মোঃ আহসান উল্লাহ

Posted on Posted in 6

আব্বা মুজিবভক্ত হওয়ার বদৌলতে এবং বংশে মুক্তিযোদ্ধা থাকার সুবাদে স্কুলে ভর্তির আগেই ১৯৭১, শেখ মুজিব সংক্রান্ত ব্যাপারগুলোর সাথে পরিচয়। তখন থেকেই আব্বার কাছে এবং পরিবারের লোকদের কাছে যা শুনতাম, তা সরলভাবে বিশ্বাস করা আবশ্যক ছিল। বড় হওয়ার সাথে সাথে দেখলাম, আশেপাশের অনেকেই বিষয়গুলোকে ব্যাঙ্গাত্নক চোখে দেখতো ও বিভিন্নভাবে অস্বীকার করতে চাইতো। তখন নিজের বুদ্ধিতে খুব বেশি অগ্রসর হতে পারতাম না। সেই থেকেই বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে এসব বিষয়ে পড়াশোনা এবং বাস্তবতা নিয়ে ঘাটাঘাটি শুরু। এই প্রজন্মের আমাদের একটা আফসোস আছে। আমরা ১৯৭১ দেখি নাই। মুক্তিযোদ্ধারা তাঁদের কাজটা শেষ করেছেন, কিন্তু আমাদের জন্য অনেক দায়িত্ব দিয়ে রেখে গেছেন। মা বলতো, নিজের দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন হয়ে তা পালন করতে পারাটাই নাকি অনেক বড় দেশপ্রেমের কাজ। কথাটার অর্থ দিন বাড়ার সাথে সাথে বুঝতে পারতেছি। সেই আফসোস আর প্রয়োজনীয়তা থেকেই সবসময় চেষ্টা করেছি সত্য কে সামনে আনার। মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে অনেকভাবে কাজ করতে করতে একসময় অনেকের সাথে পরিচয় হয় এবং “বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধঃ দলিলপত্র” নিয়ে ফেসবুকে যে প্রজেক্ট ভাইয়ারা চালু করে সেখানে সামান্য কিছু কাজ করার সুযোগ পাই। নোবেল ভাইয়া একদিন বললেন, কাজ করবো নাকি? সেই থেকেই সুযোগটা আর হাতছাড়া করি নাই। সত্যি কথা বলতে, খুব সামান্যই কাজ করছি, আমি মোটেও তৃপ্ত না, কিন্তু অনেক উচ্ছ্বসিত। আরও অনেক কাজ মুক্তিযুদ্ধ এবং দেশের জন্য করতে চাই। যুদ্ধদলিল সকল বাঁধাকে অতিক্রম করে যেন সর্বোচ্চ সাফল্যের পথে যায় এই প্রত্যাশাই কাজ করতে চাই আরও।