2

প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিসেবে আইয়ুবের বিরুদ্ধে দলসমূহ কর্তৃক মিস ফাতেমা জিন্নাহ্ মনোনীত

Posted

<2,41,228-229>

শিরোনাম : প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিসেবে আইয়ুবের বিরুদ্ধে বিরোধী দলসমূহ কর্তৃক মিস ফাতেমা জিন্নাহ মনোনীত।

সূত্র : দৈনিক ‘ আজাদ ‘।

তারিখ : ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ১৯৬৪

সম্মিলিত বিরোধীদলের ঐক্য- জিন্দাবাদ গণতন্ত্রের সংগ্রাম – জিন্দাবাদ, পাকিস্তান – পায়েন্দাবাদ

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সম্মিলিত বিরোধীদলের প্রার্থী হিসেবে মিস জিন্নাহর প্রতিদ্বন্দ্বিতা লাখাম হাউসের বৈঠক শেষে বিরোধীদলীয় নেতার ঘোষণা সমগ্র করাচী শহরে আনন্দের হিল্লোল : মিস জিন্নাহ কর্তৃক সানন্দে সম্মতি দান।

(আজাদের করাচী অফিস হইতে)

১৭ ই সেপ্টেম্বর মোহতারেমা মিস ফাতেমা জিন্নাহ আনন্দের সহিত আগামী নির্বাচনের প্রেসিডেন্ট পদে সম্মিলিত বিরোধীদলের প্রার্থী হিসেবে তাঁহার মনোনয়নের প্রস্তাব গ্রহণ করিয়াছেন। অদ্য লাখাম হাউসে সম্মিলিত বিরোধীদলের বৈঠকের পর বিরোধীদলের নেতা সাংবাদিকদের নিকট উপরোক্ত তথ্য প্রকাশ করেন। আজ লাখাম হাউসে পাঁচটি বিরোধীদলের সভা বিকেল ৫ টায় শুরু হয় এবং রাত্রি ১০ টা পর্যন্ত চলিতে থাকে।

অতঃপর বিরোধীদলের পাঁচজন নেতা খাজা নজিমুদ্দীন, মওলানা ভাসানী, চৌধুরী মোহাম্মদ আলী, নওয়াবজাদা নসরুল্লাহ খান এবং শেখ মুজিবুর রহমান মোটরযোগে মিস ফাতেমা জিন্নাহর বাসভবনে গমন করেন এবং তাঁহাকে বিরোধীদলের সিদ্ধান্ত জানান।

তাঁহারা মিস ফাতেমা জিন্নাহ কে মাল্যভূষিত করেন এবং তাঁহার সহিত ৪৫ মিনিট কাল অবস্থান করেন।

অতঃপর মিস জিন্নাহ অপেক্ষমাণ সাংবাদিকদের বলেন যে, জাতির বৃহত্তর স্বার্থেই তিনি প্রেসিডেন্ট পদে বিরোধীদলের প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করিতে সম্মত হইয়াছেন। তিনি আরো বলেন যে, জনগণের সেবার উদ্দেশ্য লইয়াই তিনি ইহাতে সম্মতি দিয়াছেন। এ ব্যতীত তাঁহার অন্য কোন উদ্দেশ্য নাই।

মিস জিন্নাহ সম্মিলিত বিরোধী দলীয় প্রার্থী হিসেবে আগামী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করিতে সম্মত হইয়াছেন এই খবর প্রকাশ হওয়ার পর সমগ্র করাচী শহরে আনন্দের জোয়ার প্রবাহিত হয়। লাখাম হাউসের সম্মুখে সমবেত হাজার হাজার লোক এই সংবাদে, মিস জিন্নাহ জিন্দাবাদ, পাকিস্তান জিন্দাবাদ, সম্মিলিত বিরোধীদলের ঐক্য জিন্দাবাদ ধ্বনিতে আকাশ বাতাস মুখোরিত করিয়া তোলে।

মিস জিন্নাহ কে সম্মিলিত বিরোধীদলের প্রার্থী হওয়া হইতে বিরত করার জন্য করাচীর সরকারী মহল ও সরকার সমর্থক সংবাদপত্রসমূহ কর্তৃক যে অপচেষ্টা ও অপপ্রচার চালানো হয় পাকিস্তানের স্রষ্টা কায়েদে আযমের ভগিনীর নির্ভীক মনোভাবের ফলে এই মহলটি হতাশ হইয়া পড়ে।

বিরোধীদলের সিদ্ধান্ত জ্ঞাপনের জন্য মোহতারেমা ফাতেমা জিন্নাহ গৃহে যখন বিরোধীদলীয় নেতা বৃন্দ গমন করেন তখন হইতেই রাস্তার দুই পার্শ্বে লোক জমায়েত হইতে শুরু করে।

অদ্য সমগ্র করাচী শহরের সকলেএ মধ্যে এই একই বিষয়ে আলোচনা চলিতে থাকে।

মিস জিন্নাহ বিরোধীদলের প্রস্তাব শুনিয়া আলহামদুলিল্লাহ্‌ বলিয়া এই প্রস্তাব গ্রহণ করেন।

গণতন্ত্রের পুন:প্রতিষ্ঠার জন্য পূর্ব পাকিস্তানিরা যে ভূমিকা গ্রহণ করিয়াছে মিস জিন্নাহ উহাতে অত্যন্ত আনন্দ প্রকাশ করেন। সম্মিলিত বিরোধীদলের প্রতিনিধিগণ আগামীকল্যকার অধিবেশন শেষে মিস ফাতেমা জিন্নাহ সহিত তাহার বাসভবনে সাক্ষাৎ করিলে তিনি আনুষ্ঠানিক ভাবে তাহার মনোনয়ন গ্রহণ করিবেন বলিয়া আশা করা যাইতেছে।

অদ্যকাল সম্মিলিত বিরোধীদলের বৈঠক কাউন্সিল মোসলেম লীগ, ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি, আওয়ামী লীগ, নেজামে ইসলাম পার্টি ও সাবেক জামাতে ইসলাম অংশ গ্রহণ করিয়াছে। সভায় কাউন্সিল লীগ সভাপতি খওয়াজা নজিমুদ্দীন সভাপতিত্ব করেন।