি মর্টার দিয়ে এটাক করে। ০৭৪৫ পর্যন্ত চলে। আমরা আর্টিলারির সাহায্য নেই। এভাবে ০৮১৫ টা পর্যন্ত চলে। চাক্ষুষ সাক্ষ্য অনুযায়ী জানতে পারি ১ টি এইচ এম জি নষ্ট হয়েছে। ১২ জন নিহত হয়েছে। অনেক আহত হয়েছে। একজন সাধারণ জনগণ এর হাতে গুলি লাগে। তাকে তাঁর বন্ধুরা বেইজ হাসপাতালে নিয়ে যায়।

 

৩৩ জি ০১৪৯

৩১২০০০

১-৮-৭১ ২৮-৭-৭১ তারিখে যুদ্ধ চলাকালীন সময়ে ১ টি স্টেনগান ন-এফ ই ৩৮৯২৩ একটি ম্যাগাজিনসহ হারিয়ে যায়।

 

৩৪ জি ০১২৫

৩১১৬০০

১-৮-৭১ ৩০/৩১ তারিখ রাতে কাবিলপুড়, দেঙ্কিপোতায় অ্যামবুশ করা হয়। ৪০/৫০ জন শত্রুর একটি দল সেখানে আসে। চাক্ষুষ সাক্ষী মতে ১০ জন নিহত ও ২৬ জন শত্রুসেনা আহত হয়।

 

৩৫ জি ০১২৩

০৬০১০০

৬-৮-৭১ আমাদের বাহিনী বর্নিতে আক্রমণ করে একটু কম সফলভাবে অপারেশন শেষ করে। এস কিউ ৮০৬৮ এম এস ৭৯ এ/১৫ তারিখ-৫ আগস্ট ০৪০০ টা। অনেক হতাহত হয়।

 

৩৬ জি ০১২৭

০৭১১০০       

৭-৮-৭১ আমাদের ৭ জনের একটি বাহিনী গোয়ালহাটিতে অ্যামবুশ করে। এস কিউ ৯১৫৯ এম এস ৭৯ই/৪ তারিখ-০৬০৭০০। ১০০০ টায় এম্বুশ করে। শত্রুদের ২৫/৩০ জন ছিল সেখানে। চাক্ষুষ সাক্ষী মতে ৩ জন নিহত ও ৫ জন আহত হয়। একজন গ্রামের একশন কমিটির লোক আহত হয়। রেফারেন্স নম্বর-জি ০১২৬-০৬ আগস্ট। ৪২ জন শত্রু নিহত ও অনেক আহত হয়। অনেক বাঙ্কার ধ্বংস হয়।

 

৩৭ জি ০১২৮

১১০৯৩০

১১-৮-৭১ আমাদের বাহিনী ০৯১৪০০ টায় গোয়ালাহাটিতে অ্যামবুশ করে। এস কিউ ৯১৫৮ এম এস ৭৯ই/৪ ১৬০০ টায় ১১ জন শত্রুদের একটি দল পূর্ব দিক থেকে নৌকায় কাবাদাক নদী পার হবার চেষ্টা করে। তখন অ্যামবুশ পার্টি গুলি করে-নৌকা ডুবিয়ে দেয়। সব যাত্রী ডুবে যায়। চাক্ষুষ সাক্ষীর কাছ থেকে জানি শুধু এখন স্থানীয় জনগণ সাতরে কুলে আসে। ছুটিপুর থেকে ২৫/৩০ জনের একটি শত্রু দল ৩ইঞ্চি মর্টার ও হেভি মেশিন গান নিয়ে আক্রমণ করতে আসে। প্রচুর গোলাগুলি হয়। চাক্ষুষ সাক্ষ্য মতে ৯ জন নিহত ও ৫ জন শত্রুসেনা আহত হয়। একজন সদস্য অসীম সাহসের সাথে সরাসরি এইচ ই ৩৬ নিক্ষেপ করে পাকসেনাদের দিকে।

 

৩৮ জি ০১২৯

১১১২০৫

১১-৮-৭১ আমাদের বাহিনী ১০১৮৩০ টায় ১৪ জনের একটি দল কাটাগাছিতে অ্যামবুশ করে। এস কিউ ৯০৪৫ এম এস ৭৯ই/৪ ১২১০০ টায় রাজাকার রা রাস্তায় ডিউটি করতে আসে। মাইনসহ অ্যামবুশ পার্টি তাদের দিকে গুলি ছোড়ে। নাভারনের শত্রুরা এল এম জি এস এম জি দিয়ে পালটা গুলি করে। ২ রাজাকার নিহত ও ২ জন আহত হয়। নিম্ন লিখিত জিনিস আমারা জব্দ করি-১ টি ১২ বোর এস বি বি এল গান, কার্ট ৪ টি। আমাদের একজন একাই ঝকরগাছার একটি স্থানে আক্রমণ করে ৫ জন রাজাকার হত্যা করে। সময়-০৮২১৩০টা। ১ টি ৩০৩ রাইফেল ও ৭ রাউন্ড গলি জব্দ করে।

 

৩৯ জি ০১৮৬

১৭১৭০০

১৭-৮-৭১ একটি ওয়্যারলেস সেট জব্দ করা হয়।
৪০ জি ০১৩২

১৭১০৪৫

১৭-৮-৭১ আমাদের বাহিনী ১৪/১৫ তারিখ রাতে যশোর চৌগাছা রাস্তায় জাগাতির কাছে একটু সড়ক ব্রিজ ধ্বংস করে। এস কিউ ০০৬৫ এম এস ৭৯ই/৪ ৩০ বাই ১৬ ফুট ধ্বংস হয়। ২ টি টেলিফোনের খুঁটি ধ্বংস করা হয় তারসহ। কমপক্ষে ৩ দিনের যোগাযোগ নষ্ট হল। ৪ জন সিভিলিয়ান আমাদের পতাকা নামিয়ে ফেলতে গেলে আমাদের গুলিতে ১ জন নিহত হয়। ১৫১৬০০ টায় ছুটিপুরে হাল্কা গুলি বিনিময় হয়। জি ০১৩০ ১৫ আগস্ট। কোন পক্ষেকেউ আহত হয়নি। ১৪১৯১৫ টার সময়একটি স্থানে ২ জন রাজাকার ও আরও ৮ জন আহত হয়। আরেকটি আক্রমণে ৪ জনের দল ১২ জন পাকসেনা নিহত ৭ জন আহত ও ৪ টি বাঙ্কার ধ্বংস করে। এটি ছুটিপুরের ঘটনা।

