1

আবদুর রহিম ও নাহিদা সুলতানা

“এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম”-বঙ্গবন্ধুর দেয়া এই ডাকের বহু পূর্বে এই জাতি তৈরি ছিল এই আন্দোলনের জন্য।

এই বারুদের একটি স্ফুলিঙ্গের প্রয়োজন ছিল শুধু। স্বাধীনতার এত বছর পর মুক্তিযুদ্ধের দলিলসমূহ মাতৃভাষায় পূর্ণ প্রকাশ এই জাতির জন্য অনেক বড় প্রাপ্তি। দরকার ছিল শুধু উদ্যোগের। “বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধঃ দলিলপত্র থেকে বলছি” শুধু একটি পেজ নয়, এটি ওই পিপাসার্ত বাংলাদেশীদের অনেক দিনের আকাঙ্ক্ষা। এই পেজের সকলকে তাদের এই উদ্যোগের জন্য যা বলা বা দেয়া হবে, তাই কম হবে। এই ব্যস্ত সময়ে এদের সকলেই কোন কিছুর জন্য আকাঙ্ক্ষিত না হয়ে নিরলস কাজ করে গেছেন। তাই কোন ধরণের কমতি পরিলক্ষিত হলে সকলে নিজ গুনে ক্ষমা করে দিবেন। এই প্রকল্পে নিজেকে যুক্ত দেখা একটি অবিশ্বাস্য স্বপ্নের মত ছিল। আমি এবং আমার স্ত্রী দুজনেই খুবই উচ্ছ্বসিত ছিলাম। অল্প কাজ নিয়ে শুরু করলেও একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ভাল খবর এবং দু:সংবাদ আমাদের মৃদু দুলুনি দিলেও অবশেষে কাজ শেষ করার অনুভুতি অন্যরকম ছিল। আমাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, দেশকে কীভাবে দেখতে চাই? আমার দেশকে আমি কখনো কিছুই দিতে পারি নি। যদি বলি এই প্রকল্পের পরমাণু হয়ে কিছু ফেরত দেয়ার চেষ্টা করেছি, তাহলে আমার মতে এটা ধৃষ্টতা হবে। দেশকে বড় বড় মানুষগুলো যেভাবে দেখেছেন সেভাবে দেখতে চাইলেও অনেক বেশি হয়ে যাবে, এরপরেও আমি আশাবাদী। তাই আমার মতে আমার দেশের অল্প অল্পতেই আমার তুষ্টি; আমার পাওয়া। দেশকে উন্নতির চরমে না হোক কিন্তূ শিখরে দেখতে চাওয়া আমার জন্য অনেক। অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাদের সকলকে আমাকে বিশ্বাস করে এত বড় দায়িত্ব দেয়ার জন্য। এই প্রকল্পের দীর্ঘায়ু কামনা করছি।।।

অনেক দোয়া ও ভালবাসার সাথে,

আবদুর রহিম ও নাহিদা সুলতানা রকডেল,

সিডনী অস্ট্রেলিয়া থেকে