11

২৮ যুদ্ধ পরিস্থিতি রিপোর্টঃ বানপুর সাব সেক্টর

Posted
শিরনাম উৎস তারিখ
২৮। যুদ্ধ পরিস্থিতি রিপোর্ট  বানপুর সাব সেক্টর ৮ নং সেক্টরের দলিলপত্র ১৯৭১

 

টান্সলেটেড বাইঃ Razibul Bari Palash

<১১, ২৮, ৪৩৩-৪৪১>

 

ক্রমিক নং

 

সূত্র নম্বর   তারিখ

 

তথ্য অন্তর্ভুক্তির তারিখ ঘটনা
১       জি ৯-৫-৭১ ডি টি আর সময় ১২-৫-৭১ ৮।৫।৭১ তারিখে জয়রামপুর ব্রিজে স্যাবোটাজ করার নির্দেশনা দিয়ে ৪ জন আমাদের সৈন্য পাঠানো হয়। তারা সকাল ৫ টায় ব্রিজ উড়িয়ে দেয়। ২ জন নিরাপদে ফিরে আসে। বাকি ২ জনকে লোকনাথপুরের বিচ্ছিন্নতাবাদী দলের লোকেরা ধরে নিয়ে শত্রুদের কাছে হস্তান্তর করে। তারা হলেন ১- ৪৭৯৭১৫০ নায়েক আবু তাহের চৌধুরী  (এস এস জি) ২- ছাত্র – মোঃ কাজি ইকবাল 
জি ০০০১

১৫১০৩০

১৫-৫-৭১ ১৩০০টা 15-5-71 ০৩৩০ টায় জীবননগরে একটি সেকশন আমাদের বাহিনীর উপর  আক্রমণ করে। শত্রুদের ১ জন আত্ম সমর্পন করে। শত্রুরা ১০৬ এম এম আর আর দিয়ে আক্রমণ শুরু করে। কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।
জি ০০০৪

১৬১৩০০

১৬-৫-৭১ ১৬০১৪৫ টায় কাজলা খালে আমাদের বাহিনী রেইলওয়ে ব্রিজ উড়িয়ে দেয়। জি আর – ৭৩৬৯৬৯ এম এস ৭৯ এ/ ১৪। একটি গার্ডার সম্পূর্ন ধ্বংস করা হয়। রেলওয়ে ব্যাবহার অনুপযোগী হয়ে পরে। 
জি ০০১১

১৯০৭৩

১৯-৫-৭১ দর্শনা ও উথালি রেল স্টেশনে শত্রুদের নতুন মোতায়েনের খবর পাওয়া যায়। জীবন নগর এলাকায় অটোমেটিক রাইফেল দিয়ে ১৮২১০০ থেকে ১৮২৩০০ টায় আমাদের বাহিনী আক্রমণ করে। বরবালাদিয়া তে আমাদের বাহিনী পাঠানো হয় এস কিউ ৫৮৯৯ ৭৯/এ/১৫ ও গয়েশরপুরে এস কিউ ৬৯৫০  ৭৯এ / ১৫। তারা মর্টার ও অটোমেটিক অস্ত্র দিয়ে জীবন নগরে আক্রমণ করে। শত্রুরা কোন জবাব দেয়নি ।
জি ০০১৪

২১-৫-৭১

২১-৫-৭১ শ্যাম্পুরে এস কিউ ৬৪০০ ১০৩০ টায় আক্রমণ চালানো হয়। ১৪৩০ টায় হরিহরনগরে এস কিউ ৬২৮৬ ৩ টি গাড়িতে ৭০ জন লোক যেতে দেখা যায়। ১০০০ টায় শত্রুরা গয়েশরপুর বি ও পি তে যায়। জয়নগরে আমাদের একটি পেট্রল এস কিউ ৬৪৯৯ থেকে শ্যাম্পুরে যায় ও অবস্থানে আক্রমণ করে। শত্রুরা ৩ ইঞ্চি মর্টার দিয়ে জবাব দেয়। সাথে কিছু হাল্কা অস্ত্র ছিল। সময় ছিল ১১২০ থেকে ১১৫০ টা। শত্রুদের ৩ জন হতাহত হয়। আমাদের হতাহত নাই। আমাদের একটি সেকশন হাবিবপুরে এস কিউ ৬৪৮৫ ও মেদিনীপুর বি ও পির কাছে শত্রুদের আক্রমণ করে। শত্রুরা আর আর সি এম এম ৩ ইঞ্চি মর্টার ও মেশিন গান দিয়ে গবাব দেয়। আমাদের বাহিনী ২ ইঞ্চি ও ৩ রাউন্দ লিরাট দিতে আক্রমণ করে। ১৫০০ থেকে ১৮৪৫ পর্যন্ত যুদ্ধ চলে। শত্রুদের হতাহত ২০ জন। আমাদের হতাহত নাই। গয়েশরপুরে আমাদের পেট্রল ১ জন নিহত করে ১৬৩০ টায়। তাদের হতাহত ১ জন। আমাদের নাই।
নাই