 

৪১ জি ০১৩৩

১৮১০১০

১৮-৮-৭১ আমাদের বাহিনীর ৭ জন ও ৬ জন সিভিলিয়ানের একটি দল নিরচন্দ্রপুরে সরাতলায় আক্রমণ করে। এস কিউ ৮৭৪৭ এম এস ৭৯ এ/১৬ সময় ১৭১৯৩০টা। শত্রুরা এক সময় পালিয়ে যেতে শুরু করে। শান্তি বাহিনীর একজন নিহত হয়। একটি এস বি বি এল গান, ১ টি ওয়্যারলেস সেট-মডেল ৪৪ জি আর সি ৬২-কন্ডিশন ভালো হস্তগত হয়। সময় ১৭০৮০০ টা। ছুটিপুরে আমাদের এম এফ সি রা শেল দিয়ে আক্রমণ করে। শত্রুদের হতাহত জানা যায়নি। তবে তাদের থাকার ঘর ধ্বংস হয়।

 

৪২     জি ০১৩৪

১৯০৪৫

২০-৮-৭১ আমাদের বাহিনী লজুং গেটে ৬ রাজাকারকে হত্যা করে। এস কিউ ৪২৫১ এম এস ৭৯ই/৪ তারিখ-১৭/১৮ রাতে। আটলিয়াতে ১ ঘণ্টা ব্যাপী আরেকটি আক্রমণ হয়। এস কিউ ৯১৬০ এম এস ৭৯ই/৪ তারিখ-

181130। শত্রুরা ছুটিপুরের দিকে দৌড়ে পালিয়ে যায়। এন সি ও আই /সি থেকে জানতে পারি ৫ জন নিহত ও ২ জন আহত হয়।

 

৪৩ জি ০১৩৫

২২১০২৫

২২-৮-৭১ আমাদের বাহিনী ১ অফিসার ৩ জন জে সি ওসহ ৯৫ জন ছুটিপুরে আক্রমণ করে। এস কিউ ৯২৫৭ এম এস ৭৯ই/৪ তারিখ-২১০৫০০। আমাদের এম এফ সি ২১০৪৩০ থেকে ২১০৫১০ টা পর্যন্ত শেল নিক্ষেপ করে আর্টিলারি দিয়ে। এছাড়া ২ ইঞ্চি মর্টার ও LIRAT দিয়ে আক্রমণ করে। শত্রুরা এইচ এম জি, ২/৩ ইঞ্চি মর্টার ও এস এম জি দিয়ে আক্রমণ করে। তাদের ১৫০ গজের কাছে পৌঁছে যাই। প্রচুর গোলাগুলি হয়। ২১ শে আগস্ট পাক এজেন্ট মহামোহ ইয়াসিন সিকিউরিটি পাস কার্ডসহ আটক হয়-তাকে ইন্টারোগেশনে নেয়া হয়। খুলনা সেক্টরকে আরও ইফেক্টুভ করা হয়।

 

৪৪ জি ০১৩৬

২৩১৮০০

২৪-৮-৭১ আমাদের বাহিনী ২২১৭১০ টায় ৩ ইঞ্চি মর্টার দিয়ে ৩০ রাউন্ড গুলি চালায় ছুটিপুরে। এস কিউ ৯২৫৭ এম এস ৭৯ই/৪ তারিখ-। শত্রুরা ৮১ মি মি দিয়ে ২২১৮০০ টায় জবাব দেয়। ৩ টি বাঙ্কার ধ্বংস হয়।

 

৪৫ জি ০১৩৭

২৬০৮০

২৬-৮-৭১ আমাদের বাহিনী ২৪০৪৪৫ টায় ৩ ইঞ্চি মর্টার দিয়ে ২৪ রাউন্ড গুলি চালায় ছুটিপুরে। এস কিউ ৯২৭৫ এম এস ৭৯ই/এ তারিখ-। শত্রুরা ৮১ মি মি দিয়ে ২৪০৮৩০ টায় জবাব দেয়।

 

৪৬ জি ০১৩৮

৩১০৯০০

৩১-৮-৭১ আমাদের বাহিনী ৩০১৭০০ টায় ৩ ইঞ্চি মর্টার দিয়ে ৩০ রাউন্ড গুলি চালায় ছুটিপুরে। এস কিউ ৯২৫৭ এম এস ৭৯ই/৪ তারিখ-। শত্রুরা ৮১ মি মি দিয়ে ২২১৮০০ টায় জবাব দেয়।

 

৪৭ জি ০১৩৯

০৬০৬০০

৭-৯-৭১ আমাদের বাহিনী পাকসেনা আর রেঞ্জারদের ৪৬ জনের একটি দল দসাতিনা মধুখালি রোডে আক্রমণ করে। এস কিউ ৯৪৫২ এম এস ৭৯ই/৪ তারিখ-০৫১১৩০। ২৬ জন নিহত ও ৬ জন আহত হয়। ১৫০ জন পাকসেনাদের একটি দল ছুটিপুর থেকে গয়ালাহাটি সাতিলা যাচ্ছিল। ১০/১১ জন পাকসেনা নিয়ে একটি নৌকা মহদপুরে ডুবে যায়। সাথে সব সৈন্য, এল এম জিসহ ডুবে যায়। ১৫৩০ টায় এডভান্সড ট্রুপ্স আসে এবং ১৬০০ টায় আক্রমণ করে। এতে ২৩ জন নিহত ও অনেক আহত হয়। আমাদের ৯৪৫৯ এ UNK নুর মোহাম্মদ শাহিদ হয়। লাশ কাশীপুরে দাফন করা হয়। এছাড়া গোয়ালাহাটিতে ১ জন সিভিলিয়ান নিহত ও ২ জন সিভিলিয়ান আহত হয়। আমাদের বাহিনী গরিব পুরে ২৬ জনের একটি দল আক্রমণ করে। এস কিউ ৯৩৬৫ এম এস ৭৯এ/১৬। সময় ০৫০২৩০ থেকে ০৫০৩০০ পর্যন্ত। ২ জন সৈন্য নিহত হয়। আমাদের গণবাহিনী একটু এলোমেলো হয়ে যায়। এখন পর্যন্ত ২১ জন রিপোর্ট করেছে-বাকি ৫ জন এখনো করেনাই।

