4

বাংলাদেশ এ্যাসোসিয়েশন অব কানাডা (টরেন্টো) এর কর্মতৎপরতা সৎক্রান্ত তথ্য

কানাডায় প্রবাসী বাঙ্গালীদের তৎপরতা

<৪,১৬১,৩২৩>

অনুবাদকঃ নাজিয়া বিনতে রউফ

শিরোনামসূত্রতারিখ
১৬১। বাংলাদেশ এ্যাসোসিয়েশন অব কানাডা (টরেন্টো) এর কর্মতৎপরতা সৎক্রান্ত তথ্যএ্যাসোসিয়েশনের প্রচারপত্র…………

১৯৭১

 

বাংলাদেশ এ্যাসোসিয়েশন অব কানাডা (টরেন্টো)

ইহার বর্তমান উদ্দেশ্যসমূহ

 

পাকিস্তানী সেনাবাহিনী কর্তৃক বাংলাদেশে চলমান দখলদারীত্ব এবং ঔপনিবেশিক শোষণের কারণে কানাডার এ্যাসোসিয়েশনের উপর একটি জাতিগত গোষ্ঠীর স্বাভাবিক কার্যক্রম ছাড়াও বিশেষ দায়িত্ব পালন করার দায়ভার পড়েছে । আগ্রহের বিষয়বস্তুগুলো নিম্নলিখিতঃ

১. কানাডা এখনও বাংলাদেশকে স্বাধীন, সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেয় নি এবং সেখানে কোন বাঙ্গালী কূটনৈতিক মিশনও নেই। তাই মুক্তির জন্যে সশস্ত্র সংগ্রামরত ভিনদেশী দখলে থাকা একটি দেশকে প্রতিনিধিত্বকারী কূটনৈতিক মিশনের দায়িত্ব পালন করতে হবে এ্যাসোসিয়েশনকেই।

২. কানাডায় বাঙ্গালী স্বার্থ আদায়ের জন্যে আর্থ-সামাজিক প্রতিষ্ঠানের কোন অস্তিত্ব ছিল না। সুতরাং বাঙ্গালীদের উচিত এ্যাসোসিয়েশনের মাধ্যমে এমন প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজন মেটানোর চেষ্টা করা এবং প্রতিরোধ আন্দোলনে সক্রিয় অংশগ্রহণ করা।

স্পষ্টবাক্যে, এ্যাসোসিয়েশনের দায়িত্বের মধ্যে আছেঃ

  • বাংলাদেশের সংবাদ ছড়িয়ে দেয়া,
  • সর্বসাধারণ ও প্রশাসন উভয় পর্যায়ে বাংলাদেশের জন্যে প্রচার ও প্রোপাগান্ডা,
  • পাকিস্তানী দখলদারী শক্তিকে সাহায্য না করার জন্যে বিভিন্ন সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানকে রাজী করানো,
  • বাংলাদেশের প্রতিরোধ আন্দোলনের জন্যে তহবিল সংগ্রহ করা।

 

 

 

___________________________________________________________________________

পোস্টাল বক্স ৬২৪৭, স্টেশন ‘এ’। টরন্টো আই. অন্টারিও, কানাডা।