২২১০০০

২৫-৫-৭১ বানপুরে শত্রুরা নতুনপারা থেকে এস কিউ ৬৩৯০ ৭৯এ/১৫ থেকে ২২১৬৩০ টায় শত্রুদের ৬ জনকে আসতে দেখে আমাদের বাহিনী এম্বুশ করে। শত্রুদের হতাহত জানা যায়নি। সকালে ২ টি লাশ উঠানো হয়। ১ টি জীপ জব্দ করা হয়। কিছু জিনিস জীপে পাওয়া যায়। ২ সি ডি ও ও ৩ সি ও ডি এর ৪ টি চিঠি পাওয়া যায়। একটি অফিসার ব্যারেট ক্যাপ পাওয়া যায়। এনাগ্রা ব্লেন্ডিসাইড রকেট ১৯৫৩ এর একটি প্যামপ্লেট পাওয়া যায়। আরও ২ টি কাগজ পাওয়া যায়। এসব কিছু সি সেক্টরে জমা দেয়া হয়। 
জি ০০৪০

০৩০৭০০

২৫-৫-৭১ দর্শনা জীবন নগর রাস্তায় এক্তারপুরে শত্রুদের ট্রাকে ৪০ টি রান ওভার মাইন পরে থাকতে দেখা যায়।  জি আর – ৭০২৯৬০ এম এস ৭৯ এ/ ১৫ । শত্রুদের আক্রমণ করে একটি বাহন ধ্বংস করা হয় ও ৩৫ জন আহত হয়।   

 

জি -০০৪১

০৪০৭০০

৫-৬-৭১ দর্শনা জীবন নগর থেকে আহতদের উদ্ধার করতে আসা শত্রুদের ৩ টি মাইনে আক্রমণ করে আমাদের বাহিনী। এতে শত্রুদের ৮ জন আহত হয়। ধ্বংস প্রাপ্ত বাহনটি মনোহরপুর এস কিউ ৬৯৯২ এম / এস ৭৯ এ / ১৫। ধপাখালি বি ও পি জি আর ৬৭৪৯১২ এম / এস ৭৯এ / ১৫ থেকে ১৮০০ টায় ৭ টি গরুর গাড়িতে ৬০ জন শত্রুসেনা চলে যায়।
জি ০০৪২

০৫১১০০

৫-৬-৭১ দাঙ্গাপারায় এস কিউ ৬৬৯০ এম/এস ৭৯এ/১৫ তে ০৫০৬০০ টায় আমাদের ১ টি সেকশন অ্যামবুশ করে ০৫১০০০ টায় ৫ জন শত্রু নিহত করে। ধপাখালিতে জি আর – ৬৭৪৯১৩  এম এস ৭৯ এ/ ১৫ ১২ জন নিহত করে। আমাদের হতাহত নাই।   

 

১০ জি ০০৫১

৮-৬-৭১

৮-৬-৭১ ১। ধপাখালিতে শত্রুরা অবস্থান নিয়েছে জানা যায়। মাইনের জন্য চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আছে। শান্তি কমিটির লোকেরা রাস্তা ও রেলপথ পাহারায় আছে।

২। ০৮০০৩০ টায় জীবন নগরে আমাদের যে  পেট্রল পাঠানো হয় তারা এখনো আসেনি। শ্যাম্পুরিতে ০৮০৩৩০ টায় অন্য যে পেট্রলটি পাঠানো হয় তারাও এখনো আসেনি। জীবন নগর ও কোটচাঁদপুরে জি আর ৭১২৮৭৬ মাইন পোতা হয় ইঞ্জিনিয়ার পাঠিয়ে। আরেকজনকে দৌলতগঞ্জ পাতলিয়া রাস্তায় মাইন পোঁতার জন্য পাঠানো হয়।  