 

৪৮ জী ০১৪১

০৭২০৩০

৮-৯-৭১ গণবাহিনীর ৩ টি ডোল নীচের অপারেশন চালায়। ১-বাড়ীনগর হ্যাপ আক্রমণ করে। এটি যশোরের কোতোয়ালি থানায় ০৩০২০০ সেওতেম্বের। ৩১ জন রাজাকার নিহত ও ৩৫ জন রাজাকার আহত হয়। ২-মেহেরুল্লা নগরে ২৯ আগস্ট আক্রমণে ৩ সেট টেলিফোন, ২ টি সিল ও টিকেট জব্দ করা হয়। ১ টি এমকে রাইফেল ২ টি এস বি বি এল গান জব্দ হয়। ১ টি আরিগান, ৩৬ টি এইচ ই গ্রেনেড উদ্ধার করা হয় আরিচাপুরে, থানা যশোর, এবং কোতোয়ালি ও মাদসাডাঙ্গা, থানা ঝিকরগাছা থেকে।

 

৪৯ জি ০১৪৩

০৯২১০০

১০-৯-৭১ নিয়মিত বাহিনী ০৯১৫৩০ সেপ্টেম্বর সঞ্চাডাঙ্গায় অ্যামবুশ করে। ২ শত্রু নিহত হয়। ১ টি এম ১৬ মাইন পোতা হয় গঙ্গানন্দপুরে। এস কিউ ৯১৫৬ এম এস ৭৯ই/৪-এতে ৭ সেপ্টেম্বরে পাকসেনারা আক্রান্ত হয়। ৩ জন নিহত ও ৫ জন আহত হয়।

 

৫০ জি ০১৪৬

১৬১০০৫

১৭-৯-৭১ ১৪/১৫ তারিখ রাতে আমাদের বাহিনী মাস্লিয়াতে আক্রমণ করে। শত্রুদের ৭ জন নিহত হয়।

 

৫১ জি ০১৫০

১৯১২৩০

২০-৯-৭১ আমাদের বাহিনী ১৬১৬৩০ সেপ্টেম্বর জাদাবপুরে অ্যামবুশ করে। এস কিউ ৭৬৬৮ এম এস ৭৯ এ/১৫। শত্রুদের ৬ জন নিহত হয়। আমাদের ৩ জন আহত হয়। আমাদের বাহিনী ১৩ সেপ্টেম্বর মধুখালিতে অ্যামবুশ করে। এস কিউ ৯৪৫২ এম এস ৭৯ ই/৪। শত্রুদের ৩ জন পাকসেনা ও ১ জন রাজাকার নিহত হয়। ২ জন আহত হয়।

 

গণবাহিনী ১২/১৩ তারিখ রাতে সব্দাপুর রেইল ওয়ে স্টেশনে যোগাযোগ ধ্বংস করে ও বাড়ি পুড়িয়ে দেয়। ৩ টি টেলিফোন সেট ও ৫ টি ব্যাটারি জব্দ করে। এগুলো এ পি ইউনিটে জমা দেয়। হাফিজুদ্দিন CUC বাকা জীবন নগর থানা-পাকসেনাদের সাহায্য করার জন্য গণবাহিনীর হাতে নিহত হয়।

 

৫২ জি ০১৫১

২২০৮০০

২২-৯-৭১ আমাদের বাহিনী রাজাপুরে ৪০/৫০ জন পাকসেনার অবস্থানে ২১ সেপ্টেম্বর অ্যামবুশ করে। এস কিউ ৭৮৬৩ এম এস ৭৯ এ/১৫। শত্রুদের ২০ জন নিহত হয়। আমাদের ২ জন আহত হয়। অন্য একটি অ্যামবুশে ৫ জন নিহত হয়।

 

গন বাহিনী দস্তানিয়াতে পাকসেনার অবস্থানে ১৮ থেকে ২১ সেপ্টেম্বর আক্রমণ করে। এস কিউ ৯৩৫৩ এম এস ৭৯ ই/৪। ১৫ জন শত্রুসেনা নিহত হয়। দস্তানিয়া-ঝিকরগাছা রাস্তায় গণবাহিনী আধিপত্য বিস্তার বজায় রাখে। গত ৩ দিন ধরে শত্রুদের গাড়ি ঝিকরগাছায় আটক করা হয়েছে।

 

৫৩ জি ০১৫৩

২৪১৮০০

২৪-৯-৭১ আমাদের বাহিনী গোয়ালাহাটিতে ২২১৫০০তে অ্যামবুশ করে। এস কিউ ৯১৬৯ এম এস ৭৯ ই/৪। শত্রুদের ৪ জন নিহত ২ জন আহত হয়। ২৩১৬০০তে আবার অ্যামবুশ করে। এতে ৪ জিন নিহত হয়। এখন সিভিলিয়ান আহত হয়।

 

৫৪ জি ০১৫৪

০১১৬১৫

২-১০-৭১ আমাদের বাহিনী বর্নিতেতে অ্যামবুশ করে। এস কিউ ৮০৬৮ এম এস ৭৯ এ/১৫। শত্রুদের 9 জন নিহত 3 জন আহত হয়।এখন সিভিলিয়ান সাহায্যকারী’ নিহত হয়।

 

আমাদের বাহিনী ছুটিপুরে ২৯/৩০ সেপ্টেম্বরতে অ্যামবুশ করে। এস কিউ ৯২৫৭ এম এস ৭৯ ই/৪। হতাহত জানা যায়নি। গণবাহিনী ৩০ সেপ্টেম্বর বর্নি থেকে ১ জন রাজাকার আটক করে। ১৯/২০ সেপ্টেম্বর পাল্লা গ্রামে অভিযান চলে। এস কিউ ৯২৫২ এম/এস ৭৯ ই/৪। শত্রুদের ৬ জন নিহত ৪ জন আহত। ২৪ সেপ্টেম্বর ২ মাইল টেলিফোনের তার কাটা হয়। ২৯ সেপ্টেম্বর দস্তানিয়াতে এ/পি মাইন এ ২ জন আহত হয়।

