পূর্ব পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ সংঘাত

শিরোনামঃসূত্রঃতারিখঃ
পূর্ব পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ সংঘাতক্রিশ্চিয়ান সায়েন্স মনিটর৩০ মার্চ, ১৯৭১

 

অনুবাদঃ মোঃ রাশেদ হাসান

Nobel Himura

< ১৪,০৯,২১>

.

ক্রিশ্চিয়ান সায়েন্স মনিটর, মার্চ ৩০, ১৯৭১

পূর্ব পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ সংঘাত

 

এটা খুবই দূর্ভাগ্যজনক, পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া খান পূর্ব পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনী নামিয়েছেন। বিশেষ ভাবে তখন, যখন গত ডিসেম্বরের নির্বাচনে তাঁরা (পূর্ব-পাকিস্তান) সংখ্যা গরিষ্ঠতা অর্জন করেছে।

 

যদিও পাকিস্তান নামে মাত্র গণতান্ত্রিক। সরকার পরিচালনায় সবসময় সামরিক বাহিনীর শক্ত প্রভাব ছিল।

 

দুঃখজনক ভাবে পূর্ব পাকিস্তানের নিরস্ত্র সাধারণ মানুষদের ব্যাপক হতা হতের খবর পাওয়া যাচ্ছে। যে ঝড়ের সূচনা প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া করেছেন তা হয়ত গেরিলা যুদ্ধের রূপে হাজার গুণে ধংসাত্মক হয়ে ফিরে আসবে। পূর্ব পাকিস্তানীরা তাঁদের নেতা শেখ মুজিবুর রহমানের পক্ষে যুদ্ধ করছেন, তাঁদের বিপরীতে পশ্চিম পাকিস্তানের আছে সোভিয়েত ট্যাংক এবং আমেরিকান যুদ্ধবিমান; এই অবস্থা অম্লমধুর স্মৃতিতে আমেরিকান বিপ্লবের সময়ের মিনিটম্যানদের (Minutemen) কথা মনে করিয়ে দেয়।

 

যদিও পশ্চিমারা অস্ত্রের দিক থেকে এগিয়ে আছে তবুও পূর্ব পাকিস্তানীরা তাঁদের নদী-পাহাড়-মাটি-সমুদ্রের জ্ঞান কাজে লাগাতে পারে যেখানে পশ্চিমা সমরাস্ত্র সহজে কার্যকারিতা পাবেনা।

 

এক হাজার মাইল দূরত্ব থেকে যুদ্ধ পরিচালনার লজিস্টিক এবং ভৌগলিক সমস্যা সমূহ পাকিস্তানের গৃহযুদ্ধকে নাইজেরিয়ার থেকে আলাদা করেছে। কিন্তু মানবিক সাহায্য কার্যক্রম নাইজেরিয়ার মত একই রকম বাঁধার সম্মুখীন হতেপারে যেখানে সাহায্য গুলো বিশিরভাগ সময় শত্রুর খোরাকে পরিণত হয়েছিল।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

8 + ten =