১১ জি ০০৫৯

১৪০৭০০

১৪-৬-৭১ শত্রু অবস্থান – নুতনপারা এস কিউ ৬৩৭০ এম/এস ৭৯এ/১৫ তে ধপখালির কাছে প্রায় ১ কয় সৈন্য আছে। আরেকটি দল জয়রামপুরে এস কিউ ৬৭০৬ – এম এস ৭৯ এ/ ১৪ আছে বলে আমাদের একজন জানিয়েছে। আমাদের বাহিনী জয়রামপুর দুদগাছদিয়া রাস্তায় আমিন পুতে রাখে জি আর ৬৭০০৫২ – ২ টি এ টি কে মাইন। একটি ব্রিজ ৬৮২৯৩ এর কাছে পোঁতা হয়। এগুলো ঘোড়ার গাড়িতে ধ্বংস হয়। ঘোড়া নিহত ও চালক আহত হয়। এলাকায় আতংক সৃষ্টি হয়। রাজাপুরে একটি প্লাটুন পাঠানো হয়। শত্রুরা সেখানে সাধারণ জনগণকে দিয়ে ক্ষেত থেকে আখ ও পাট কাটাচ্ছে । মনোহরপুর নতুনপারা এলাকায় আমাদের একটি প্লাটুন পাঠানো হয়। তারা ফিরে আসেনি। দোউলতগঞ্জে যাদের পাঠানো হয়েছে তারা ফিরে আসেনি।

 

১২ জি ০০৬৯

১৬-৬-৭১

১৬-৬-৭১ ১৬ জন ৩০০ টায় আমাদের বাহিনী ধুপখালিতে এস কিউ ৬৪৯২ এম/এস ৭৯এ/১৫ আক্রমণ করে। আমাদের ১ জন নিহত ও  ১ জন আহত হয় জি আর ৬৪৮৯৩৮ এম/এস ৭৯এ/১৫। শত্রুদের হতাহত জানা যায়নি। ০৭৩০ টা পর্যন্ত যুদ্ধ চলে। ৩ টি গরুর গাড়িতে কম্বল দিয়ে ঢেকে লাশগুলো নিয়ে যাওয়া হয়। আমাদের ১ জন নিখোঁজ আছে। ১- নায়েক আব্দুল মতিন মৃত ২- নায়েক শিরাজুদ্দিন চৌধুরী আহত হয়েছেন।
১৩ জি ০০৬৮

১৫০৮০০

১৭-৬-৭১

১৪০০ টা

জি আর ৮৩৫৮৪৭ এ ১৩০১৩০ টায় আমাদের বাহিনী মাইন পোতে। একটি জীপ আক্রান্ত হলে অফিসার সহ ৬ জন আহত বা নিহত হয়। আন্সারবারিয়া ও সফদারপুরে মাইন পোঁতা হয়। ১ টি মাইনে ট্রেন ধ্বংস হয়েছে। তাই ট্রেন চলাচল বন্ধ আছে।
১৪ জি ০০৬৯

১৬০৮০০

১৭-৬-৭১

১৪০০ টা

১৬৩০ টায় রাজাপুর বি ও পি এবং সন্তোষপুরে ২ টি পাক পেট্রোল আসে। একজন মুক্তিফৌজ ভুল করে ২৩৩০ টায় ইন্ডিয়ান ১৪ পাঞ্জাব পেট্রোলে  আক্রমণ করে বসে।  আমাদের ১ জন নিহত ও ২ জন আহত হয়। একটি ৩০৩ রাইফেল নষ্ট হয়।
১৫ জি ০০৭০

১৭০৬০০

১৭-৬-৭১

১৪০০ টা

ধোপাখালিতে পাকসেনাদের ৩এক্স৩ টোনার আসে ১৬০৮০০ টায়।  ১৬১১৩০ টায় শত্রুদের একটি জীপ ও ১ টি ডজ  রাজাপুর আসে। ১৩০০ পর্যন্ত ঠাকে। ধুপখালি এলাকা আমাদের বাহিনী ১৫/১৬ তারিখের অপারেশনের জন্য রেকি করে। আমাদের বাহিনীর আক্রমণে শত্রুদের ১৩ জন নিহত ও ১৬ জন আহত হয়। শেলিং ও লিরাট ফায়ার করে বি ও পি পার্টিকে ধ্বংস করা হয়। কোটচাঁদপুর থেকে শত্রুরা ক্ষয় ক্ষতি দেখতে আসে। আমাদের একজন কে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছেনা। স্থানীয়দের কাছ থেকে যানা যায় ৩ এক্স ৩ টনের একটি বাহনে আজ সকালে ধোপাখালি থেকে অস্ত্র এসেছে। ১৫/১৬ তারিখ রাতে ধোপাখালি দৌলতগঞ্জ রাস্তায় মাইন পোঁতা হয়। ধোপাখালিতে ১২৩০ টায় বিস্ফোরণ হয়। ওয়্যারলেস সেট সহ পাক জীপ ধ্বংস হয়। ৫ জন শত্রুসেনা হতাহত হয়। শত্রুরা তাদের বাহনটি নিয়ে যায়। সফদারপুরের কাছে রেল লাইনে ১৩৩০ টায় মাইন পোঁতা হয়। এটি বিস্ফোরিত হয় পরের দিন ১০৩৩ টায়। শত্রুদের ট্রেনের ইঞ্জিন ও ২ টি বগি ধ্বংস হয়। শত্রুরা পরে এলাকা ঘিরে ফেলে। তাদের মনোবল কমে যায়।   
১৬ জি ০০৭৬