 

৫৫ জি ০১৫৫

০৫১১৩৫

৫-১০-৭১ নিয়মিত বাহিনী বর্নি আক্রমণ করে। এস কিউ ৮০৬৮ এম এস ৭৯এ/১৫ আর্টিলারি বাহিনী ছুটিপুরে ০৩১৫০০ অক্টোবর আক্রমণ করে। এস কিউ ৯১৫৭ এম এস ৭৯ এ/৪। মেইন ডিফেন্স প্রায় শেষ হয়ে যায়। গ্রাম বাসীরা যানায় ১২ জন নিহত ও ২৮ জন আহত হয়েছে।

 

আমাদের বাহিনী ২ অক্টোবর মখলেস্পুর থানা স্কুল আক্রমণ করে। এস কিউ ৭৯৮০ এম এস ৭৯ এ/১৫। ২ পাক আর্মি ৪ রাজাকার নিহত।

 

বরবকপুরে ২ অক্টোবর আক্রমণ হয়। এস কিউ ৯৭৫০ এম এস ৭৯ ই/৪।

 

২/৩ অক্টোবর মাগুরার দুলালরামদিতে আক্রমণ হয়। এস কিউ ০৪৮৩ এম এস ৭৯ ই/৩। আমাদের ১ জন আহত।

 

১৮/১৯ সেপ্টেম্বর মাহাসিম্পুরে আক্রমণ হয়। এস কিউ ১৪৬৩ এম এস ৭৯ ই/4। ৫ জন রাজাকার নিহত হয়।

 

৫৬ জি ০১৫৮

০৭১৯০০

৮-১০-৭১ ০৭০৭০০ অক্টোবর নিয়মিত বাহিনী গোয়ালহাটি পেট্রলে অ্যামবুশ করে। এস কিউ ৯১৫৯ এম এস ৭৯ ই/4।

গন বাহিনী কাগ্মারি আক্রমণ করে। এস কিউ ২০৫৬ এম এস ৭৯ ই/৪ তারিখ-০৭০৬৩০ অক্টোবর। শত্রু ৫ জন নিহত ৩ জন আহত।

 

৫৭ জি ০১৬১

০৯১০০৫

১০-১০-৭১ নিয়মিত বাহিনী ও গন বাহিনী জামালপুর রেইল ওয়ে স্টেশন আক্রমণ করে। এস কিউ ৬৭১০ এম এস ৭৯ ই/১০ তারিখ-১২ সেপ্টেম্বর। ৫ রাজাকার নিহত হয়। রেলপথ নষ্ট করা হয়।

 

বোয়ালখালি থানা আক্রমণ করে। এস কিউ ৫০১৩ এম এস ৭৯ ই/১০ তারিখ-২১ সেপ্টেম্বর। ৩৯ জন পাক পুলিশ ও ১ জন রাজাকার নিহত হয়। ২৩ জন বাঙ্গালী পুলিশ ও রাজাকারকে আটক করা হয়-পরে সহায়তা করার শর্তে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। ৪৩ টি রাইফেল ৩০৩ বল এমও ৮০০ জব্দ হয়।

 

পাহাড়পুর এস কিউ ৫২১৯ ও রামদিয়া এস কিউ ৫৪১৬ এর মাঝখানে রেলপথ ধ্বংস করা হয়। এম এস ৭৯ ই/১০ তারিখ-২৪ সেপ্টেম্বর। ২২ সেপ্টেম্বর ২ জন রাজাকার ২ টি রাইফেল ৩০৩ বল এমও ৭৩সহ আত্ম সমর্পন করে।

নিয়মিত ও গন বাহিনী নোকালে আক্রমণ করে। এস কিউ ৪৩০৩ এম এস ৭৯ ই/৬ তারিখ-২৩ সেপ্টেম্বর। ৩৫ জন পুলিশ ও রাজাকার আটক করা হয় ও পরে সাহায্য করার শর্তে ছেড়ে দেয়া হয়। ৩৩ টি রাইফেল ৩০৩ বল এমও ২০০ জব্দ হয়।

 

ইছাখাদা রাজাকার ক্যাম্পে আক্রমণ করে। এস কিউ ২৯৯৬ এম এস ৭৯ ই/৭ তারিখ-২৬ সেপ্টেম্বর। ৫ রাজাকার নিহত হয়।

 

আমাদের বাহিনী মাগুরা শহরে আক্রমণ করে। এস কিউ ৩৫৯৬ এম এস ৭৯ ই/৭ তারিখ-২৭ সেপ্টেম্বর।

৭ পাকসেনা ও ১৪ রাজাকার নিহত হয়। অনেক আহত হয়।

 

আমাদের বাহিনী মখলেস্পুর আক্রমণ করে। এস কিউ ৭৯৮০ এম এস ৭৯ এ/১৫ তারিখ-১ অক্টোবর। ২ পাকসেনা ও ২ রাজাকার নিহত। মহেশ পুর রাজাকার ক্যাম্প বন্ধ করে দেয়া হয়।

 

আমাদের বাহিনী পীরগাছা এম্বুশ করে। এস কিউ ৭১৮০ এম এস ৭৯ এ/১৫। তারিখ-৫ অক্টোবর। ২ পাকসেনা নিহত যাদের ১ জন সুবেদার এবং ২ রাজাকার আহত। ৭ অক্টোবর জীবন নগর থেকে ৩ জন রাজাকার আটক করা হয় ও তাদের হেড কোয়ার্টারে নিয়ে আসা হয়।

 

৬/৭ অক্টোবর রাতে কোলাগাছি ২ টি টেলিফোন খুঁটি ধ্বংস করা হয়। এস কিউ ৯১৪৫ এম এস ৭৯ ই/৪। একই রাতে ৩ মাইল টেলি তার কাটা হয় সেলুয়া এস কিউ ৯৯৬৬ এম/এস ৭৯ ই/৪ থেকে বাগডাঙ্গা এস কিউ ০৫৬৪ এম/এস ৭৯ ই/৪ পর্যন্ত।

 

সিমলাতে আক্রমণ করা হয়। এস কিউ ৬৪২৯ এম এস ৭৯ ই/৪ তারিখ-৮ অক্টোবর। ১ রাজাকার নিহত ৩ জন আহত। ৩০৩ বো এমও ১৫০ মি মি ২ টি বেয়নেট সি এম এম ১ টি বাইসাইকেল ও ৩০ টি পার্সোনাল বক্স জব্দ।

