চুয়েট ডিবেটিং সোসাইটি

Posted on Posted in 6

“যুক্তি দিয়ে গাই শুদ্ধ আত্মার গান”- শুদ্ধ ও পবিত্র যেকোন কাজে চুয়েট ডিবেটিং সোসাইটি এগিয়ে আসে সবসময় চোখ বুজে। তার উপর কাজটা যদি হয় নতুন এবং অসাধারণ কিছু তখন তো কথাই নেই। সুযোগটা এল একদম হঠাৎ করে। প্রিয় শিক্ষক এবং বড় ভাই মেহদি হাসান চৌধুরী একদিন হঠাৎ করে ডাকলেন কথা আছে বলে। ডেকে জিজ্ঞেস করলেন “বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধঃ দলিলপত্র” নামক ফেসবুক পেজটা সম্পর্কে জানি কি না। জানি বলার পরই স্যার বললেন এই অসাধারণ কাজে যুক্ত হবার সুযোগ এর কথা। শোনা মাত্রই রাজী হয়ে গেলাম। আমাদের ইতিহাস জানবে সবাই আমাদেরই ভাষায়, আর সেই ইতিহাসে আমরা অবদান রাখব, ভাবতেই অসাধারণ লাগছিল। নোবেল ভাইয়ের কাছ থেকে কাজ বুঝে নিয়ে সবাইকে জানানোর পর সবাই এসে নিজের কাজ নিজ থেকে বুঝে নিল। ২১শে ফেব্রুয়ারী ভাষা দিবসে চুয়েট ডিবেটিং সোসাইটি আয়োজন করল মুক্তিযুদ্ধের দলিলপত্রের বাংলা অনুবাদের আসর। আর এভাবে চুয়েট ডিবেটিং সোসাইটি এই ইতিহাস এর সাথে জড়িত হয়ে গেল। এরপর থেকে নিয়মিত স্বাধীনতার দলিল এর অনুবাদ এর কাজ করে যাচ্ছি আমরা অনেকেই। দিনশেষে কষ্টের তুলনায় গর্বের পাল্লাটাই ভারী বেশি। আমাদের লেখায় বিশ্ব জানবে আমাদের গৌরবের ইতিহাস, এর চেয়ে গৌরব আর কী-ই বা হতে পারে। অসংখ্য কৃতজ্ঞতা যে মানুষগুলো আমাদের এ কাজে যুক্ত করেছেন তাদের। চলুক মাতৃভাষার এ গৌরবময় পথচলা, আজকের শিশু ইতিহাস জানুক নিজের ভাষায়।
-সাধারণ সম্পাদক, চুয়েট ডিবেটিং সোসাইটি