১৯০৬০০

১৯-৬-৭১ শত্রুদের এক প্লাটুন ধোপাখালি থেকে রাজাপুরে ১১৩০ টায় আসে। ধপাখালিতে আমাদের এক প্লাটুন অ্যামবুশ করে। শত্রুরা ২ টি মেশিন গান দিয়ে আক্রমণ শুরু করে। আমাদের কোন হতাহত নাই। শত্রুদের ৪ জন নিহত ও ১ জন আহত হয়।
১৭ জি ০০৮১

২০০৬০০

২০-৬-৭১ মাধবখালি এলাকায় ১৪৩০ টায় শত্রু অবস্থান দেখা যায়। ১৪০০ টায় সিনানগর ১ টি সেকশন চলাচল করতে দেখা যায়। ১০৩০ টায় আমাদের সৈন্যরা রাজাপুর বি ও পি ধ্বংস করে। মাধবখালিতে অ্যামবুশ করে। শত্রুরা গুলি চালায়। ঘিরে ধরার চেষ্টা করে। শত্রুদের ২০ জন হতাহত হয়। আমাদের কোন হতাহত নাই। ২ জন সাধারণ জনতা আহত হয়। শিঙ্গানগরে শত্রুরা আমাদের উপর গুলি চালায়। তাদের হতাহত জানা যায়নি।  আমাদের কেউ আহত হয়নি। 

 

 

 

ক্রমিক নং

 

সূত্র নম্বর   তারিখ

 

তথ্য অন্তর্ভুক্তির তারিখ ঘটনা
জি ০৭১১

৩১-১০-৭১

৩-১০-৭১ গয়ালাপারায় আমাদের সৈন্য শত্রুদের উপর আমাদের বাহিনী আক্রমণ করে। এস কিউ ৬৭৯০   এম/এস ৭৯ এ/১৫ । তারা দৌলতগঞ্জ কিউ ৬৮৮৮ এম/এস ৭৯ এ/১৫ থেকে ২৯১০৩০ অক্টোবর ফেরত আসছিল। শত্রুরা ২ ইঞ্চি মর্টার দিয়ে আক্রমণ করে। তাদের হতাহত যানা যায়নি। 
জি ০৭১৬

১-১১-৭১

২-১১-৭১ ২৮০৫৩০ অক্টোবর নাতুদায় এস কিউ  ৫৩১৫ এম/এস ৭৯ এ/১৫ গণবাহিনী আক্রমণ করে। আমাদের ১ জন আহত হয়। শত্রুদের হতাহত যানা যায়নি। 
জি ০৭২২

০৪-১১-৭১

৫-১১-৭১ ২৭১১০০ অক্টোবর হান্সাদা ও কোটচাঁদপুরের আমাদের বাহিনী টেলিফোন লাইন ধ্বংস করে।
জি ০৭২৪

৬-১১-৭১

৭-১১-৭১ ১ নভেম্বর ১৮ জন রাজাকার ১৬ টি রাইফেল সহ ঘাল্ধারি এস কিউ  ৮২১৭ এম/এস ৭৯ এ/১৪ তে আত্মসমর্পন করে। এস কিউ  ৬৬৯২  এম/এস ৭৯ এ/১৫ ধোপাখালির কাছে ০৬০৪০০ টায় আক্রমণ করে। হতাহত যানা যায়নি। 
জি ০৭২৮

