চন্দন ঘোষ শুভ

Posted on Posted in 9

মুক্তিযুদ্ধকে জানার আগ্রহটা খুব ছোট থেকেই। অনলাইনে যখন আসি, তখন দেখতাম অনেকেই মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষে কথা বলে। প্রমাণ চায় দেশের জম্মের ইতিহাস নিয়ে। তাদের প্রতি করুণা ছাড়া আর কিছুই বলার ছিল না। আমার ক্ষুদ্র ইচ্ছা ছিল মুক্তিযুদ্ধের কিছু ছবি সংগ্রহ এবং হ্যাঁ আমি সেটা পেরেছি অনলাইনে-অফলাইনে। ক্যাম্পাসে ১৫ খন্ডের দলিল দেখে ইচ্ছে হয় কিছু কম্পাইল করি। এরই মাঝে কিছু তরুণ কম্পাইলেশনে এগিয়ে আসে। আমিও তাদের সাথে যোগ দিই। কম্পাইল করতে গিয়ে পরিচয় হলো আল-আমিন ভাইয়ের সাথে। তার মাধ্যমেই আমি কম্পাইলেশনের কাজ শুরু করি। তরুণদের কাছে মুক্তিযুদ্ধের শুধু দলিলপত্র নয়, এই তরুনদের মাধ্যমেই উঠে আসুক জম্ম যুদ্ধের ইতিহাস, এই ৬৪,০০০ বর্গমাইলের ইতিহাস। এটা আশা নয় বিশ্বাস। আমরা যারা তরুণ-কিশোর আছি, সারা বাংলাদেশে জম্ম ইতিহাস তুলে ধরাটাই হোক আমাদের দায়িত্ব। যদিও মাঝে মাঝে বিভিন্ন সংগঠনের মাঝে এর চর্চা হয়েছে, কিন্তু তার পরিধি সীমাবদ্ধ ছিল। আর একটা কথা। দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তানরা (মুক্তিযোদ্ধা) আজ অনেকেই অবহেলিত, নির্যাতিত। সবাই যদি ব্যক্তি-উদ্যোগে না-ও পারি, যৌথ-উদ্যোগে আমরা অবশ্যই তাঁদের জন্য কিছু করতে পারি। দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তনেরা আজ মুখ লুকিয়ে কাঁদে। যদি তা অফলাইনে না দেখতাম তবে বিশ্বাস করতাম না। আর যারা কম্পাইলেশনে ছিলেন আপনাদের সত্যিই ধন্যবাদ দিয়ে ছোট করবো না। সামনে আমাদের আরো পথ বাকি। জয় বাংলা।