1

মোঃ ইফতেখারুল ইসলাম

যুদ্ধদলিলে কাজ করতে পারাটা আমার জন্য অনেক গর্বের ব্যাপার। প্রথমে যখন আমার ভগ্নিপতি পুনম ভাই আমাকে কুসুম আপুর সাথে পরিচয় করিয়ে দিলেন, তখন খুবই চিন্তায় ছিলাম। কারণ এর আগে পরীক্ষা ছাড়া কখনও অনুবাদের চেষ্টা করি নি। কিন্তু আমার কাছ থেকে কাজ উদ্ধার করার জন্য কুসুম আপু যে রকম সহযোগিতা করেছেন তা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার। যুদ্ধদলিলে কাজ করতে গিয়ে সবচেয়ে সুন্দর যে অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছি, তা হল যুদ্ধের সময় মুজিবনগর সরকারের প্রশাশনিক দক্ষতা জানতে পারা। এরকম ডকুমেন্টেশনের নজির স্থাপন করা আজকের সময়েও কষ্টকর। সেখানে একাত্তরের উত্তাল সময়ে সীমিত সুযোগের মধ্যে এত নিখুঁত কাজ সত্যিই ভবিষ্যতের জন্য অনুপ্রেরণার উৎস। যুদ্ধদলিলের কাজ সফলভাবে সমাপ্ত হোক-এই কামনাই করছি।