০৭-১১-৭১

০৮-১১-৭১ ধপাখালিতে এস কিউ  এম/এস ৬৬৯২  ৭৯ এ/১৫ শত্রুদের উপর আমাদের বাহিনী আক্রমণ করে। রাজাপুরে এস কিউ  ৬৬৯৪ এম/এস ৭৯ এ/১৫ ০৬১৪০০ নভেম্বর শত্রুরা ১ টি জীপ, ৪ টি ডজ, একটি ৩ ইঞ্চি মর্টার সহ ১১ জন পাকসেনা ধোপাখালি এলাকার দিকে যাচ্ছিল। গণবাহিনী জয়রামপুর এস কিউ  ৬৭০৬  এম/এস ৭৯ এ/১৪ ও চুয়াডাঙ্গা এস কিউ  ৭২১৪ এম/এস ৭৯ এ/১৪ এর মাঝে ০৬০৪৩০ নভেম্বর রেল লাইন ধ্বংস করে।
জি ৭৩১

৬-১১-৭১

১০-১১-৭১ চুয়াডাঙ্গা ও দরশনার মাঝে ০৩৩০ নভেম্বর আমাদের বাহিনী টেলিফোন যোগাযোগ ধ্বংস করে।
জি ০৭৩০

১০-১১-৭১

১০-১১-৭১ মধুখালিতে এস কিউ  ৬৬৯২  এম/এস ৭৯ এ/১৫ ০৯০৬৩০ নভেম্বর আমাদের বাহিনী শত্রুদের আক্রমণ করে। তারা এল এম জি ও ২ ইঞ্চি মর্টার দিয়ে জবাব দেয়। আমাদের কোন হতাহত নাই। দর্শনা এস কিউ  ৬৬০০ এম/এস ৭৯ এ/১৪  ও  কাপাস ডাঙ্গার এস কিউ ৬৪০৭  এম/এস ৭৯ এ/১০ মাঝখানের টেলিফোন লাইন আমাদের বাহিনী ধ্বংস করে।
জি ০৭৩৯

১৩-১১-৭১

১৩-১১-৭১ নিয়মিত বাহিনী ধোপাখালি বি ও পি তে  এস কিউ ৬৬৯২   এম/এস ৭৯ এ/১৫ ১৩০১৩০ নভেম্বর আর্টিলারি সাপোর্টে আক্রমণ করে। শত্রুরা হেভি মেশিনগান ও আর্টিলারি দিয়ে জবাব দেয়। তাদের হতাহত যানা যায়নি । আমাদের ২ জন আহত হয়। এদের মাঝে ক্যাপ্টেন মুস্তাফিজুর রহমান ছিলেন। তাকে হাসপাতালে পাঠানো হয়।
জি ০৭৩৮

১৩-১১-৭১

১৩-১১-৭১ শ্রীপুরে ১০ নভেম্বর আমাদের সাথে গুলি বিনিময় হয়। শত্রুদের ১ জন পাকসেনা আহত ও ২ জন রাজাকার নিহত হয়। হাজিপুরে ১০ নভেম্বর আক্রমণ করা হয়। শত্রুদের ২২ রাজাকার ও রেঞ্জার নিহত হয়। আমাদের ১ জন আহত হয়। একটি শত্রু যান মাইনে ধ্বংস হয়।
১০ জি ০১১৬

১৪-১১-৭১

১৪-১১-৭১ ১২ নভেম্বর আলমডাঙ্গা ন্যাশনাল ব্যাংকে নিয়মিত বাহিনী আক্রমণ করে। শত্রুদের ১ জন মিলিশিয়া, ১ জন পুলিশ ও ১৯ জন রাজাকার নিহত হয়। আমাদের গণবাহিনীর ১ জন নিহত। ৮ হাজার রুপি ও ৩০ টি সোনার বার উদ্ধার করা হয় ।
১১ জি ০৭৪২

১৪-১১-৭১

১৪-১১-৭১ চুয়াডাঙ্গা ঝিনেদা এস কিউ  ০৩০৪  এম/এস ৭৯ ই/২ তে ১১২৩০০ টায় গণবাহিনী শত্রুদের আক্রমণ করে। তাদের ৪ জন আহত। আমাদের ১ জন আহত। হাস্নাদায় এস কিউ ৭৩৮৬  এম/এস ৭৯ এ/১৫ ১২২২০০ নভেম্বর শত্রুদের আক্রমণ করে। একই বাহিনী উঠালিতে এস কিউ ৭১৯৭  এম/এস ৭৯ এ/১৫ ১৩২৩৩০ নভেম্বর তিনিটি রেইলওয়ে ক্রসিং  ধ্বংস করে।

 

 

