ছাত্র ও শ্রমিক নেতাদের হয়রানি

Posted on Posted in 2

<2.110.497>

শিরোনামঃছাত্র ও শ্রমিক নেতাদের হয়রানি

সুত্রঃদৈনিক পূর্বদেশ

তারিখঃ২২ মার্চ, ১৯৭০

প্রতিবাদ সভা ও মিছিলঃছাত্রনেতা গ্রেফতারঃ

(স্টাফ রিপোর্টার)

মেনন গ্রুপ পূর্ব পাকিস্তান ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল্লাহকে গতকাল শনিবার দুপুরে তেজগাঁও বিমানবন্দরের ডোমেস্টিক লাউঞ্জের সম্মুখ থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।পুলিশ বিভাগের জনৈক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা গতকাল রাতে আমাকে বলেন যে, ২ রা জানুয়ারী পল্টনের সভার আপত্তিকর বক্তৃতা দানের সুনির্দিষ্ট অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ছাত্র ইউনিয়ন সাধারণ সম্পাদকের গ্রেফতারের প্রতিবাদে মধুর ক্যান্টিনে গতকাল বিকেলে সংগঠনের সভাপতি মোস্তফা জামাল হায়দারের সভাপতিত্তে এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।সভার পর ছাত্র ইউনিয়ন কর্মীরা এক মশাল মিছিল বের করে এবং মাহবুব উল্লাহর মুক্তির দাবী জানায়।মাহবুব উল্লাহর গ্রেফতারের প্রতিবাদে আজ রোববার সকাল ৯ টায় মধুর ক্যান্টিনে ছাত্র ইউনিয়ন কর্মীদের এক সভা এবং বিকেলে বায়তুল মোকাররমে ছাত্র ও শ্রমিকদের অপর এক সভা অনুষ্ঠিত হবে বলে সংগঠনের এক প্রেস রিলিজে বলা হয়েছে

শ্রমিক নেতার বাড়ীতে তল্লাশীপি, পি, আই, পরিবেশিত অপর খবর প্রকাশ, পূর্ব পাকিস্তান শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক জনাব সিরাজুল হোসেন খান আজ পূর্ব পাকিস্তান ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জনাব মাহবুবউল্লাহকে গ্রেফতার এবং টঙ্গি শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি কাজী জাফর আহমেদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী ও তার বাসভবনে পুলিশী তল্লাশীর তীব্র নিন্দা করেছেন।আজ রাতে সংবাদপত্রে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে অবিলম্বে জনাব মাহবুবউল্লাহর মুক্তি ও কাজী জাফরের বিরুদ্ধে জারীকৃত গ্রেফতারী পরোয়ানা প্রত্যাহার করার দাবী জানান।এ প্রসঙ্গে জনাব হোসেন আটককৃত সকল ট্রেড ইউনিয়ন কর্মী, কৃষক ও ছাত্র নেতার মুক্তি দাবী করেন।তিনি আরও বলেন যে, হুলিয়া ও গ্রেফতারী পরোয়ানা প্রত্যাহার না করলে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার শান্তিপূর্ণ পরিবেশ সৃষ্টি হবে না। *১৯৭০ সনের ২২শে ফেব্রুয়ারী পল্টন ময়দানে পূর্ব পাকিস্তান ছাত্র ইউনিয়নের আয়োজিত জনসভায় কাজী জাফর আহমদ, রাশেদ খান মেনন, মোস্তফা জামাল হায়দার ও মাহবুবউল্লাহ পূর্ব বাংলাকে স্বাধীন করার আহবান জানান।