 

৫৮ জি ০১৬৩

৯-১০-৭১

১১-১০-৭১ পাকসেনারা গণবাহিনীকে চারিদিক থেকে আটকে ধরতে চাইছিল কায়েমখোলা নামক স্থানে। এস কিউ ৯৮৫৮ এম এস ৭৯ ই/৪ তারিখ-০৮১১০০ অক্টোবর। গুলি বিনিময় চলে। ২ জন নিহত ১ জন আহত হয়। মুজিব বাহিনীর ১ জন নিহত ও ১ জন ধরা পরে। ৭/৮ অক্টোবর ১ মাইল টেলি তার কাটা হয় ছুটিপুর থেকে দস্তানিয়ার মধ্যে।

 

৫৯ জি ২১৬৪

১০-১০-৭১

১১-১০-৭১ পাকসেনারা গণবাহিনীকে চারিদিক থেকে আটকে ধরতে চাইছিল মথুরানগর নামক স্থানে। এস কিউ ৭০৮২ এম এস ৭৯ ই/১৫ তারিখ-০৮০৯০০ অক্টোবর।

 

৪ ঘণ্টা গুলি বিনিময় চলে। শত্রুদের ১৫ জন নিহত ও ৪ জন আহত হয়। এমদের ৩ জন আহত হয়। তারিখ ০৯১৪০০ অক্টোবর। পাকসেনাদের প্রায় ২০০ জন একই এলাকা আবার ঘিরে ফেলতে চেষ্টা করে। ১৯৩০ পর্যন্ত গুলি বিনিময় চলে। হতাহত জানা যায়নি। ১ জন রাজাকার কোটচাঁদপুরে আত্ম সমর্পন করে ১ টি রাইফেল ৩০৩ বল এমও ১০সহ।

 

৬০ জি ০১৬৮

১১-১০-৭১

১৩-১০-৭১ গন বাহিনী চুরামাঙ্কাটিতে টেলিফোন খুঁটি উড়িয়ে দেয়। এস কিউ ০৫৬৪ এম এস ৭৯ ই/৪ তারিখ-৭/৮ অক্টোবর রাতে। হামিদপুরে ৪ রাজাকার আটক হয়। এস কিউ ১৬৫৬ এম/এস ৭৯ ই/৮।

 

৬১ জি ০১৬৬

১১-১০-৭১

১৩-১০-৭১ গন বাহিনী দোস্তানিয়া আক্রমণ করে। এস কিউ ৯৩৫৩ এম এস ৭৯ ই/৪ তারিখ-৯/১০ অক্টোবর রাতে। ১৩ জন শত্রুসৈন্য নিহত হয়।

 

এস কিউ ৭১৮১ এম এস ৭৯ এ/১৫তে অ্যামবুশ করে তারিখ-১০১৫৩০ অক্টোবর। আন্দুল্বাড়িয়াতে ৪ জন পাকসেনা নিহত ও ২ রাজাকার আটক। এস কিউ ৭৫৯৫ এম/এস ৭৯ এ/১৫। আমাদের ১ জন আহত হয়। শত্রুপক্ষের কমান্ডার মেজর মন্সুর হাঁটুতে আঘাত পান। হতাহত প্রচুর হয়েছে যানা যায়। এখনো সেখানে লাশ ভেসে বেড়াচ্ছে।

 

৬২ জি ০১৬৯

১২-১০-৭১

১৩-১০-৭১ ১১১৭০০ অক্টোবর পুরাতন ছূটিপুর ডিফেন্স খালি করে দেয়া হয়। ৫০০ গজ দক্ষিণে পুরাতণ ডিফেন্সে নতুন আস্তানা করা হয়। ছুটিপুরে শত্রুদের প্রচুর গলা আক্রমণ চলে। আমাদের কোন হতাহত হয়নি।

 

৬৩ জি ০১৭২

১৩১৬৩০

১৫-১০-৭১ নিয়মিত বাহিনী কাগ্মারি এম্বুশ করে। এস কিউ ৯০৫৬ এম এস ৭৯ ই/৪ তারিখ-১২১৬০০ অক্টোবর। শত্রুদের ২ জন নিহত হয়।

 

আমাদের বাহিনী সাঞ্ছাডাঙ্গাতে আক্রমণ করে। এস কিউ ৮৪৬৮ এম এস ৭৯ এ/১৫। তারিখ-১১ অক্টোবর শত্রুদের ১২ জন নিহত।

 

একই দিনে ছাউগাছা আক্রমণ করে। এস কিউ ৯০৬৯ এম এস ৭৯ ই/৩ এবং মাসলিয়া আক্রমণ করে। এস কিউ ৮৬৬৬ এম এস ৭৯ এ/১৬। শত্রুদের ৪ জন নিহত ৪ জন আহত হয়।

 

৬৩ জি ০১৭৪

১৩-১০-৭১

১৪-১০-৭১ বয়রা থেকে চৌগাছা শেল নিক্ষেপ করা হয় ১৩১৪০০ থেকে ১৫০০ টা পর্যন্ত। কিন্তুতেমন ফল হয়নি।
৬৪ জি 0১৭০

১২-১০-৭১

১৫-১০-৭১ গন বাহিনী সব্দাল্পুর রেলওয়ে স্টেশনে রাজাকার ক্যাম্প আক্রমণ করে। এস কিউ ৮৩৯২ এম এস ৭৯ এ/১৫ তারিখ-০২০৩০০ অক্টোবর। ১৩ জ ণ রাজাকার ধরা হয় কিন্তু আমাদের সাহায্য করবে শর্তে ছেড়ে দেয়া হয়। ১৩ টি রাইফেল ৩০৩ বল ৭৫ জব্দ।

 

সুন্দরপুর রেলওয়ে স্টেশনে পাত খুলে ফেলা হয়। এস কিউ ৯৬৮৫ এম এস ৭৯ ই/৩ তারিখ-০৭২৪০০ অক্টোবর। বাংলাদেশের ভিতরে একটি টেলিফোন সেট রাখা হয়।

 

 

