3

আবীর আহমেদ

৩০ লক্ষ শহীদ, ২ লক্ষ নারীর সম্ভ্রম বা ১ কোটি শরনার্থী… বহুল ব্যবহৃত এই কথাগুলোর পেছনে চাপা পড়ে আছে কত শত সহস্র কোটি মানুষের অসহায় অনুভূতি তা খুব সহজে প্রকাশ করা যায় না।  পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী আর তাদের এদেশীয় দোসর রাজাকার আলবদরদের নির্মম নৃশংসতার শিকার মানুষগুলো অবর্ণনীয় পরিস্থিতির শিকার হয়েছেন। মুক্তিযুদ্ধ-পরবর্তী প্রজন্মের জন্য যুদ্ধকালীন পরিস্থিতি অনুভব করা কঠিন, প্রায় অসম্ভব। মুক্তিযুদ্ধকালীন ইতিহাসের সবচেয়ে বিশুদ্ধ প্রামাণিক নথিঃ বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধঃ দলিলপত্র। এতে সংযুক্ত সংবাদপত্র, প্রতিবেদন, সরকারি নথি, আদেশপত্রে ফুটে উঠেছে সে সময়কার মানুষের অসহায়ত্ব, অস্তিত্ব রক্ষার চেষ্টা এবং স্বাধীনভাবে মাথা তুলে দাঁড়ানোর সংগ্রামের বীরত্বগাথা। এই দলিল সম্পূর্ণ বাংলায় অনূদিত হওয়ায় এদেশের নাগরিক ও বাংলাভাষীদের জন্য বাংলাদেশের জন্ম-সংগ্রাম এর ইতিহাস জানার একটা সহজ উপায়ের সৃষ্টি হলো। এই বিশাল কর্মযজ্ঞের ক্ষুদ্র অংশীদার হতে পেরে আমি আনন্দিত।