১২ জি ০১১৭

১৫-১১-৭১

জি ০৭৪৪

১৫-১১-৭১

১৬-১১-৭১ কামারখালি ঘাটে এস কিউ  ৪৮০ এম/এস ৭৯ ই/১০ নিয়মিত বাহিনী ১২০৩০০ নভেম্বর ২ টি ফেরি ধ্বংস করে। ১২ নভেম্বর শৈলকূপা এস কিউ  ১৫২১  এম/এস ৭৯ ই/২ তে শত্রু অবস্থানে আক্রমণ করে। ২ জন রাজাকার নিহত হয়। আমাদের হতাহত হয়নি। আন্দুল্বারিয়াতে এস কিউ  ৭৫৯৫ এম/এস ৭৯ এ/১৫ ১৪০১০০ নভেম্বর গন বাহিনী আক্রমণ করে ১২ রাজাকার হত্যা করে। এবং আরও ২ জন আহত হয়।

 

১৩ জি ০৭৮৪

১৬-১১-৭১

১৭-১১-৭১ ১২১৪০০ নভেম্বর কৃষ্ণপুর ঘাটে এস কিউ  ৬৪০০ এম/এস ৭৯ এ/১৪ আমাদের বাহিনী হাল্কা অস্ত্র দিয়ে আমাদের বাহিনী শত্রুদের আক্রমণ করে। শত্রুদের ৪ জন নিহত হয়। আমাদের হতাহত নাই। পার্বতীপুর ঘাটে এস কিউ ৬২০৩  এম/এস ৭৯ এ/১৫ আমাদের বাহিনী অ্যামবুশ করে। ১১ জন পাকসেনা নিহত ও ৪ জন আহত হয়। রঘুনাথপুরে ঘাটে এস কিউ ৬০০৭  এম/এস ৭৯ এ/১০ শত্রুদের বাঙ্কারে আমাদের বাহিনী এ/পি মাইন সেট করে। এটি ১১০৮০০ নভেম্বর বিস্ফোরিত হয়। তখন শত্রুরা বাঙ্কারে এল এম জি সেট করছিল। এর ফলে ৪ জন পাকসেনা নিহত ও ১ জন আহত হয়।

 

১৪ জি ০৭৫০

১৭-১১-৭১

১৮-১১-৭১ রঘুনাথপুর ঘাটে এস কিউ ৬০০৭  এম/এস ৭৯ এ/১০ বাঙ্কার স্থাপনের সময় ১৬১৫০০ নভেম্বর শত্রুদের উপর গন বাহিনী  আক্রমণ করে। শত্রুদের ৩ জন নিহত ও ৮ জন আহত হয়। আমাদের হতাহত নাই।

 

১৫ গোকুলখালি তে এস কিউ ৬৬২১  এম/এস ৭৯ এ/১৪ ১৪২৩০০ নভেম্বর আমাদের বাহিনী আক্রমণ করে। শত্রুদের ২ জন পাকসেনা ও ২ রাজাকার নিহত হয়। আমাদের হতাহত নাই।

 

১৬ জি ০৭৫৬

১৮-১১-৭১

১৯-১১-৭১ গ্লাইডারই ঘাটে এস কিউ  ৬২০৩ এম/এস ৭৯ এ/১৪ ১৫০৮০০ নভেম্বর আমাদের বাহিনী আক্রমণ করলে শত্রুদের ১১ জন নিহত (একজন সুবেদার সহ) হয়।

 

১৭ জি ০৭৬১

১৯-১১-৭১

২০-১১-৭১ দিঙ্গাদা এস কিউ ৭৫১১  এম/এস ৭৯ এ/১৪ ১৪ নভেম্বর আমাদের বাহিনীর আক্রমণে শত্রুদের ১ জন নিহত ও ১ জন আহত হয়। আমাদের হতাহত নাই ।

 

১৮ জি ০৭৬৮

২১-১১-৭১

২১-১১-৭১ দত্তনগর ফার্মে এস কিউ ৬৯৮৩  এম/এস ৭৯ এ/১৫ ১৯১৮০০ নভেম্বর গুলি বিনিময় হয়। হতাহত যানা যায়নি। আমাদের একজন স্থানীয় স্বেচ্ছা সেবক আহত হয়। ৩ টি ট্রাক্টর জব্দ করা হয়।

 