৬৫ জি ০১৭৭

১৬-১০-৭১

১৮-১০-৭১ গন বাহিনী সিরগ্রামে পাকসেনা ও রাজাকার ভর্তি একটি সিভিল লঞ্চে আক্রমণ করে। এস কিউ ৬৩৭৮ এম এস ৭৯ ই/১১ তারিখ-০৬ সেপ্টেম্বর। হতাহত নিশ্চিত জানা যায়নি। ১ টি স্টেনগান ও ৬ টি রাইফেল জব্দ।

 

লোহাগাড়া উপজিলা অফিসে আক্রমণ করে পুড়িয়ে দেয়া হয়। এস কিউ ৬১৫৯ এম এস ৭৯ ই/১২ তারিখ-১৬ সেপ্টেম্বর।

 

লোহাগাড়া পোস্ট অফিসে আক্রমণ করে পুড়িয়ে দেয়া হয়। এস কিউ ৬১৫৯ এম এস ৭৯ ই/১২ তারিখ-২৮ সেপ্টেম্বর। ২ রাজাকার নিহত হয়।

 

ভাটিয়াপাড়া ওয়্যারলেস স্টেশন আক্রমণ করা হয়। এস কিউ ৬৬৬২ এম এস ৭৯ ই/১২ তারিখ-অক্টোবর। দুইটা এফ ৮৬ গণবাহিনীর উপর ক্রমাগত আক্রমণ করছিল। ১৭ জন পাকসেনা ও রাজাকার নিহত হয়। ৬ টি রাইফেল জব্দ হয়।

 

আড়পারাতে প্রায় ৫০০০ সরনার্থি রাজাকারদের কাছে বন্দী ছিল। এস কিউ ৩০৮২ এম এস ৭৯ ই/৭ তারিখ-অক্টোবর। অনেক গুলি বিনিময় হয়।

 

এক রাজাকার ১ টি রাইফেল ৩০৩ বল এমও ৫সহ আটক হয় গাধখালিতে। এস কিউ ৯৫৪৬ এম এস ৭৯ ই/৪। তাকে ২ অক্টোবর কয় হেড কোয়ার্টারে আনা হয়। ১৪ অক্টোবর ১ জন রাজাকার আত্ম সমর্পন করে।

 

১২/১৩ অক্টোবর রাতে হাকিমপুরে পাকসেনা ও রাজাকার রা আমাদের বাহিনী ঘিরে ফেলে। এস কিউ ৯২৭৯ এম এস ৭৯ ই/৪। প্রচুর গুলি বিনিময় হয়। শত্রুদের ১ জন নিহত ও ৩ জন আহত হয়। আমাদের ১ জন আহত হয়। তাকে বনগাঁও হাসপাতালে পাঠানো হয়। আমাদের একজন এস এল আরসহ পাক বাহিনীর কাছে বন্দী হয়।

 

পাক বাহিনী হাকিমপুরে ভারত গামী শরনার্থিদের উপর গুলি চালাতে থাকে। এস কিউ ৯২৭৯ এম এস ৭৯ ই/৪। ৫ জন রাজাকার নিহত।

 

৬৬    জি ০১৭৯

১৭-১০-৭১

১৮-১০-৭১ গন বাহিনী নাভারনে আক্রমণ করে। এস কিউ ৮৮৪৪ এম এস ৭৯ ই/৪ তারিখ-১৪/১৫ অক্টোবর রাতে

২ জন পাকসেনা ও ৩ রাজাকার নিহত।

 

১৫/১৬ অক্টোবর রাতে বারবাকপুর এস কিউ ৯৬৫০ ও মধুখালি এস কিউ ৯৪৫২ এর মাঝে টেলিফোন রাস্তা ধ্বংস করা হয়। দস্তানিয়ে-ঝিকরগাছায় একটি রেশনবাহি কার্টে ১৫১৬০০ অক্টোবর অ্যামবুশ করা হয়। ৩ রাজাকার আহত হয়। ১ টি এল এম জি ম্যাগাজিন জব্দ করা হয়। ১৪/১৫ তারিখ রাতে বারবাকপুর মধুখালি টেলি কমিউনিকেশন নষ্ট করা হয়। ১৫১৬০০ অক্টোবর এস পি ইউনিট চৌগাছাতে শেল নিক্ষেপ করে। চৌগাছা ব্রাঞ্চ এস কিউ ৯৬৯ এম / এস ৭৯ ই/৩ সামান্য বিধ্বস্ত হয়। ১৬ জন সিভিলিয়ান নিহত ও ২ হন আহত হয়। সেই কারণে সেই সময়ে ভারতীয় আর্মি ও মুক্তিফৌজের উপর স্থানীয় জনতা ক্ষিপ্ত ছিল।

 

৬৭    জি ০১৮১

১৮-১০-৭১

১৯-১০-৭১ নিয়মিত বাহিনী দোস্তানিইয়া আক্রমণ করে। এস কিউ ৯৩৫৩ এম এস ৭৯ ই/৪ তারিখ-১৭০৬০০ অক্টোবর। ৩ জন পাকসেনা নিহত ২ রাজাকার আহত হয়। আর্টিলারি সাপোর্টে ট্রুপ্স স্থান ত্যাগ করে।

 

৬৮ জি ০১৮৩

১৯-১০-৭১

২০-১০-৭১ নিয়মিত বাহিনী বিশাহারি আক্রমণ করে। এস কিউ ৮৯৫৮ এম এস ৭৯ ই/৪ তারিখ-১৭০৫০০ অক্টোবর। ৩ ইঞ্চি মর্টার ইউজ করা হয়। ১ জন শত্রু মারা যায়।

 

পুরাপারায় এম ১৬ মাইন বিস্ফোরণে ৪ জন নিহত ও ৪ জন আহত হয়। এস কিউ ৮২৭০ এম এস ৭৯ এ/১৫।

 

গন বাহিনী নেক্সাল ক্যাম্প পুলুম আক্রমণ করে। এস কিউ ২৮৭ এম এস ৭৯ ই/৭ তারিখ-১২ অক্টোবর। ৩০৩ রাইফেল ১৭ টি, এস এল আর ৩ টি, এল এম জি ১ টি, এস এম জি ১ টি, ডি বি বি এল গান ৪ টি, এস বি বি এল গান ৫ টি, আইর গান ১ টি, রিভলভার ২ টি, ৩০৩ বল এমও ১১৪৬, 76২ এমও ১৬২৬ ও ৯ মি মি ১১৫ টি জব্দ হয়। এগুলো বাংলাদেশে রাখা হয়।

