pm

নাজিয়া খান তিথি

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস আমাদের সবচাইতে গৌরবময় ইতিহাস। স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় জন্ম হলে নিশ্চয়ই যুদ্ধে অংশগ্রহণ করতাম, তা যেভাবেই হোক না কেন। আনফরচ্যুনেটলি সেটা তো আর সম্ভব নয়। তাই যখন জানতে পারলাম সর্বস্তরের মানুষের জানার সুবিধার্থে মুক্তিযুদ্ধের অনেক অজানা তথ্যসমৃদ্ধ দলিলপত্রগুলোকে নিয়ে কাজ করার একটা সুযোগ তৈরী হতে যাচ্ছে, তখন কোনভাবেই সেটা হাতছাড়া করতে রাজি ছিলাম না। একরকম দায়মুক্তি বলা যেতে পারে। তাছাড়া বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন জায়গায় যে সব তথ্য-উপাত্ত আমরা পেয়েছি, আপাত দৃষ্টিতে তার অনেক কিছুকেই পরস্পরবিরোধী মনে হয়েছে। এই তথ্যক্লান্তির যুগে নিজে প্রকৃত সত্য জানা এবং সেই সাথে চারপাশের মানুষকে জানাতে পারাটাও কিন্তু বিরাট একটা ভাগ্যের ব্যাপার। এ কারণেই এই প্রজেক্টে কাজ করছি, করে যাবো। কাজ করতে গিয়ে বুঝতে পারলাম, এত দিন যা জেনেছি তা ছিল সামান্যতম অংশমাত্র। কখনো চোখ ঝাপসা হয়ে এসেছে, কখনো সেই চোখেই আগুন ঝরেছে। এই প্রকল্পের সাথে কাজ করাটা আমার কাছে তাই একই সাথে স্বপ্ন পূরণের আবার সম্মানেরও। আমি বিশ্বাস করি যে আপনারা ঠিক এভাবেই দেশটাকে নিয়ে ভাবেন, এগিয়ে নিয়ে যেতে চান, ধন্যবাদ।