১৯ জি ০৭৭১

২২-১১-৭১

২২-১১-৭১ কৃষ্ণপুর ঘাটে এস কিউ ৬৪০০ এম/এস ৭৯ এ/১৪ ১৭১১৩০ নভেম্বর আমাদের বাহিনীর আক্রমণে শত্রুদের ৫ জন নিহত হয়। আমাদের হতাহত নাই। ধামঘারে এস কিউ ৫৭৬৬  এম/এস ৭৯ এ/১০ ১৯১৫০০ নভেম্বর আমাদের বাহিনীর আক্রমণে ১ পাকসেনা ও ২ রাজাকার নিহত হত। আমাদের হতাহত নাই। কৃষ্ণপুর ঘাটে এস কিউ ৬৪০০  এম/এস ৭৯ এ/১৪ ২১১৩৩০ নভেম্বর ২ টি শত্রু ভর্তি  দেশী নৌকায় আমাদের বাহিনী গুলি চালায়। সেগুলো সেখানে ধ্বংস হয়। গণবাহিনী বাহাতাই তে ১০৯১২ ১৭২৩৫৯ নভেম্বর এম্বুশ করে । ২২ জন পাকসেনা  ও মুজাহিদ নিহত হয়। আমাদের হতাহত নাই। দত্তনগর ফার্ম এস কিউ ৬৯৮৩  এম/এস ৭৯ এ/১৫ আমাদের বাহিনী দখলে নেয়। তেতুলিয়া ৬৮৮৬, নারায়নপুর ৬৭৮৭ এম/এস ৭৯এ/১৫ এবং ডি কয় হাসনাবাদ এস কিউ ৭৩৮৬  এম/এস ৭৯ এ/১৫ আমরা অবস্থান নেই।

 

 

২০ জি ০৭৮৯

২৫-১১-৭১

২৬-১১-৭১ নিয়মিত বাহিনী/ গন বাহিনী – ২১ নভেম্বর ২৭ জন পুলিশ শ্রীপুর থানায় কিউ পি ৩৪০৯ ২৭ টি রাইফেল , ৩০৩ বল এমও ২৭০০ সহ আত্ম সমর্পন করে। ২১ নভেম্বর মাগুরা কিউ ইউ ৩৫৯৬ থেকে শ্রীপুর কিউ পি ৩৪০৯ এর দিকে ৯০ জন রাজাকার অগ্রসর হয়। সেখানে আমাদের বাহিনীর সাথে গুলি বিনময় হয়। ১৭ রাজাকার নিহত হয়। আমাদের হতাহত নাই। ১৭ টি রাইফেল সহ ৫০০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার হয়। সেগুলো বাংলাদেশের ভিতরে রাখা হয়। আমাদের হতাহত নাই।

 

২১ জি ০৭৮৩

২৬-১১-৭১

২৬-১১-৭১ কৃষ্ণনগর ঘাটে এস কিউ ৬৪০০  এম/এস ৭৯ এ/১৪ ২৫১৪০০ টায় ৩ জন রাজাকার ১০০ রাউন্ড গুলি সহ আমাদের কাছে আত্ম সমর্পন করে।

 

২২ জি ০৭৮৬

২৭-১১-৭১

২৮-১১-৭১ মনোহরপুরে এস কিউ ৬৯৯২  এম/এস ৭৯ এ/১৫ ২৭১০০০ নভেম্বর আমাদের বাহিনীর আক্রমণে বি কয়  ৩৮ এফ এফ ৭ ব্রিগেড ১০ম ডিভিশনের পাকসেনা আহত হয়।

 

২৩ জি ০১৮৯

২৮-১১-৭১

২৮-১১-৭১ ২৮০৮০০ নভেম্বর অস্ত্র বিহীন এক রাজাকার আত্মসমর্পন করে।
২৪ জি ০৭৮৬

২৭-১১-৭১

২৮-১১-৭১ সন্তোষপুরে এস কিউ ৬৯৯৪  এম/এস ৭৯ এ/১৫ ২৭০২ নভেম্বর বি কয় আমাদের বাহিনীর আক্রমণে ৯ জন পুলিশ ৬ টি রাইফেল ৩০৩ এমও সহ ৭ জনআত্ম সমর্পন করে।

 

২৫ জি ০১৮৫

২৮-১১-৭১

২৯-১১-৭১ হরিনাকুন্ড থানার কাছে পেয়ারাডাঙ্গা কিউ ইউ ৯৫১৬ ২৪১২০০ নভেম্বর আমাদের বাহিনীর আক্রমণে ৪ জন রাজাকার নিহত হয়।

 