 

গন বাহিনী ১৫/১৬ অক্টোবর আড়পারায় রাজাকারদের আক্রমণ করে। এস কিউ ৩০৮২ এম এস ৭৯ ই/৭। ৪ রাজাকার নিহত ও ১২ জন আটক হয়। তাদের নাম এখনো যানা যায়নি। ৩ টি রাইফেল, ৩০০ বো এমও ৫০ বাংলাদেশের ভেতরে জব্দ করার পর রেখে দেয়া হয়।

 

পাকসেনা সমর্থিত রাজাকাররা নাভারন থেকে মর্টার নিয়ে নাজিম্পুরে আগাচ্ছিল। এস কিউ ৮৪৪৯ এম এস ৭৯ এ/১৬ তারিখ-১৮১০০০ অক্টোবর। গণবাহিনী তাদের পথে বাঁধা দেয়। শত্রুরা গৌর পাড়া চলে যায় এস কিউ ৮৫৩৫ এম এস ৭৯এ/১৬। তারা নিজাম্পুর বাজার জ্বালিয়ে দেয়। এস কিউ ৮৪৯৯ এম/এস ৭৯ এ/১৬। আমাদের ২ জন আহত হয়। ৭ জন সিভিলিয়ান নিহত হয়।

 

 

৬৯     জি ০১৮৫

২০-১০-৭১

২১-১০-৭১ ৩ প্লাটুন শত্রুসেনা ছুটিপুর থেকে শক্তি বৃদ্ধি করে আগাতে থাকে। এস কিউ ৯১৫৮ এম এস ৭৯ ই/৪। তারা বিশাহারি এস কিউ ৮৯৫৯ গোয়াল হাঁটই এস কিউ ৯১৫৯ বালিয়া এস কিউ ৮৯৫৭ এম /এস ৭৯ ই/৪ এর দিকে আগাতে থাকে ১৯১৬০০ অক্টোবর। আমাদের বাহিনী তাদের এম্বুশ করে। প্রথমে ৭ জন নিহত হয়। পরে আরও ১০ জন নিহত হয় যখন তারা লাশ নিতে এসেছিল-তখন ৩ ইঞ্চি মর্টারে আক্রান্ত হয়। মত ১৭ জন শত্রুসেনা নিহত হয়।

 

গন বাহিনীকে ১৫০ জন পাকসেনা ও রাজাকাররা সাজিলিতে চারিদিক থেকে ঘিরে ফেলে। এস কিউ ০৩৬৫ এম এস ৭৯ ই/৪। প্রচুর মর্টার আক্রমণ হয়। ৩ ঘণ্টা চলে। শত্রুদের ১১ জন নিহত হয় যাদের মধ্যে ৪ জন ট্রুপ্স আর বাকিরা রাজাকার। এছাড়া ৩১ জন পাকসেনা ও রাজাকার আহত হয়। ১ টি বেয়োনেট জব্দ হয়।

 

১৪১০০০ অক্টোবর আবারও মাসলিয়া আক্রমণ করে। এস কিউ ৮৬৬৬ এম এস ৭৯ এ/১৬। শত্রুদের ২ জন নিহত হয়। আমরা লাশ নিয়ে আসি ও কবর দেই। ২ টি রাইফেল ১৫০ আই ডি জব্দ হয়।

 

 

৭০ জি ০১৮৮

২২-১০-৭১

২৪-১০-৭১ শত্রুরা ছুটি পুর থেকে বিশাহারি যাচ্ছিল। এস কিউ ৯২৫৮ এম এস ৭৯ ই/৪ তারিখ-২১১২৩০ অক্টোবর। আমাদের বাহিনী ৩ ইঞ্চি মর্টার ইউজ করে। হতাহত যানা যায়নি। ১৪/১৫ অক্টোবর রাতে গণবাহিনী চুরমান কাঠি এস কিউ ০৬৬৩ এম এস ৭৯ ই/৪ থেকে বড় বাজার পর্যন্ত ৩০০ গজ রেল লাইনকেটে ফেলে।

 

১৬/১৭ অক্টোবর রাতে গণবাহিনী মুবারাক গঞ্জে এস কিউ ০৪৮৬ এম এস ৭৯ ই/৩তে রেল লাইনকেটে ফেলে।

 

২০২০৩০ অক্টোবর রাতে পাট বাহী একটি শত্রু যান রঘুনাথপুরে আক্রমণ করে। এস কিউ ০৪৭৭ এম এস ৭৯ ই/৩। শত্রুদের ৩ টি ট্রাক ধ্বংস হয়।

 

১৭ অক্টোবর নহালার দিকে অগ্রসর হয় এস কিউ ৪৫৭৬ এম এস ৭৯ এ/১১। ভারী গুলি বিনিময় হয়। শত্রুদের ৩৩ জন নিহত ১৬ জন আহত হয়। কিছু স্টিলের হেলমেট ও চাইনিজ এমও ১০০ জব্দ হয়।

 

৭১ জি ০১৯১

২৪-১০-৭১

২৫-১০-৭১ বর্নিতে শত্রু পজিশনে আক্রমণ করে। এস কিউ ৮০৬৮ এম এস ৭৯ এ/১৫ তারিখ-২৪০১০০ অক্টোবর। হতাহত জানা যায়নি। ১ জন রাজাকার রাইফেল ও ৩০৩ বল এমও ১১সহ আত্ম সমর্পন করে।

 

৭২ জি ০৫৬৬

২৭-১০-৭১

২৭-১০-৭১ পীরগাছা আক্রমণ করে। এস কিউ ৭১৮১ এম এস ৭৯ এ/১৫ তারিখ-১০১৫৩০ অক্টোবর। নানা সোর্সের কাছে যাইয়া যায় প্রায় ১০০ জন হতাহত হয়েছে। মারশি এলাকায় এখনো লাশ ভেসে বেড়াচ্ছে। আমাদের একজনকে শত্রুরা ধরে ফেলে।

 

