2

সরকারী ও আধা-সরকারী সংস্থাসমূহের প্রতি আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে তাজউদ্দিনের নির্দেশাবলী

Posted

<2.190.726-727>

শিরোনাম সূত্র তারিখ
সরকারী ও আধা-সরকারী সংস্থা সমূহের প্রতি আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে তাজউদ্দীনের নির্দেশাবলী দ্য ডন ১০ মার্চ, ১৯৭১

 

 

মুজিবের নির্দেশনা –  অব্যাহতিপ্রদান এবং ব্যাখ্যাপ্রসঙ্গেঃ

৯ মার্চ, ১৯৭০ তারিখে পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক

জনাব তাজউদ্দিন আহমেদের ঘোষণা।

 

পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব তাজউদ্দিন আহমেদ শেখ মুজিবুর রহমানের পক্ষে নিম্নলিখিত অব্যাহতিপত্র ও তার ব্যাখ্যা প্রদান করেনঃ

 

 

(১) ব্যাংকঃ ব্যাংক লেনদেনের জন্য খোলা থাকবে সকাল ৯টা থেকে ১২.৩০ পর্যন্ত এবং প্রশাসনিক কার্যক্রমের জন্য দুপুর ৩টা পর্যন্ত। ব্যাংক খোলা থাকবে শুধুমাত্র নিম্নলিখিত উদ্দেশ্যে বাংলাদেশের মধ্যে অর্থ জমা এবং আন্তঃব্যাংক অর্থছাড় ও লেনদেনের জন্যঃ

 

(ক) আগের সপ্তাহের বেতন ও মজুরির পরিশোধ

(খ) ব্যক্তিগত বৈধ(যুক্তিসংগত)অর্থ উত্তোলনের সীমা টাকা ১,০০০ পর্যন্ত

(গ) আখের কলের জন্য আখ, পাট কলের জন্য পাট এরকম চালু কলকারখানার জন্য শিল্প-কাঁচামাল ক্রয়ের উদ্দেশ্যে

 

(২) কেন্দ্রিয় ব্যাংক অথবা অন্য কোন ভাবে কোন অর্থ বাংলাদেশের বাইরে যাবে না।

(৩) কেন্দ্রিয় ব্যাংকঃ উপরেল্লিখিত ব্যাংকিং কার্যক্রমগুলো পরিচালনার জন্যই শুধু কেন্দ্রিয় ব্যাংক খোলা থাকবে, অন্য কোন উদ্দেশ্যে নয়।

(৪) ইপিওয়াপদা (EPWAPDA): পূর্ব পাকিস্তান ওয়াপদার শুধুমাত্র ঐ শাখাগুলোই খোলা থাকবে যেগুলো বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য দরকার।

(৫) ইপিএডিসি (EPADC): শুধুমাত্র সার এবং সেচযন্ত্রে ডিজেল সরবরাহের জন্য খোলা থাকবে।

(৬) ইটাখোলার জন্য কয়লা সরবরাহ অব্যাহত থাকবে এবং ধান ও পাট বীজ সরবরাহ চলবে।

(৭) খাদ্য পরিবহন বজায় থাকবে।

(৮) ট্রেজারি এবং এ,জি অফিস খোলা থাকবে শুধুমাত্র উপরেল্লিখিত সরবরাহের চালানপত্র পাসের জন্য।

(৯) ঘূর্ণিঝড় দূর্গত এলাকায় ত্রাণ ও পুণর্বাসন কাজ অব্যাহত থাকবে।

(১০) পোস্ট ও টেলিগ্রাফ অফিসঃ শুধুমাত্র বাংলাদেশের ভেতর চিঠি, টেলিগ্রাম ও মনিঅর্ডার আদানপ্রদানের জন্য খোলা থাকবে ; তবে বাংলাদেশের বাইরে প্রেস টেলিগ্রাম পাঠানো যেতে পারে। পোস্ট অফিসের সঞ্চয় শাখা খোলা থাকবে।

(১১) এইচপিআরটিও (HPRTO):  সারা বাংলাদেশ জুড়ে কার্যক্রম চালাবে

(১২) পানি ও গ্যাস সরবরাহ চলবে

(১৩) স্বাস্থ্য ও পয়োনিষ্কাশন সেবাসমূহ চলবে

(১৪) আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য পুলিশ দায়িত্ব পালন করবে, প্রয়োজন পড়লে আওয়ামী লীগের স্বেচ্ছাসেবকরা সহযোগিতা করবে

(১৫) উল্লেখিত অব্যহতি প্রাপ্তরা ছাড়া অন্যান্য আধা-সরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহ হরতাল পালন করবে

(১৬) আগের সপ্তাহের অব্যহতি প্রাপ্তদের নির্দেশনা পুরাপুরি বহাল থাকবে