২৬ জি ০৭৯১

২৯-১১-৭১

২৯-১১-৭১ গণবাহিনী ২ কয় দিয়ে শ্রীপুর থানা আক্রমণের প্ল্যান করছে।
২৭ জি ০৭৯৯

৩০-১১-৭১

০১-১২-৭১ স্থানীয় তায়েব বাহিনীকে ঈগল ছত্রভঙ্গ করে দেয়। তায়েব কে আটক করে ও ২ টি রাইফেল উদ্ধার করে। ২৩০৯০০ নভেম্বর পেয়ারাডাঙ্গা কিউ পি ৯৫১৭ তে আমাদের বাহিনী আক্রমণ করে। ৫ জন রাজাকার নিহত হয়। আমাদের হতাহত নাই। ১ টি রাইফেল জব্দ। এটি বাংলাদেশের ভিতরে রাখা হয়। শংকরদিয়ায় কিউ ০৯০২৯ ২৭১১০০ নভেম্বর শত্রু অবস্থানে আমাদের বাহিনীর আক্রমণে পাকিস্তানের ১ জন অফিসার ও  পাক পুলিশের ১ জন জে সি ও নিহত হয়। ২৭১৬০০ নভেম্বর আড়পাড়ায় কিউ ০৯১৩১ আমাদের বাহিনী আক্রমণ করে। ৪ রাজাকার নিহত হয়। এছাড়া ৪ জন আহত ও ২ জন আত্ম সমর্পন করে। রাজাকারদের দিয়ে কাজ করানো হয় আর অস্ত্র বাংলাদেশের ভিতরে রাখা হয়। আমাদের হতাহত নাই। ৬ টি রাইফেল উদ্ধার হয়। মুন্সিগঞ্জে কিউ ০৭৭২৫ ২৮২২০০ নভেম্বর রাজাকার পোস্টে আমাদের বাহিনী আক্রমণ করে ২ জন রাজাকার হত্যা ও ১০ জন আটক করে।  ৪ টি রাইফেল উদ্ধার হয়। আমাদের কোন হতাহত নাই। রাজাকার ও অস্ত্র বি কয় অবস্থানে পাঠানো হয়। 
২৮ জি ০৭০১

১-১২-৭১

২-১২-৭১ হাসিনাকুন্ডায় কিউ ও ৯৩১৫ ২৮ নভেম্বর ২ জন রাজাকার অস্ত্র সহ আত্মসমর্পন করে। অস্ত্র ও রাজাকার বাংলাদেশে রাখা হয়।
২৯ জি ০৭০৬

২-১২-৭১

৩-১২-৭১ ঝিনেদা থেকে হরিনাকুন্ড কিউ ও ৯৬১১ ১ ডিসেম্বর টেলিফোনের তাঁর ধ্বংস করা হয়।

 

৩০ জি ০৭১৫

৪-১২-৭১

৬-১২-৭১ চুইলিয়া ব্রিজে ০৬৯১ এম / এস ৭৯ ই/২ ২২৩ ডিসেম্বর আমাদের বাহিনী শত্রুদের আক্রমণ করে। গণবাহিনীর ১ জন আহত হয়। ১ টি রাইফেল জব্দ হয়। সেটি বেইসে রাখা হয়।

 

৩0 বি  জি ০৭২৩

৬-১২-৭১

৮-১২-৭১ ০৫ ডিসেম্বর ১ জন নিয়মিত বাহিনীর সেপাই আবু কাসেম দর্শনায় শত্রুর গুলিতে আহত হন।
৩১ জি ০৭২৭

৮-১২-৭১

৯-১২-৭১ জয়রামপুরে ৬৬০৬ এম/এস ৭৯/এ ১৪ ০৮০৮০০ ডিসেম্বর আমাদের বাহিনী ৪ টি রাইফেল সহ রাজাকার আটক করেন। অস্ত্র বাংলাদেশের ভিতরে রাখা হয়।
৩২ জি ০৭২৮

১০-১২-৭১

১০-১২-৭১ দর্শনায় ৬৬০০ এম/এস ৭৯ এ/১৪ ০৯১৮০০ ডিসেম্বর আমাদের বাহিনীর আক্রমণে ১ টি রাইফেল জব্দ করা হয়।
৩৩ জি ০৭৪২

১৩-১২-৭১

১৪-১২-৭১ ১৩ ডিসেম্বর ঝিনেদায় ৩০ জন রাজাকার অস্ত্র সহ আত্ম সমর্পন করে। ৪ পাকসেনা নিহত হয়। একটি ২ ইঞ্চি মর্টার ও ২ টি বোমা উদ্ধার হয়।
৩৪ জি ০৭৪০

১২-১২-৭১

১৩-১২-৭১ ১২ ডিসেম্বর দর্শনা ও চুয়াডাঙ্গা থেকে ৮ টি রাইফেল জব্দ হয়।