বিপুল সরকার

Posted on Posted in 2

টাইমলাইনে একটি স্ট্যাটাস দেখেই প্রথমে জানতে পারি এই প্রজেক্ট সম্পর্কে। স্ট্যাটাসটি ছিলো “আমিনুল হক পলাশ” ভাইয়ের। স্ট্যাটাসটি পড়ার পরই মনে হয়েছিলো, যেভাবেই হোক এই প্রজেক্টে আমার যুক্ত হতেই হবে এবং সাথে সাথেই পলাশ ভাইকে মেসেজ দেই। কিছুক্ষণ পরই মেসেজের রিপ্লাই আসে। ব্যস! এভাবেই আমি প্রোজেক্টের সাথে যুক্ত হয়ে যাই। প্রথম স্লট পাঠানোর পর আমাকে বলা হয়েছিল– “তিনদিনের ভেতর করে পাঠাতে পারলে খুবই ভালো হয়” । আমি এই কাজে এত বেশী আগ্রহী ছিলাম যে যেদিন আমাকে স্লট পাঠানো হয়েছিলো ঐদিন রাতেই আমি কাজ শেষ করে পলাশ ভাইকে পাঠাই এবং ঐ রাতেই নতুন আরেকটি স্লটের কাজ হাতে নেই। এভাবেই চলতে থাকে আমার কাজ। আমি চাই, মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস সবার মাঝে ছড়িয়ে পড়ুক। প্রোজেক্টের সাথে সম্পৃক্ত সবার জন্য অনেক অনেক শুভকামনা।