৭৩ জি ০১৯৫

২৬-১০-৭১

২৭-১০-৭১ নিয়মিত বাহিনী গোয়ালাহাটি অ্যামবুশ করে। এস কিউ ৯১৫৮ এম এস ৭৯ ই/৪ তারিখ-২৫১৬০০ অক্টোবর। ভারী গুলি বিনিময় হয়। উভয়েই ৩ ইঞ্চি মর্টার ইউজ করে।

 

২৫/২৬ অক্টোবর রাতে মাস্লিয়াতে এক্রমন করে। এস কিউ ৮৬৬৫ এম এস ৭৯ এ/১৬। আমাদের কোন হতাহত নাই।

 

৭৪ জি ০০৪৭

২৮২১০০

২৯-১০-৭১ ১কেজি ২৫০ গ্রাম সোনা ও কিছু ক্যাশ টাকা বোয়াল মারি ব্যাংকে জমা করেন গন বাহিনীর হাফিজ। অনুরোধে সেটা দ্রুত কালেকশন করা হয়।

 

৭৫ জি ০১৯৭

২৭-১০-৭১

জি ০১৯৯

২৮-১০-৭১

২৮-১০-৭১

 

২৯-১০-৭১

নিয়মিত বাহিনী ২৬ অক্টোবর পুরাপারা ও সাচ্চাডাঙ্গার মাঝে ২০০ গজ টেলি তার বিচ্ছিন্ন করে। গন বাহিনী আর্টিলারি সহায়তায় দোসাতিনা আক্রমণ করে। এস কিউ ৯৩৫৩ এম এস ৭৯ ই/৪ তারিখ-২৭ অক্টোবর। ৫ জন নিহত ৭ জন আহত হয়। আমাদের ২ জন সামান্য আহত হয়। দসাতিনা মধুখালিতে টেলিফোনের তার কাটা হয়।

 

গন বাহিনী দারিয়াপুরে নবগঙ্গা নদীতে ২ টি রাজাকার ভর্তি নৌকায় আক্রমণ করে। তখন তারা লুট করে ফিরছিল। এস কিউ ২৪০০ এম এস ৭৯ ই/৬ তারিখ-১০১৬৪৫ অক্টোবর। ২৭ রাজাকার নিহত ১৩ জন আহত হয়। নৌকা ডুবে যায়।

গন বাহিনী শ্রীরামপুরে পাকসেনা ও রাজাকার ভর্তি নৌকায় আক্রমণ করে। এস কিউ ১৮০১ এম এস ৭৯ ই/৬ তারিখ-১২১২০০ অক্টোবর। একই জায়গায় ৩ টি টেলিফোন খুঁটি উপড়ে ফেলে।

 

 বেথুলি গ্রামে ১৫ পাকসেনা ও ৪০ জন রাজাকার আসে। এস কিউ ১১৮০ এম এস ৭৯ ই/৩। গণবাহিনী তাদের অ্যামবুশ করে। ৪ জন শত্রু নিহত হয়। ৩ টি রাইফেল, ৯৫ এমও জব্দ হয়। ১৮ জন রাজাকার ১৪ টি রাইফেল এমও ৭৭ নিয়ে আত্ম সমর্পন করে।

 

৭৬    জি ০২০২

২৯-১০-৭১

৩০-১০-৭১ নিয়মিত বাহিনী ফতেপুরে এস কিউ ৯২৬৩ এম এস ৭৯ এ/১৬ এবং ধেংকি পোঁতা এস কিউ ৮৭৬৪ এম এস ৭৯ এ/১৬তে শত্রুদের সাথে এঙ্গেজড হয়। তারা গারিবপুর এস কিউ ৯৪৬৫ এম এস ৭৯ এ/১৬ ও মাস্লিয়া এস কিউ ৮৬৬৬ এম এস ৭৯ এ/১৬ থেকে ফিরছিল। ৩ জিন নিহত হয়।

 

গণবাহিনী ১৭০২০০ অক্টোবর সুন্দাপুরে এস কিউ ৯৭৮৫ এম এস ৭৯ ই/৩ ২ টি টেলিফোনের খুঁটি উড়িয়ে দেয়।

 

২০০২০০ অক্টোবর রাঙ্গাইর পোঁতায় এস কিউ ৯৩৮৫ এম এস ৭৯ ই/৩ ২০০ গজ রেল লাইন উড়িয়ে দেয়।

২৩০২৩০ অক্টোবর বারাবামন্দিয়াতে এস কিউ ৯২৮৬ এম এস ৭৯ ই/৩ ২০০ গজ রেল লাইন নষ্ট করে। ২১২০০০ অক্টোবর হাসিম্পুরে এস কিউ ১৪৬৩ এম এস ৭৯ ই/৪ রাজাকার ক্যাম্পে আক্রমণ করে। ৪ ঘণ্টা গুলি বিনিময় হয়। ১৪ রাজাকার নিহত ৫ জন আহত হয়। ৩০৩ রাইফেল ৪ টি, চাইনিজ এমও ৭৩ জব্দ হয়। বাংলাদেশের ভিতরে অস্ত্র রাখা হয়। ২৫১৬০০ অক্টোবর লেবুতলায় এস কিউ ১৫৬৯ এম এস ৭৯ ই/৩ রাজাকারদের এম্বুশ করা হয়। ৩ রাজাকার নিহত ও ৫ জন আহত হয়। ২৬১৬০০ অক্টোবর ওসমান পুরে এস কিউ ১৩৬৭ এম এস ৭৯ ই/৪ অ্যামবুশ করা হয়। খাজুরিয়া এস কিউ ১৬৭০ এম এস ৭৯ ই/৭তেও অ্যামবুশ করা হয়। ২৮০৮০০ অক্টোবর ওসমানপুড়ের কাছেকেফায়েলনগর গ্রামে এস কিউ ১৩৬৯ এম এস ৭৯ ই/৪ লুট করার সময় রাজাকারদের আক্রমণ করা হয়। ১০৩০ টায় পাকসেনা ও রাজাকার সেখানে এসে পরে অনেক পরিমাণে। ভারী গুলি বিনিময় হয়। ১৫০০ তা পর্যন্ত চলতে থাকে। ১২ পাকসেনা, ৭ জন রেঞ্জার, ১০ জন রাজাকার নিহত হয় ও ৫ জন আহত হয়। আমাদের ১ জন শহীদ ও ১ জন আহত হয়। আমরা একটি ৩০৩ রাইফেল হারাই।