তন্দ্রা বিশ্বাস

Posted on Posted in 4

ছোটবেলা থেকে মুক্তিযুদ্ধের কাহিনী শুনে-পড়ে বড় হওয়া। মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগ আর উৎসর্গের কথা,তাদের অদম্য ইচ্ছাশক্তির কাহিনী নিয়ে আমার চিন্তাভাবনার অনেকটা জুড়েই মুক্তিযুদ্ধ। মাঝেমধ্যে মনে হয় সুযোগ থাকলে আমিও হয়তো কিছু একটা করতাম নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী। স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের এই মহান আত্মত্যাগের গাঁথা নিয়ে কিছু করার ইচ্ছা ছিল, কিন্তু তেমন সুযোগ তখনও পর্যন্ত আসেনি। হঠাৎ আমার এক বন্ধু একদিন জানাল মুক্তিযুদ্ধের দলিল নিয়ে নাকি কাজ হচ্ছে। পুরো মুক্তিযুদ্ধের দলিল নিয়ে বিভিন্ন খণ্ড অনুবাদের কাজ চলছে যাতে বাঙালিরা মাতৃভাষায় মহান মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা পেতে পারে। কাজ করার অফারটা এসেছে সজীবদার তরফ থেকে।

নিজের ক্ষুদ্র জ্ঞান,চেষ্টা আর ইচ্ছাশক্তি নিয়ে লেগে গেলাম কাজে। খুব বেশি কাজ করে উঠতে পারি নি হয়তো। তবুও ব্যস্ততার ফাঁকে চেষ্টা করেছি সেই সামান্য কাজগুলো একটু একটু করে সম্পন্ন করতে। সজীবদার একটা বিশেষ ধন্যবাদ অবশ্যই পাওনা কাজটা করার সুযোগ করে দেয়ার জন্য এবং উদ্যেক্তাদের অবশ্যই অনেক ধন্যবাদ।

ছোটবেলায় মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে জানার ইচ্ছা ছিল প্রবল। আগ্রহের তুলনায় গ্রাম্য এলাকায় জানার উৎস ছিল অপ্রতুল। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্ভাসিত করার জন্য নতুন প্রজন্মের মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে জ্ঞানের বিকল্প নেই। প্রযুক্তির যুগে অনলাইনভিত্তিক মুক্তিযুদ্ধের দলিলটি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় তরুণ প্রজন্মকে উদ্ভাসিত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে আশা করি। এছাড়া এটি সকল বয়সের নাগরিকের মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কিত কৌতুহল মেটাতে কার্যকর হবে বলে আশা করি।

স্বাধীন বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে প্রত্যেকের স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস জানা দায়িত্ব বলে আমি মনে করি। আমার ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা সেখানে নূন্যতম ভূমিকা রাখলেও নিজের কাজকে সার্থক বলে মনে হবে।